অস্থির সবজির বাজার, বাড়তি তেলের দাম
প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৮:২৬
অস্থির সবজির বাজার, বাড়তি তেলের দাম
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

সবজির বাজারে শুরু হয়েছে অস্থিরতা। শুধু সবজির বাজারেই নয়, দাম বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন পন্যেরও। বৃহস্পতিবার (২১ আগস্ট) রাজধানীর কারওরান বাজার, মোহাম্মদপুর, সেগুনবাগিচা, মানিকনগরসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে পণ্যের দামের হেরফের দেখা গেছে। বাড়তি দামের কারণে এসব বাজারে আসা সীমিত আয়ের মানুষেরা অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।


জানা গেছে, দেশের বাজারে খোলা ও বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৭ টাকা বাড়িয়েছে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন। নতুন দাম অনুযায়ী, প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল হয়েছে ১৬০ টাকা, যা আগে ছিলো ১৫৩ টাকা। আর খোলা সয়াবিন তেলের দাম হয়েছে ১৩৬ টাকা, যা আগে ছিলো ১২৯ টাকা। গত বুধবার (২০ অক্টোবর) থেকে নতুন এ দাম কার্যকর হয়েছে।



বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সচিব মো. নুরুল ইসলাম মোল্লা বিবার্তাকে বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত সয়াবিন তেল ও পাম ওয়েলের দামে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বিবেচনায় বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশন ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে নতুন এ দাম নির্ধারণ করা হয়েছে।


এদিকে, নতুন দামে প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন তেল মিলগেটে দাম ১৩৪ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১৩৫ টাকা এবং খুচরা পর্যায়ে ১৩৬ টাকা। বোতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেল মিলগেটে ১৫০ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১৫৪ টাকা ও খুচরা পর্যায়ে ১৬০ টাকায় বিক্রি হবে। ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেল মিলগেটে ৭২০ টাকা, পরিবেশক মূল্য ৭৪০ টাকা ও খুচরা পর্যায়ে ৭৬০ টাকা। আর পাম তেল প্রতি লিটার মিলগেটে ১১৬ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১১৭ ও খুচরা পর্যায়ে ১১৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।



বাজারে তেলের দাম বাড়লেও পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। কয়েকদিন আগেও খুচরা বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৮০ টাকার বেশি বিক্রি হলেও এখন তা মিলছে মানভেদে ৫৫ থেকে ৬০ টাকায়। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাজধানীর কয়েকটি বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।


ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে প্রচুর পেঁয়াজ আসায় বাজারে দাম কমেছে। সরবরাহ স্বাভাবিক থাকলে আগামীতে আর পেঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল হওয়ার আশঙ্কা নেই। কারওয়ান বাজারের পেঁয়াজের আড়ৎদার আব্দুর রহিম মিয়া বিাবর্তাকে বলেন, সরবরাহ কম থাকায় এ মাসের শুরু থেকে পেঁয়াজের দাম খুব বেড়েছিল। এখন পেঁয়াজের সরবরাহ ঠিক হয়ে গেছে। বাজারে প্রচুর ভালো পেঁয়াজ আসছে। এ কারণে দামও কমেছে। দেশি পেঁয়াজের দাম ৫০ টাকার মধ্যে নামলে সেটা স্বাভাবিক দাম বলা যায়। কিছুদিনের মধ্যে এ দামে আসবে।



এদিকে, সবজির বাজারে এখনো অস্থির রয়েছে। বাজারে বেশিরভাগ সবজির দাম কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা দাম বেড়েছে। এসব বাজারে প্রতিকেজি সিম বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, গোল বেগুন ৮০ টাকা, লম্বা বেগুন ৬০ টাকা, ফুলকপি প্রতি পিস ৬০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, টমেটো ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা। চায়না গাজর প্রতি কেজি ১৬০ টাকা, চাল কুমড়া পিস ৪০ টাকা, প্রতি পিস লাউ আকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়ার কেজি ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, কাকরোল ৬০ টাকা, মুলা ৬০ টাকা, কচুর লতি ৬০ টাকা ও পেঁপের কেজি ২০ টাকা।


কারওয়ান বাজারের সবজির আড়ৎদার মিজানুর রহমান বিবার্তাকে বলেন, বাজারে সবজির আমদানি কম থাকায় বেড়েছে দাম। কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা দাম বেড়েছে। শীতের মৌসুম সবজির দাম কমবে। কারওয়ান বাজারে আসা রবিউল ইসলাম নামের এক ক্রেতা বিবার্তাকে বলেন, বাজারে দাম বেশি থাকায় অনেকটা বাধ্য হয়েই ক্রেতাদের বেশি দামে এসব সবজি কিনতে হচ্ছে। বাজারে সবজির সরবরাহ পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকার পরও দাম কেন চড়া, এমন প্রশ্নের কোনো জবাব সবজি বিক্রেতাদের কাছে নেই।


বিবার্তা/খলিল/গমেজ/শাহিন/এমবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com