বিশ্বের সবচেয়ে নোংরা ৬ বস্তু
প্রকাশ : ২৭ আগস্ট ২০১৬, ১৩:৫৬
বিশ্বের সবচেয়ে নোংরা ৬ বস্তু
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

আমাদের চারপাশে এমন অনেক কিছু রয়েছে যেগুলো ছাড়া আমাদের একদিনও চলে না। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এগুলো ওৎপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। কিন্তু আমরা ঘুনাক্ষরেও টের পাই না এগুলো কতটা নোংরা, জীবাণুতে ভরা। এসব স্পর্শ করার পর হাত না ধুলে হতে পারে বিপদ। জেনে নিন এমনই ৬টি বস্তুর নাম।
টাকা
টাকার চেয়ে দরকারি অথচ বিপজ্জনক জিনিস পৃথিবীতে বোধ হয় দ্বিতীয়টি নেই৷ বিপজ্জনক! কারণ, টাকা খুব দ্রুত হাতে হাতে বিভিন্ন স্থান, বিভিন্ন পরিবেশে ঘুরে বেড়ায়। কিন্তু টাকা তো পরিষ্কার করা যাবে না, তাই পরামর্শ- টাকা ধরার পরই হাত ধুয়ে ফেলুন। নিজের ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে টাকার স্পর্শ যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন।
স্মার্টফোন
স্মার্টফোন ছাড়া জীবন এখন প্রায় অচল। বিজ্ঞানীদের দাবি, ব্যবহৃত স্মার্টফোন টয়লেটের চেয়েও নোংরা। কখনও কখনও টয়লেটের চেয়ে অন্তত দশগুণ ব্যাকটিরিয়া থাকে স্মার্টফোনে। হাফিংটন পোস্টের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনেও বলা হয়েছে এই কথা। সুতরাং প্রত্যেকের উচিত মোবাইলে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল কোটিং ব্যবহার করা কিংবা প্রতিদিন অন্তত একবার ‘অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল ওয়াইপস’ দিয়ে পরিষ্কার করা।
ইয়ারফোন
ইয়ারফোন বা ইয়ারবাডসের ব্যবহারও দিনদিন বাড়ছে। কিশোর-কিশোরী, তরুণ-তরুণীদের বড় একটি অংশই কানে এই ধরনের যন্ত্র লাগিয়ে গান শুনতে ভালোবাসে। অনেকে ফোনে কথাও বলে ইয়ারফোন কানে গুঁজে। এই বস্তুটিতেও ব্যাকটিরিয়া গিজগিজ করে। সুতরাং তা নিয়মিত পরিষ্কার করা অত্যাবশ্যক। পুরোনো টুথব্রাশ দিয়ে প্রথমে বাইরের ধুলোবালি বিদায় করে তারপর গরম পানিতে ভেজানো নরম কাপড় দিয়ে মুছে নিলেই এটি পরিষ্কার হয়ে যায়।
কম্পিউটার কি-বোর্ড এবং মাউস
কাজ থামিয়ে এক্ষুনি আপনার কম্পিউটারের কি-বোর্ড আর মাউসটা একটু দেখুন। বিজ্ঞানীরা বলেন, টয়লেটের চেয়ে পাঁচগুণ ব্যাকটিরিয়া থাকে কি-বোর্ড এবং মাউসে৷ তাই ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের পাইপের সামনের অংশটি খুলে পাইপটি ওপরে ধরে এগুলোর ভেতরের ধুলো পরিষ্কার করা যেতে পারে। তারপর অবশ্যই অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল ওয়াইপস দিয়ে কি-বোর্ড আর মাউস মুছে নেয়া উচিত।
গাড়ির স্টিয়ারিং
গাড়ির স্টিয়ারিংও প্রতিদিনই পরিষ্কার করা উচিত। কেননা, এটি ব্যাকটিরিয়ার আদর্শ বিচরণভূমি।
টুথব্রাশ
টুথব্রাশ দাঁত পরিষ্কার করে। কিন্তু খুব কম মানুষই টুথব্রাশ পরিষ্কার করে। অথচ টয়লেট থেকে জীবাণু সহজেই এতে আশ্রয় নিতে পারে বলে এটি পরিষ্কার রাখা আরো বেশি দরকার।
শপিংব্যাগ
বারবার ব্যবহার করা যায় এমন শপিং ব্যাগগুলোও পরিষ্কার না করলে সেই ব্যাগে যখন যা কিনে আনবেন, তা-ই জীবাণুযুক্ত হবে। সুতরাং শপিং ব্যাগও নিয়মিত পরিষ্কার করুন।
বিবার্তা/নিশি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com