পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যাবার বিষাক্ত স্বপ্ন
প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৩৫
পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যাবার বিষাক্ত স্বপ্ন
ড. বাকী বিল্লাহ বিকুল
প্রিন্ট অ-অ+

বহুদিক দিয়ে সফল একটি সরকারের শেষ সময়কে বিতর্কিত করে তুলছে সেই পুরনো শকুনেরা। দীর্ঘ ক্ষমতাভোগীদের ক্ষমতাহীন সময়ের দহনজ্বালায় তারা উন্মাদগ্রস্থ। যে কোনো পন্থায় বিএনপি-জামায়াত জোটকে ক্ষমতায় যেতেই হবে। একের পর এক ষড়যন্ত্রের জালে তারা বিদ্ধ করছে বাঙালির শ্রেষ্ঠ সময়কে। এ দেশের সমস্ত অর্জনকে নস্যাৎ করে দেবার অশুভ চক্রান্তে নিমজ্জিত তাদের কুৎসিত সময়।


বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শাসনকালে ষড়যন্ত্রীরা একের পর এক নানাবিধ নাটক মঞ্চায়িত করেছে। বর্তমান সরকারের ক্ষমতারোহনের সময় থেকেই নানা কূটচালে বিদ্ধ করেছে সরকারকে। আগুন সন্ত্রাস থেকে শুরু করে, সমগ্র দেশব্যাপী জঙ্গিহামলায় আক্রান্ত হয়েছে প্রিয় স্বদেশ। কঠোর হস্তে তা দমন করতে পেরেছে জননেত্রীখ্যাত শেখ হাসিনার সরকার। যখনই কোনো ভালো কাজের দিকে যাত্রা করেছে সরকার তার প্রতিটি মুহূর্তে দেশবিরোধী চক্র হয়ে উঠেছে তীব্র বিরোধীতায় তৎপর। এইসব জঞ্জালপূর্ণ পরিবেশকে পায়ে দলে তবুও সরকার তার সঠিক গন্তব্যে পৌঁছাতে বদ্ধপরিকর।


সম্প্রতি বাংলাদেশে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ এর নামে যে পরিকল্পিত সন্ত্রাসের চিত্র অবলোকন করেছি, তন্মধ্যে হেফাজতিদের সেসব পরিকল্পিত সন্ত্রাসের দিনকে মনে করিয়ে দেয়। একটি ভালো কাজের মধ্য দিয়ে শুরু হয় তথাকথিত আন্দোলন, পরবর্তীতে সেসব আন্দোলন হারায় ষড়যন্ত্রের গহীন অন্ধকারে।


এর আগে আমরা ইমরান এইচ সরকারের যুদ্ধাপরাধবিরোধী কনসেপ্টের আন্দোলন দেখেছিলাম, দেশবাসীকে তা নাড়া দিয়েছিল, সমগ্র বাংলায় তার প্রভাব পড়েছিল। কিন্তু সপ্তাহ পার না হতেই সে আন্দোলনের চরিত্র বুঝতে বাঙালির বেশিদিন সময় লাগেনি।


কোটা সংস্কার আন্দোলন ব্যাপক সাড়া জাগালো প্রথম দিন, দ্বিতীয় দিনেই বোঝা গেল এটা প্রকৃতপক্ষে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী একটি জামায়াত-বিএনপির পরিকল্পিত আন্দোলন। আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপিত হয়েছে তাদের জঘণ্য দেশবিরোধী আন্দোলন।


দিন পার না হতেই সম্প্রতি আমরা দেখলাম আমাদের সুপ্রিয় সন্তানেরা রাস্তায় নেমে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ এর তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলল। সমগ্র দেশের মানুষের চেতনায় এক নতুন শিহরণ জাগিয়ে দিল আমাদের সন্তানেরা। চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল ছোটরাও পারে। রাস্তায় অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর এই প্রতিবাদ কাঁপিয়ে দিল বিশ্ব। আমরা আমাদের সন্তানদের অধিকার রক্ষার আন্দোলনে একমত হতে চেষ্টা করলাম। কিন্তু দুদিন বাদেই সেই পুরনো চেহারা আবার আমরা দেখতে পেলাম বাচ্চাদের আন্দোলনের ভিতরে। ছোট ছোট নিষ্পাপ শিশুদের ভিতরে ঢুকে যায় দুবৃত্ত সন্তর্পনে। কিন্তু গোটা জাতির বুঝতে বাকি থাকে না যে ক্ষমতার কুৎসিত বাসনাধারীরা বাচ্চাদেরকে টার্গেটে পরিণত করে।


‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলন শেষপর্যন্ত তাই ‘নিরাপদ দেশ চাই’ আন্দোলনে পরিণত হয়। ঘাপটি মেরে থাকা এই জন্তুরা বাংলাদেশের প্রতিটি জায়গায় তৎপর। এরা সুযোগে ছোবল দেয়, বিষাক্ত জিহবায় স্বপ্ন দেখে অন্ধকারে ক্ষমতায় যাবার। যে কোনো পন্থায়, যে কোনো মূল্যে ক্ষমতা প্রয়োজন এই দীর্ঘ ক্ষমতা উপোসীদের। বারবার এইসব সেয়ানা জন্তুরা ক্ষমতার বিকৃত স্বপ্ন দেখে এই বাংলায় অবৈধ পথে। বারবার তারা নাটক সাজায় কৌশলে, মঞ্চায়ন সফল হয় না। বাঙালির শানিত চেতনার কাছে তারা ধরাশায়ী হয়।


ক্রমাগত এই কুচক্রীরা বহুবিধ ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির ভিতর দিয়ে ক্ষমতায় যাবার স্বপ্ন পূরণে তৎপর হবে, বাঙালি জাতিকে সজাগ থাকতে হবে এই হায়েনাদের পরাস্ত করবার জন্যে।


এই দেশ এখন আলোয় ভরা দেশ, এখানে দেশবিরোধীদের পেছনের দরজা দিয়ে অন্ধকারে ক্ষমতায় যাবার যে বাসনা তা শুধুই তাদের স্বপ্ন মাত্র। অযাচিত দিবাস্বপ্ন দেখতে কেউ তাদের নিষেধ করেনি। কিন্তু বাঙালির কাছে চিরকাল পরাস্ত হবার ইতিহাসটাও তাদের মনে রাখা দরকার।


বিবার্তা/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com