দর্শক চাইলেই নিয়মিত হবেন আলমগীর
প্রকাশ : ২০ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:৪৯
দর্শক চাইলেই নিয়মিত হবেন আলমগীর
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

চলচ্চিত্রের জীবন্ত কিংবদন্তী অভিনেতা, কাহিনীকার, প্রযোজক, পরিচালক নায়ক আলমগীর দীর্ঘদিন পর চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন। তার এবারের চলচ্চিত্রের নাম ‘একটি সিনেমার গল্প’।


গত ১০ অক্টোবর থেকে বিএফডিসিতে চলচ্চিত্রটির দ্বিতীয়লটের শুটিং শুরু হয়েছে। এতে আলমগীর নিজেও অভিনয় করছেন। অন্যান্যের মধ্যে আছেন চম্পা, ঋতুপর্ণা, আরিফিন শুভসহ আরো অনেকে।


এরইমধ্যে আলমগীর নির্দেশিত এই চলচ্চিত্রটি নিয়ে চলচ্চিত্র পাড়ায় বেশ আলোচনা তৈরি হয়েছে। এর দুটি কারণ। একটি দীর্ঘদিন পর আলমগীর নিজেই নির্দেশনায় এসেছেন এবং আরেকটি কারণ হচ্ছে এই চলচ্চিত্রে সাম্প্রতিক সময়ের আলোচিত চলচ্চিত্র ‘ঢাকা অ্যাটাক’র নায়ক আরিফিন শুভ অভিনয় করছেন।


পাশাপাশি আরো অন্যান্য বিশেষ কারণের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে দীর্ঘদিন পর ঋতুপর্ণা বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন। এই চলচ্চিত্রের মধ্যদিয়েই সুরকার এবং সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে অভিষেক হয়েছে রুনা লায়লার। চলচ্চিত্রটি আলমগীরের নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা ‘আইকন এন্টারটেইনম্যান্ট’র ব্যানারে নির্মিত হচ্ছে।


দীর্ঘদিন পর চলচ্চিত্র নির্মাণ প্রসঙ্গে আলমগীর বলেন, বেশ কয়েকবছর যাবত মনের ভেতর একটি গল্প ঘুরপাক খাচ্ছিলো। সেই গল্পটিই নিজের মনেরমতো করেই লিখে ফেললাম। প্রতিটি সংলাপের সাথে আমার আবেগ ভীষণভাবে জড়িত। যে কারণে এই চলচ্চিত্রটি নিয়ে আমার স্বপ্নও ছিলো অনেক। অবশেষে চলচ্চিত্রটি নির্মাণ শুরু করেছি। প্রত্যেকেই যার যার অবস্থানে থেকে বেশ ভালো অভিনয় করছেন। বিশেষ করে ঋতুপর্ণা অসাধারণ একজন ম্যাচিউরড আর্টিস্ট। কিছু কিছু দৃশ্যে আমার প্রত্যাশার বাইরে অনেক ভালো অভিনয় করেছে। এতোটা ভালো অভিনয় করবে আমি ভাবতেও পারিনি। সবচেয়ে বড় চলচ্চিত্রটিতে ঋতু তার চরিত্রে টু হান্ড্রেড পারসেন্ট এক হয়ে গেছে। চলচ্চিত্রটি ঋতু কবিতা চরিত্রে অভিনয় করছে। কিন্তু চরিত্রটিতে সে এতোটাই মিশে গেছে যে ঋতু আর ঋতু নাই, যেন কবিতাই হয়েগেছে।


এখন থেকে কী চলচ্চিত্র নির্মাণে নিয়মিত হবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে আলমগীর বলেন, যদি দর্শক চাইলে অবশ্যই নিয়মিত হবো, কেন নয়। একটি সিনেমার গল্প’র শুটিং শেষ হোক, চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাক। দর্শক যদি হলে গিয়ে চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে তাদের মতামত জানান তবে নির্মাতা হিসেবে আমি ভীষণ খুশি হবো। আমি দর্শকের জন্যই চলচ্চিত্রটি তৈরি করছি।


আলমগীরের নির্দেশনায় কাজ করা প্রসঙ্গে ঋতুপর্ণা বলেন, আলমগীর ভাই আমাকে খুব স্নেহ করেন, আদর করেন। প্রতিটি দৃশ্যের আগে আমাকে বেশ ভালোভাবে সবকিছু এতো সুন্দরভাবে বুঝিয়ে দেন যে, আমি আপন মনে কাজ করতে পারি। এককথায় আমার চরিত্রটি যথাযথভাবে ফুটিয়ে তুলতে আমাকে তিনি সর্বোচ্চ সহযোগিতা করছেন। শুধু আলমগীর ভাই-ই নন। পুরো ইউনিটই আসলে আমাকে খুউব সহযোগিতা করছে। সাদেক বাচ্চু ভাইয়ের সঙ্গে দীর্ঘদিন পর কাজ করে ভীষণ ভালো লেগেছে। তবে আমি এখানে এমন আরো ভালো কিছু চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই যেন এখানকার দর্শক আমার নামটি শ্রদ্ধার সঙ্গে উচ্চারণ করেন। সেই চেষ্টা আর সেই সাধনাটা আমার মধ্যে থাকবে। কারণ বাংলাদেশের দর্শকের কাছে আমার বেশ ভালো একটা পরিচিতি আছে। সেই পরিচয়টা বেশ সম্মানের সাথে আমি ধরে রাখতে চাই। আর সেটা একমাত্র সম্ভব এখানে ভালো ভালো কিছু চলচ্চিত্রে কাজ করার মধ্যদিয়ে।


উল্লেখ্য চিত্রনায়ক আলমগীর ১৯৮৬ সালে ‘নিষ্পাপ’ চলচ্চিত্র নির্মাণের মধ্যদিয়ে একজন চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।


বিবার্তা/অভি/কাফী


ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com