শ্লীলতাহানির ভিডিও চিত্র ধারণের মামলায় পাঁচজনের কারাদণ্ড
প্রকাশ : ০৭ নভেম্বর ২০১৬, ১৬:২৬
শ্লীলতাহানির ভিডিও চিত্র ধারণের মামলায় পাঁচজনের কারাদণ্ড
সানী ইসলাম, শেরপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

শেরপুরে নালিতবাড়ীর মধুটিলা ইকোপার্কে এক গৃহবধূর শ্লীলতাহানি করে সেই ভিডিও চিত্র মোবাইল ফোনে ধারণ করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ৭ নভেম্বর সোমবার দুপুরে জনাকীর্ণ আদালতে শেরপুরের যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতের বিচারক মো. হারুন অর-রশীদ এ সাজার রায় ঘোষণা করেন।



দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার মধুটিলা ইকোপার্ক এলাকার শফিকুল ইসলাম (২৭), আব্দুস ছালাম (২৫), মনু মিয়া (২৬), ইজারাদার প্রতিনিধি গোলাম মোস্তফা (৩০) ও ওই গৃহবধূর স্বামী নজরুল ইসলাম বুলবুল (২৭)।



তাদের মধ্যে শফিকুল ইসলামকে পর্নগ্রাফি আইনের পর্ণগ্রাফি ধারণ ও সরবরাহ হছলুভনমশ দু’টি ধারায় ১২ বছরের কারাদণ্ড, দেড়লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে দেড় বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আসামি আব্দুস সালাম ও মনু মিয়াকে পর্ণগ্রাফিপশ সহযোগিতার অভিযোগে ৭ বছরের কারাদন্ড ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।



আসামি গোলাম মোস্তফাকে পর্ণগ্রাফি সরবরাহের অভিযোগে ৫ বছরের কারাদণ্ড ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। ওই নববধুর স্বামী নজরুল ইসলাম বুলবুলকে পর্ণগ্রাফি সহযোগিতার অভিযোগে ৭ বছরের কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রায়ে আদালত জরিমানার টাকা আদায় হলে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ভিকটিমকে প্রদানের আদেশ দেওয়া হয়েছে।



এর আগে ২০১৫ সালের ৩ নভেম্বর ওই নারীকে শ্লীলতাহানির মামলায় নারী ও নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে দণ্ডিত ৫ জনের প্রত্যেকের ৭ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডদেওয়া হয়েছে।



নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের পিপি গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত জানান,, ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই নালিতাবাড়ী উপজেলার মধুটিলা ইকোপার্কে স্বামীর সাথে বেড়াতে যাওয়া ওই নারীকে বখাটেরা অস্ত্রের মুখে জোরপূর্বক শ্লীলতাহানি করে মোবাইল ফোনে অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে।



পরে ওই নববধূর পরিবারের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে না পেয়ে বখাটেরা ইন্টারনেটে সেই অশ্লীল ভিডিও ছড়িয়ে দেয়। চাঞ্চল্যকর ওই ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে নালিতাবাড়ী থানায় ২০১৪ সালের ১৩ আগস্ট দু’টি পৃথক মামলা দায়ের করেন।



চাঞ্চল্যকর ওই ঘটনায় তদন্ত শেষে পুলিশ সংশ্লিষ্ট আইনে ইকোপার্কের কর্মচারী গোলাম মোস্তফাসহ ৫ আসামীর বিরুদ্ধে আদালতে পৃথক দু’টি অভিযোগপত্র দাখিল করে। শ্লীলতাহানির মামলায় গত বছরের ৩ নভেম্বর ওই ৫ আসামির ৭ বছর করে কারাদণ্ড দেয় নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল। রবিবার পর্ণগ্রাফি আইনে দায়ের করা মামলাটির রায় ঘোষণা করা হয়।




বিবার্তা/সানি/ইফতি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com