পাপ ছাড়ে না বাপকেও
প্রকাশ : ০৫ এপ্রিল ২০১৮, ২০:১৪
পাপ ছাড়ে না বাপকেও
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলায় একটা কথা আছে, পাপ ছাড়ে না বাপকেও। কথাটা-যে মিথ্যা নয়, সময়ে-সময়ে তার প্রমাণ মেলে। সর্বশেষ প্রমাণিত হলো ভারত মহাসাগরের বুকে অবস্থিত হাজার দ্বীপের দেশ মালদ্বীপে।


১২ বছর আগে ভারতের ব্যাঙ্গালোরে নারী সহকর্মী তানিয়া ব্যানারজিকে (৩১) খুন করে মালদ্বীপে পালিয়ে যায় গুরুরাজ কিশোর নামে এক ব্যক্তি। কিন্তু পাপ-যে ছাড়ে না বাপকেও! অবশেষে গত মঙ্গলবার মালদ্বীপ পুলিশের হাতে সে ধরা পড়েছে।


ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, ২০০৬ সালের ২৬ জুলাই একটি মহাসড়কের পাশে তানিয়ার মৃতদেহ পাওয়া যায়। তার শরীরে বেশ-কিছু ছুরিকাঘাতের চিহ্ন ছিল। এঘটনায় পুলিশ সন্দেহক্রমে গুরুরাজকে আটক ও জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে তানিয়া-হত্যার দায় স্বীকার করে এবং তাকে জেলে নেয়া হয়।


এরপর সে কিভাবে এবং কখন জেল থেকে ছাড়া পেল তা জানা যায়নি। তবে জেল থেকে বের হয়েই সে নাম ভাঁড়িয়ে, ভুয়া পাসপোর্ট বানিয়ে মালদ্বীপে প্রবেশ করে।


মালদ্বীপে সে নিজের নতুন নাম নেয় - ভাস্কর শ্রিবাস্তব। ধরা পড়ার আগে সে চার বছর ধরে আদ্দু সিটিতে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করতো।


সব মিলিয়ে বেশ নিশ্চিন্তেই দিন কাটছিল শ্রীযুক্ত গুরুরাজ বাবুজীর। কিন্তু পাপের ফল তো ভোগ করতেই হবে। নইলে কোথায় ব্যাংগালোরে একটা খুন, সেই খুনের হোতা লুকিয়ে আছে মালদ্বীপের মতো একটা দেশে, সেখানে সে সে কিভাবে ধরা পড়ে! সূত্র : মালদ্বীপ ইনডিপেনডেন্ট


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com