বাঙালির গৌরব ও বিজয়ের মাস ডিসেম্বর
প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:১৬
বাঙালির গৌরব ও বিজয়ের মাস ডিসেম্বর
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে বাঙালি জাতি বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলো ১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাসে। বিজয় অর্জন করার পথে নির্যাতিত হয়েছিলো আমাদের ২ লাখ মা-বোন। আমরা প্রায় ৫০টি বছর পেরিয়ে এসেছি সেই বিভীষিকাময় সময় থেকে। অনেক ত্যাগের পরে ডিসেম্বর মাসেই এসেছিলো আমাদের কাঙ্ক্ষিত বিজয়। তাই এই মাসটি আমাদের বাঙালি জাতির হৃদয়ে আনন্দ ও গৌরবের সঞ্চার করে।


১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাসের ১৬ তারিখ আমাদের বিজয় অর্জিত হলেও তার ভিত্তি বহু আগে থেকেই গড়ে উঠেছিলো। ঐ একই বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭-ই মার্চে রেসকোর্স ময়দানে দাঁড়িয়ে "এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম" ঘোষণার মধ্য দিয়েই মূলত স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন বাঙালি জাতিকে। তিনি সবাইকে যার যার জায়গা থেকে তৈরি হতে বলেছিলেন। তার একটি তর্জনীর ইশারায় সেদিন কেঁপে গিয়েছিলো পাকিস্তানি সরকারের ভিত। ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানি বাহিনী বাংলার নিরীহ মানুষের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন ভয়ংকর রাত হয়তো আর আসবে না। নিরস্ত্র বাঙালির উপর রাতের অন্ধকারে নির্বিচারে হত্যাকাণ্ড শুরু করে তারা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সেদিনই স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। যা ২৬ মার্চ ও ২৭ মার্চ তারিখে বিভিন্ন জন পাঠ করে। বঙ্গবন্ধু কে পাকিস্তানি বাহিনী গ্রেফতার করে নিয়ে যায় পশ্চিম পাকিস্তানে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ডাকে দেশের আবালবৃদ্ধবনিতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। আধুনিক অস্ত্রসজ্জিত পাকিস্তানি বাহিনীকে নাস্তানাবুদ করে এদেশের কৃষক-শ্রমিক-ছাত্রদের সমন্বয়ে গঠিত মুক্তিবাহিনী। মাত্র ৯ মাসের মাথায় স্বাধীনতা লাভ করি আমরা। অর্জন করি একটি পতাকা ও মানচিত্র।


ডিসেম্বর মাসটি ছিলো ঘটনাবহুল একটি মাস। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পাকিস্তানি বাহিনীর পরাজয়ের খবর আসতে থাকে। বাঙালি জাতি আরো উদ্যমে ঝাঁপিয়ে পড়ে পাকিস্তানি বাহিনীর উপর। দেশ স্বাধীন হবার ঠিক পূর্বে পাকিস্তানি বাহিনী ঘটায় পৃথিবীর সবচেয়ে নিকৃষ্টতম হত্যাকাণ্ড। তারা বাঙালির স্বাধীনতাকামী শিক্ষক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিল্পী, লেখক দের হত্যা করে। তারা আমাদের পিছিয়ে দেয় ১০০ বছর।


তারপর আসে সেই কাঙ্ক্ষিত ১৬ ডিসেম্বর। যে ময়দানে দাঁড়িয়ে জাতির পিতা ডাক দিয়েছিলো সংগ্রামের সেখানেই আত্মসমর্পণ করে পাকিস্তানি বাহিনী। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন লজ্জাজনক আত্মসমর্পণ আর নেই।


ডিসেম্বর মাস যেমন আমাদের কাছে আনন্দের-গৌরবের ঠিক তেমনি বেদনার। আপনজন হারানোর বেদনা, মা হারানোর বেদনা, বাবা হারানোর বেদনা, সন্তান হারানোর বেদনা, বোন হারানোর বেদনা, ভাই হারানোর বেদনা বয়ে চলেছে এদেশের মানুষ। এদেশের মুক্তিযোদ্ধা ও সমসাময়িক মানুষদের ডিসেম্বর মাস এখনো তাড়িয়ে বেড়ায়। কি নৃশংসভাবে পাকিস্তানিরা এদের মানুষকে হত্যা করেছে। চোখ বেধে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করেছে সাধারণ মানুষকে। এখনো পাকিস্তানিরা সেই নৃশংসতার জন্য ক্ষমা চায়নি। দুঃখের বিষয় এখনো এদেশে পাকিস্তানি আদর্শে বিশ্বাস করে রাজনৈতিক দল আছে। তারা এদেশে রাজনীতি করে। এটা আমাদের বাঙালি জাতির জন্যে লজ্জার এবং কষ্টের।


স্বাধীনতা অর্জনের লক্ষ্য ছিলো রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক মুক্তির। যেখানে সবার অধিকার নিশ্চিত হবে, নিশ্চিত হবে শিক্ষা-চিকিৎসা-বাসস্থানের অধিকার। ধীরে ধীরে হলেও আমরা সেদিকে এগিয়ে যাচ্ছি। জাতির পিতাকে হত্যার মাধ্যমে আমাদের সেই মুক্তিকে থামিয়ে দিতে চেয়েছিলো চক্রান্তকারীরা। কিন্তু জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাঙালি জাতি এগিয়ে যাচ্ছে প্রকৃত স্বাধীনতার দিকে। আমরা আজ অর্থনৈতিক ভাবে পাকিস্তানের চেয়ে বহুগুণে এগিয়ে। আমাদের রিজার্ভ যথেষ্ট। অন্যদিকে পাকিস্তান একটি অকার্যকর রাষ্ট্র। যাদের দেশে নেই জীবনের নিরাপত্তা। প্রতিদিন সেখানে বোমা বিস্ফোরণে শতশত মানুষ মারা যাচ্ছে। একটি জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে পাকিস্তান।


৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে যে আত্মত্যাগ এদেশের মানুষ করেছে তার যে উদ্দেশ্য ছিলো আমরা সেদিকে এগিয়ে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ আজ বাস্তব। ডিসেম্বর মাসের মর্যাদা ধরে রাখতে হবে আমাদের। যে মানুষেরা তাদের রক্তের বিনিময়ে আমাদের একটি মানচিত্র দান করলো তাদের সঠিক সম্মান নিশ্চিত করতে হবে আমাদের। তারা যে স্বপ্নের জন্য জীবন দিলো সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব আমাদের।


কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি
সহ-সভাপতি
বাংলাদেশ যুব মহিলালীগ


বিবার্তা/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com