১২ বছর পর ফোটে যে ফুল!
প্রকাশ : ২৪ আগস্ট ২০২১, ১৭:৩৭
১২ বছর পর ফোটে যে ফুল!
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

নীল আকাশের বুকে মুখ গুঁজে থাকতে থাকতেই বুঝি নীলের প্রতি এত প্রেম জেগেছিলো মণ্ডলপট্টি পাহাড়ের। চেয়েছিলো আকাশের বুকে যেমন সে মুখ গুঁজে থাকে তেমনই আরেকজন কেউ তার বুকেও সমস্ত ভালোবাসা নিয়েই মুখ গুঁজে পড়ে থাকবে। তবে চাইলেই তো আর সবসময় মেলে না। কিছু অর্জন করতে গেলে অনেকদিনের তপস্যা লাগে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য় প্রকৃতি দেবী কথা রেখেছেন। পাহাড়ের বুকে মুখ গুঁজে পড়ে থাকার জন্য পাঠিয়ে দিলেন লক্ষ লক্ষ ফুল। ফুলের নাম নীলকুরিঞ্জি। তবে সব সময় নয় এক যুগ মানে ১২ বছর পর পর এই ফুল ফুটে ওঠে মণ্ডলপট্টি পাহাড়ের বুকে।


যা দেখতে বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটকরা এসে ভিড় জমায়। কারণ লাখ লাখ নীল রঙা ফুল একসঙ্গে দেখার লোখ সামলাতে পারেন না অনেকেই। ফুল ভালোবাসে না এমন মানুষ হয়তো নেই। আর হরেক রঙা ফুল আমরা চারদিকে দেখলেও, নীল রঙের ফুলগুলো বিস্ময়কর বটে!



কর্ণাটকের মণ্ডলপট্টি পাহাড়। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এর উচ্চতা ৪০৫০ ফিট। মেদিকেরি শহর থেকে এই পাহাড়ের দূরত্ব মাত্র ১৮ কিলোমিটার। পুষ্পগিরি অভয়ারণ্যের একটা অংশ এই মণ্ডলপট্টি পাহাড়ে অবস্থিত। জিপ রাইডিং বা রোড ট্রিপের জন্য মেডিকেরি থেকে মণ্ডলপট্টি পাহাড়ের রাস্তাটি দারুণ জনপ্রিয়। এই পাহাড়টিই এখন পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হযে দাঁড়িয়েছে।


পশ্চিমঘাট পর্বতের অংশ এই মণ্ডলপট্টি পাহাড় জুড়ে এখন শুধুই নীলচে বেগুনি রং ছেয়ে আছে। পাহাড়ে ফুটেছে দুর্লভ প্রজাতির নীলকুরিঞ্জি ফুল। দুর্লভ এই কারণে যে এই ফুল প্রতি ১২ বছরে একবার ফোটে। মানে প্রতি একযুগ অন্ত এই ফুলের দর্শন পান সকলে। শুধু কর্ণাটকই নয়, কেরালা, তামিলনাড়ুতেও এই ফুল ফোটে। সেখানেও ফুল ফোটে বারো বছর পর। তামিলনাড়ুর পালিয়ান উপজাতির লোকেরা এই ফুলের প্রস্ফুটন দেখে দিন মাস বছর গণনা করেন। প্রধানত নীলগিরি পাহাড় অঞ্চলের ফুল বলে এর নাম নীলকুরিঞ্জি। দেখতেও নীলচে বেগুনি।



নীলকুরিঞ্জি ফুল সাধারণত ১৩০০ থেকে ২৪০০ মিটার উঁচুতে ফোটে। গুল্মজাতীয় বহুবর্ষজীবী এই গাছের উদ্ভিদের উচ্চতা সাধারণত ৩০ থেকে ৬০ সেন্টিমিটার। সর্বোচ্চ ১৮০ সেন্টিমিটার পর্যন্তও এই উদ্ভিদকে বড় হতে দেখা গেছে। সেই দুর্লভ ফুলেই এখন ছেয়ে গেছে মণ্ডলপট্টি পাহাড়।


নীলকুরিঞ্জি ফুলের বৈশিষ্ট্য


- এই ফুলটির প্রধান বৈশিষ্ট্য হচ্ছে ১২ বছর পরপর ফোটে।
- ফুলটি দেখতে অনেকটা ঘণ্টার মতো।
- এই ফুলগুলো নীল ও বেগুনি রঙা হয়ে থাকে।
- ফুলগুলো সাধারণত এক গুচ্ছ ফোটে।
- কুঁড়ি থেকে ফুল ফোটা পর্যন্ত প্রতিনিয়ত রং বদলায় নীলকুরিঞ্জি।


এই ফুলের দেখা সহজে পাওয়া যায় না। তাই আপনি যদি এরই মধ্যে ভারত ভ্রমণে যেতে চান; তাহলে অবশ্যই ঘুরে আসতে পারেন কর্ণাটকের মণ্ডলপট্টি পাহাড় থেকে। সেখানে গেলেই বিস্ময় নীলকুরিঞ্জি ফুলের দেখা মিলবে। মহামারীর আতঙ্ক থাকা সত্ত্বেও প্রতিষেধক নিয়ে অনেকেই ভ্রমণ শুরু করে দিয়েছেন। যাদের ভ্যাক্সিনের সম্পূর্ণ ডোজ নেয়া হয়ে গেছে তারা কিন্তু অনায়াসেই কর্ণাটকের এই পর্বতের ফুল দেখে আসতে পারেন। স্থানীয়রা তো প্রায়ই ফুল দেখতে পাহাড়ে গিয়ে হাজির হচ্ছেন। এখনই প্রকৃতির এই সৌন্দর্য দেখে উপভোগ করে না নিলে যে ফের বারো বছর অপেক্ষা করতে হবে।


বিবার্তা/অনামিকা

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com