সাংবাদিকদের সঙ্গে ট্রাম্পের লড়াই
প্রকাশ : ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:১৭
সাংবাদিকদের সঙ্গে ট্রাম্পের লড়াই
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সিএনএন-এর সাংবাদিক জিম একোস্টার মধ্যকার সাম্প্রতিক বাদানুবাদ সারাবিশ্বে সংবাদ শিরোনাম হয়েছে। তবে এই প্রথম সাংবাদিকদের আক্রমণ করেছেন ট্রাম্প, তা নয়। অতীতেও ঘটেছে এরকম ঘটনা তিনি ঘটিয়েছেন বহুবার।


সাংবাদিকদের আক্রমণ করা ট্রাম্পের অভ্যাস
মধ্যবর্তী নির্বাচনপরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে সিএনএন-এর হোয়াইট হাউস রিপোর্টার জিম একোস্টাকে আক্রমণ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। একোস্টা প্রেসিডেন্টের কাছে একটি প্রশ্নের উত্তর জানতে চাইলে ট্রাম্প বলেন, ‘‘আপনার মতো একজনকে কাজ করার সুযোগ দেয়ায় সিএনএন-এর লজ্জিত হওয়া উচিত। আপনি একজন রুঢ় এবং ভয়ানক মানুষ।’’


সেই বাদানুবাদের পর একোস্টার ‘প্রেস পাস’ স্থগিত করে হোয়াইট হাউস।


‘আমি জানি আপনি ভাবছেন না...’
গত অক্টোবর মাসেই হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে এবিসি-র সাংবাদিক সিসিলিয়া ভেগা সম্পর্কে বাজে মন্তব্য করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট তখন ভেগার কোনো প্রশ্ন আছে কিনা জানতে চেয়ে মন্তব্য করেন, ‘‘আমি তাঁকে প্রশ্ন করার জন্য বেছে নেয়ায় তিনি বিস্মিত। মনে হচ্ছে একেবারে হতভম্ব হয়ে গেছেন।’’


জবাবে ভেগা বলেন যে তিনি আসলে বিস্মিত নন।


তখন ট্রাম্প বলেন, ‘‘ঠিক আছে। আমি জানি আপনি ভাবছেন না। আপনি কখনোই ভাবেন না।’’


টুইটারে নাম ধরে অভিযোগ
গত বছরের জুন মাসে এমএসএনবিসি'র উপস্থাপক মিকা ব্রেজেজিন্সকির ওপর ক্ষিপ্ত হন ট্রাম্প। তখন তিনি টুইটারে সেই সাংবাদিককে ‘স্বল্পবুদ্ধির পাগল মিকা’ আখ্যা দেন এবং দাবি করেন যে, ফ্লোরিডায় ট্রাম্পের রিসোর্টে ভ্রমণ করার সময় সেই সাংবাদিকের চেহারার বলিরেখা দূর করার সার্জারির জায়গা থেকে ভয়াবহভাবে রক্তক্ষরণ হচ্ছিল।


কিছু সাংবাদিক বছরের পর বছর আক্রান্ত
চলতি বছরের মার্চে পেনসিলভানিয়াতে এক প্রচারণা চলাকালে এনবিসি উপস্থাপক চাক টডের ওপর রাগ ঝাড়েন ট্রাম্প। টডের ‘মিট দ্য প্রেস’ শো সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে ট্রাম্প সাংবাদিককে ‘ঘুমচোখা টড’ হিসেবে বর্ণনা করেন। এ সময় তিনি তাঁকে গালমন্দও করেন। অতীতেও টডকে নিয়ে এরকম মন্তব্য করেছেন ট্রাম্প।


টুইটার : ট্রাম্পের প্রিয় আক্রমণের স্থান
সাংবাদিকদের ওপর আক্রমণ চালাতে প্রায়ই টুইটারকে বেছে নেন ট্রাম্প। গত বছরের জুলাইয়ে তিনি একটি ভিডিও টুইট করেন। সেখানে তাঁকে সিএনএন-এর লোগো দিয়ে মুখ ঢাকা এক ব্যক্তিকে মারতে দেখা যায়। গত ডিসেম্বরে এক ভুল টুইট করার দায়ে ওয়াশিংটন পোস্ট সাংবাদিক ডেভ উইগেলকে চাকুরিচ্যুত করার দাবি জানান তিনি। আর মাঝেমাঝেই বিভিন্ন গণমাধ্যমে ‘ফেক নিউজ’ আখ্যা দিয়ে টুইট করতে দেখা যায় তাঁকে। সূত্র : ডয়চে ভেলে


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com