আমদানি বন্ধ, হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি
প্রকাশ : ০৪ মে ২০২১, ১৭:৫৩
আমদানি বন্ধ, হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি
হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের বেঁধে দেয়ার (আইপি) মেয়াদ শেষ হওয়ায় এবং পেঁয়াজ আমদানির জন্য নতুন করে আইপি না পাওয়ায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানি বন্ধ রয়েছে। এতে করে স্থানীয় বাজারে পণ্যটির সরবরাহও কমেছে। ফলে আমদানি বন্ধের ছয় দিনের ব্যবধানে হিলি স্থলবন্দরের স্থানীয় বাজারে ভারতীয় আমদানি করা ও দেশীয় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে সাত থেকে আট টাকা।


এদিকে লকডাউন অন্যদিকে পবিত্র মাহে রমজানের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যটির দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন দিনমজুর ও নিম্ন-আয়ের খেটে খাওয়া মানুষরা।


মঙ্গলবার (৪ মে) সরেজমিন হিলি স্থানীয় বাজার ঘুরে দেখা গেছে, মাত্র কয়েক দিন আগে ভারতীয় আমদানি করা পেঁয়াজ প্রতি কেজি ২২ থেকে ২৪ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে ২৮ থেকে ৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। একইভাবে দেশীয় পেঁয়াজ ৩০ থেকে ৩২ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে ৩৮ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।


হিলি স্থলবন্দরের আমদানি রফতানি কারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের বেঁধে দেয়া আইপি এর মেয়াদ শেষ হওয়ায় গত ২৯ এপ্রিল থেকে বন্দরে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ রয়েছে। যার ফলে স্থানীয় বাজারে এর প্রভাব পড়েছে। তবে সরকার নতুন করে পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে আইপি এর অনুমতি দিলে বন্দর দিয়ে পুনরায় পেঁয়াজ আমদানি শুরু হবে। তখন স্থানীয় বাজারেও পেঁয়াজের দাম কমে আসবে বলে আশাবাদী।


কথা হয় হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা রমজান আলী ও আসলাম উদ্দিনের সাথে। তারা বলেন, আজ বাজারে পেঁয়াজের দাম বেশি। মাত্র পাঁচ-ছয় দিন আগে বাজারে ২০ থেকে ২২ টাকা কেজি দরে ভারতীয় পেঁয়াজ কিনেছি। আর কয়েকদিনের ব্যবধানে সেই পেঁয়াজ এখন দাম বেড়ে ৩০ টাকা হয়ে গেছে। একেতো করোনার কারণে লকডাউন, অন্যদিকে পবিত্র রমজান মাস চলছে। যারফলে আমাদের প্রতিদিনের আয়ও কমেছে। এর মাঝে আবার এভাবে যদি পেঁয়াজের দাম বাড়ে, তাহলে আমরা নিম্ন আয়ের মানুষজন বিপদে পড়বো।


হিলি বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা ফিরোজ হোসেন বলেন, আইপি শেষ হয়ে যাওয়ায় গত ২৯ এপ্রিল থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ রয়েছে। এতে করে দেশের বাজারে পণ্যটির সরবরাহ কমে গেছে এবং দামও বাড়তে শুরু করেছে। একইভাবে বাজারে আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজের সরবরাহ কমায় দেশীয় পেঁয়াজের ওপর চাপ বেড়েছে। এতে দেশীয় পেঁয়াজের দামও বাড়তে শুরু করেছে। মোকামেই পেঁয়াজের দাম বেশি, আমরা বেশি দামে কিনে বেশি দামে বিক্রি করছি।


তবে অনেক আমদানিকারকরা নিজস্ব গুদামে পেঁয়াজ মজুত করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।


বিবার্তা/রব্বানী/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com