বিয়ের দাবিতে মেয়রের অফিসে নার্স
প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৭:২৭
বিয়ের দাবিতে মেয়রের অফিসে নার্স
রাজশাহী প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

রাজশাহীর পুঠিয়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আল মামুন খানের অফিসে বিয়ের দাবিতে এক সিনিয়র নার্সের অবস্থানের পর পুলিশ তাকে স্থানীয় থানায় নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে।


রবিবার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যার পর মেয়রের অফিসে গিয়ে তিনি বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেন। ওই নার্স অন্তঃসত্ত্বা বলেও দাবি করেন। পরে পুঠিয়া থানা পুলিশ তাকে সেখান থেকে থানায় নিয়ে যায়।


রাজশাহীর পুঠিয়া থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী জানান, এক তরুণী বিয়ের দাবিতে পুঠিয়া পৌর মেয়রের অফিসে অবস্থান নিয়েছিলেন। সেখান থেকে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি বর্তমানে থানায় আছেন। মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা হলে বিস্তারিত সব জানানো হবে।


পৌর মেয়রের অফিসে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয়া ওই নার্স জানান, প্রায় দুই বছর আগে বর্তমান মেয়র আল মামুন খানের সঙ্গে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে তার পরিচয় হয়।


পরিচয়ের পর ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মন দেয়া-নেয়ার সময় তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও হয়। এরপর তিনি অন্তঃসত্ত্বা হন। এই কথা জানিয়ে আল মামুন খানকে বিয়ের জন্য বলা হয়। কিন্তু তিনি বিয়ে করবেন না বলে জানান।


ওই তরুণী বলেন, শনিবার (১০ এপ্রিল) দুর্গাপুর থানায় মেয়র আল মামুন খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে গেলে পুলিশ অভিযোগ নেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে রবিবার মেয়রের কার্যালয়ে গিয়ে অবস্থান নিয়েছি। পরে পুলিশ সেখান থেকে থানায় নিয়ে আসে।


এ ব্যাপারে মোবাইলে কোনো কথা বলতে রাজি হননি পুঠিয়া পৌর মেয়র আল মামুন।


বিবার্তা/এনকে

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com