বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় খুশিকে খুন করা হয়: সিআইডি
প্রকাশ : ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৩৭
বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় খুশিকে খুন করা হয়: সিআইডি
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সুনামগঞ্জের ছাতকে আলোচিত খুশি বেগম হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।


শনিবার (৪ ডিসেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তাধর বলেন, মো. মহিউদ্দিনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল খুশি বেগমের। এক পর্যায়ে বিয়ে করতে মহিউদ্দিনকে চাপ দিতে থাকেন খুশি। মহিউদ্দিন তাকে বিয়ে না করে খুশিকে বাড়ি থেকে ডেকে এনে ধান ক্ষেতে খুন করে লাশ ফেলে রেখে পালিয়ে যান। সমস্ত বিষয়াদি যাচাই বাছাই করে ক্লুলেস হত্যাকাণ্ডের ক্লু নিশ্চিত হওয়ার পর ৩ ডিসেম্বর মো. মহিউদ্দিনকে চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড থানার কেডিএস এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।


মুক্তাধর বলেন, মহিউদ্দিন স্বীকার করেছেন তার সঙ্গে খুশি বেগমের (১৫) প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বেশ কিছুদিন যাবৎ খুশি তাকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিয়ে আসছিল। মহিউদ্দিন বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের সম্পর্কের বিষয়টি পরিবার ও সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের কাছে প্রকাশ করার কথা জানায়। তখন সে পরিকল্পিতভাবে ১৭ নভেম্বর রাতে খুশি বেগমকে কৌশলে বাড়ি থেকে ডেকে পার্শ্ববর্তী ধান ক্ষেতে নিয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।


তিনি বলেন, এর আগে ১৭ নভেম্বর রাতে সিলেটের সুনামগঞ্জের বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় খুশি বেগম। সে মুক্তিরগাঁও হাফিজিয়া মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। নিখোঁজের বিষয়ে ছাতক থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তার বাবা। ৪ দিন পর গ্রামের একটি ধান ক্ষেতে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় খুশি বেগমের লাশ দেখতে পেয়ে তার বাড়িতে খবর দেয়। তাৎক্ষনিকভাবে বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি নিখোঁজ খুশি বেগম মর্মে শনাক্ত করে। স্থানীয় থানা পুলিশ লাশটির সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে।


পুলিশ সুপার মুক্তাধর বলেন, খবরটি বিভিন্ন প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রচারিত হলে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এবং সিআইডি ঘটনাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে।


তিনি আরো বলেন, খুশির বাবা কবির মিয়া ছাতক বাস স্ট্যান্ডে ট্রান্সপোর্ট সংশ্লিষ্ট পেশার সাথে নিয়োজিত। তার ৬ মেয়ে ও দুই ছেলের মধ্যে খুশি বেগম সবার ছোট। ইউসুফ নামে এক লন্ডন প্রবাসীর সাথে প্রায় ২ বছর আগে পরিবারের সম্মতিতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খুশির বিয়ে হয়। স্বামীর অবর্তমানে একই এলাকার মহিউদ্দিনের সঙ্গে খুশি বেগমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মহিউদ্দিন খারগাঁও হাফিজিয়া মাদ্রাসা থেকে ২০১৮ সালে হেফজ্ পাশ করে।


বিবার্তা/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com