হেফাজতের আরো ৩৫ শীর্ষ নেতা নজরদারিতে
প্রকাশ : ২০ এপ্রিল ২০২১, ২২:৩৯
হেফাজতের আরো ৩৫ শীর্ষ নেতা নজরদারিতে
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

হেফাজতে ইসলামের আরো ৩৫ শীর্ষ নেতাকে নজরদারিতে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ইতিমধ্যে সংগঠনটির আলোচিত নেতা মামুনুল হকসহ ​১০ কেন্দ্রীয় নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


সপ্তাহব্যাপী একের পর এক নেতাকর্মী গ্রেফতারে দিশেহারা হেফাজতে ইসলাম। অনেকটা নুয়ে পড়েছেন তারা। গ্রেফতার আতঙ্কও বিরাজ করছে সংগঠনটির শীর্ষ নেতাদের মাঝে।


এমন পরিস্থিতিতে সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নেতারা। ধারণা করা হচ্ছে, সরকারের সঙ্গে সমঝোতার পথ খুঁজছে সংগঠনটি।


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের ধানমণ্ডির বাসায় সোমবার রাত ১০টার দিকে বৈঠক করেন হেফাজতের অন্তত ১০ জন শীর্ষ পর্যায়ের নেতা। তবে বৈঠকে কী আলোচনা হয়েছে সে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।


এর আগে সোমবার দুপুরে সরকারের একটি গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে হেফাজতের পাঁচ শীর্ষ নেতা বৈঠক করেন। হেফাজতের পক্ষ থেকে বৈঠকে নেতৃত্ব দেন সংগঠনটির মহাসচিব মাওলানা নূরুল ইসলাম জেহাদী।


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় বৈঠকে অংশ নেওয়া হেফাজতের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে ছিলেন দলটির নায়েবে আমির মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজী, মহাসচিব নূরুল ইসলাম জেহাদী, মামুনুল হকের ভাই বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান (দেওনার পীর) ও মাওলানা হাবিবুল্লাহ সিরাজী প্রমুখ।


এদিকে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহনগরের সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। রিমান্ডের প্রথম দিনেই মুখ খুলতে শুরু করেছেন তিনি। দিয়েছেন নানা বিষয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য।


মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) এক ব্রিফিংয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. হারুন-অর-রশিদ জানিয়েছেন, তাবলীগের সাদপন্থীদের মারধরের কথা স্বীকার করেছেন মামুনুল হক। জোশের কারণে ওয়াজ মাহফিলের বক্তৃতায় বিশিষ্ট নাগরিকদের মানহানিকর বক্তব্য দিয়েছেন বলেও স্বীকার করেছেন তিনি।


হারুন-অর-রশিদ বলেন, রিমান্ডে অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম-মহাসচিব মামুনুল হক। তিনি জানিয়েছেন, তিনি কওমি মাদরাসার কোমলমতি ছাত্রদের উসকানি দিয়ে মাঠে নামিয়েছিলেন। তার উদ্দেশ্য ছিল (ভারতের প্রধানমন্ত্রী) নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতার আন্দোলনকে কাজে লাগিয়ে সরকারকে উৎখাত করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করা। হেফাজতের নেতাকর্মীদের উসকানি দিতেন মামুনুল। তিনি বলতেন, শেখ হাসিনার সরকারের পতন হলে হেফাজতের সমর্থন ছাড়া কেউ ক্ষমতা দখল করতে পারবে না।


বিবার্তা/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com