দিনাজপুরে লাইভে যুবকের আত্মহত্যা
প্রকাশ : ১৯ অক্টোবর ২০২০, ২১:৪৫
দিনাজপুরে লাইভে যুবকের আত্মহত্যা
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

দিনাজপুর শহরে মুঠোফোনে ভিডিও লাইভে এক যুবকের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু ওই যুবকের মায়ের দাবী তার ছেলেকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেছে তার স্ত্রী এবং শ্বশুর পরিবার। এ ঘটনা ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।


দিনাজপুর উপশহরস্থ দিনাজপুর পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড খোদমাধবপুর মিস্ত্রি পাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। ওই যুবকের নাম মো. ফিরোজ আলী (২০)। সে মো. ওয়াহেদ আলীর ছেলে।


রবিবার (১৮ অক্টোবর) রাত আনুমানিক ২ টায় ফিরোজের মাকে তার শ্বশুর মুঠোফোনে জানান, দেখেন তো, আপনার ছেলে গলায় ফাঁস দিয়েছে, ভিডিও কলে দেখা যাচ্ছে।


এ সময় স্থানীয় লোকজন তার বন্ধ ঘরের দরজা ভেঙ্গে উদ্ধার করে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিযে গেলে কতর্ব্যরত চিকিৎক তাকে মৃত্য ঘোষনা করেন।


স্থানীয়রা জানান, ফিরোজ ২ বছর আগে প্রেম করে বিবাহিত বন্ধনে আবদ্ধ হয়, একই এলাকার সাহদুল ইসলামে মেয়ে সাবিনা খাতুনের সাথে। বিবাহিত জীবনে অশান্তিতে থাকলেও বছর ঘুতেই সন্তানের বাবা হয় ফিরোজ। সন্তান হওয়ার পরেও প্রায় ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত এই দম্পতির।


সাবিনা তার বাবার বাসা থেকে সামাজিক যেগাযোগ এসএমএস ও ভিডিও কলেই ঝগড়া করত। ঘটনার রাতেও ইমুর মেসেঞ্জারে ও ফোন কলে ফিরোজ মারার হুমকি দেয় স্ত্রী সাবিনা। এক পর্যায়ে সাবিনাকে ইমুর ভিডিও কলে রেখে ঘরের দরজা বন্ধ করে বিদ্যুতের তার কেটে গলায় ফাঁস দেওয়ার প্রায় দু"ঘন্টা পর সাবিনার বাবা ফিরোজের মাকে গলায় ফাঁস দেয়ার বিষয়টি জানান।


ফিরোজের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন থাকায় লাশটি ময়না তদন্ত করা হয় বলে জানিয়েছেন, কোতোয়ালি থানার ওসি মোজাফফর হোসেন।


নিহত যুবকের মা ফরিদা বেগম জানান, সাবিনা ও তার পরিবার আমার ছেলেকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেছে। শুক্রবার বিকেলে আমার ছেলে তার সন্তানকে দেখতে গেলে তার পরিবার আমার ছেলেকে মারধর করে। তার শরীরের বিভিন্ন ক্ষত দাগ আমরা পরে দেখতে পাই।


বিবার্তা/শাহী/এসএ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com