যশোরের ছোলম সিলেটে জাম্বুরার গুনাগুন
প্রকাশ : ১২ নভেম্বর ২০২০, ১৮:০৮
যশোরের ছোলম সিলেটে জাম্বুরার গুনাগুন
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

কোনো অঞ্চলে নাম তার ছোলম আবার কোনো অঞ্চলে জাম্বুরা! কেতাবি নাম বাতাবি লেবু। তবে জাম্বুরা নামে কম বেশি সকলের কাছেই পরিচিত। এক প্রকার লেবু জাতীয় টক-মিষ্টি ফল। এর ইংরেজি নাম Pomelo (pummelo বা pommelo) এবং বৈজ্ঞানিক নাম Citrus maxima (সাইট্রাস ম্যাক্সিমা) বা Citrus grandis (সাইট্রাস গ্র্যান্ডিস) । বিভিন্ন ভাষায় এটি পমেলো, জাবং, শ্যাডক ইত্যাদি নামে পরিচিত। এর আদিভূমি দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া হলেও বাংলাদেশের প্রায় সকল অঞ্চলেই কম-বেশি এর বিস্তার রয়েছে। কোনো কোনো অঞ্চলে আবার বাণিজ্যিকভাবে চাষ করা শুরু হয়েছে পুষ্টিগুন সম্পন্ন এই ফলটির।


ফলের ফ্যামিলিতে জাম্বুরা হলো এককথায় অল রাউন্ডার। যে নামেই ডাকা হোক না কেন পুষ্টি গুনে এ এক অনন্য ফল। এক নরম গোলাপি শাঁস। স্বাদে খাট্টা-মিঠা। একটু নুন-মরিচ ছড়িয়ে দিলে তো কথাই নেই! মুখ ছাড়বে দারুণ। আপেল, কমলা বা আঙুরের মতো এলিট ক্লাবের সদস্য নয় ঠিকই। কিন্তু জাম্বুরার গুণ গাইতে বসলে, দু'হাতের সবগুলো কর গুণেও শেষ করতে পারবেন না।


জাম্বুরার গুনাগুন-


প্রতি ১০০ গ্রাম খাদ্যযোগ্য জাম্বুরায় রয়েছে খাদ্যশক্তি ৩৮ কিলোক্যালরি। প্রোটিন ০.৫ গ্রাম। স্নেহ ০.৩ গ্রাম। শর্করা ৮.৫ গ্রাম। খাদ্যআঁশ ১ গ্রাম। থায়ামিন ০.০৩৪ মিলি গ্রাম। খনিজ লবণ ০.২০ গ্রাম। রিবোফ্লেভিন ০.০২৭ মিলি গ্রাম। নিয়াসিন ০.২২ মিলি গ্রাম। ভিটামিন বি২ ০.০৪ মিলি গ্রাম। ভিটামিন বি৬ ০.০৩৬ মিলি গ্রাম। ভিটামিন সি ১০৫ মিলি গ্রাম। ক্যারোটিন ১২০ মাইক্রো গ্রাম। আয়রন ০.২ মিলি গ্রাম। ক্যালসিয়াম ৩৭ মিলি গ্রাম। ম্যাগনেসিয়াম ৬ মিলিগ্রাম। ম্যাংগানিজ ০.০১৭ মিলিগ্রাম। ফসফরাস ১৭ মিলিগ্রাম। পটাশিয়াম ২১৬ মিলিগ্রাম। সোডিয়াম ১ মিলিগ্রাম। জাম্বুরা একটি ভিটামিন সমৃদ্ধ ফল। এর পুষ্টিমান অনেক উন্নত।


এক নজরে দেখে নেয়া যাক, জাম্বুরার গুনাগুন


# হাঁপানির সমস্যায় ভুগছেন? বাড়ছে কোলেস্টেরল? ওষুধে বিশেষ কাজ হচ্ছে না? জাম্বুরা খান। সব রোগের মহৌষধি। সতেজ রাখবে আপনার হার্টও।


# জাম্বুরা ঠান্ডা, সর্দি-জ্বর জনিত সমস্যার জন্য খেলে ভাল ফলাফল পাওয়া যায় । এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে।


# জাম্বুরাতে বিদ্যমান বায়োফ্লভনয়েড বেশি থাকায় ব্রেস্ট ক্যান্সারের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে।


# ভিটামিন ‘সি’ বেশি থাকায় রক্তনালির সংকোচন-প্রসারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ডায়াবেটিস, জ্বর, নিদ্রাহীনতা, মুখের ভেতরে ঘা, পাকস্থলী ও অগ্ন্যাশয়ের বিভিন্ন রোগ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।


# নিয়মিত জাম্বুরা খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয় ও পেটের নানা রকম হজমজনিত সমস্যার প্রতিকার হয়।


টক-মিষ্টি ফলটি সাধারণত ভাদ্র-আশ্বিন মাসে বাংলাদেশের সব অঞ্চলেই পাওয়া যায়। তবে এই ফল বাজারে আসতে শুরু করে শ্রাবণের মাঝামাঝি সময়ে। কার্তিক মাসের শেষ পর্যন্ত পাওয়া যায়। বাজারে এখন প্রচুর জাম্বুরা পাওয়া যাচ্ছে। দেশি ফল হওয়ায় এর দামও কম। তাই খাদ্য তালিকায় আজই যোগ করতে পারেন সুস্বাদু পুষ্টিগুন সম্পন্ন এই ফল।


বিবার্তা/জাই


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com