শিশু ধর্ষণে ফাঁসি, কঠোর সাজার পক্ষে ভারতে নয়া বিল
প্রকাশ : ২৪ জুলাই ২০১৮, ১১:৪৮
শিশু ধর্ষণে ফাঁসি, কঠোর সাজার পক্ষে ভারতে নয়া বিল
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

শিশু ধর্ষণে মত্যুদণ্ডের মতো কড়া সাজার বিধান আনার পথে আরো এক ধাপ এগোল ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।


ভারতীয় দণ্ডবিধি ও ফৌজদারি আইন (সংশোধিত), ২০১৮ বিলটি সোমবার লোকসভায় পেশ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেণ রিজিজু। নাবালিকাদের উপর নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে চলায় সম্প্রতি ধর্ষণকারীদের কঠোর সাজা দেয়ার প্রস্তাব দেয় দেশটির নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রণালয়।


মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রস্তাবে বলা হয়, ১২ বছরের নিচে নাবালিকাদের ধর্ষণে শাস্তি হোক মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। ওই প্রস্তাব মেনে নেয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকার। জারি হয় অধ্যাদেশ।


কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত ছিল, বর্ষা অধিবেশনে ওই সংশোধনী বিলটি আনা হবে। সেই মতো সোমবার বিলটি লোকসভায় পেশ করেন রিজিজু।


বিলে একটি নতুন ধারা যোগ করে বলা হয়েছে, ১২ বছরের নিচে কোনো নাবলিকাকে ধর্ষণ বা গণধর্ষণের দায়ে অন্তত ২০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং সর্ব্বোচ্চ মৃত্যুদণ্ড দেয়া যাবে। এমন ক্ষেত্রে ধর্ষণকারীরা জামিনও পাবে না।


জামিন অযোগ্য ধারা আনা হয়েছে ১৬ বছরের কম কাউকে ধর্ষণের ক্ষেত্রেও। সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবনের সুপারিশ করা হয়েছে। প্রাপ্তবয়স্ক নারীদের ধর্ষণে ন্যূনতম সাজা ৭ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করা হচ্ছে।


অপরাধীদের দ্রুত শাস্তিবিধানে অভিযোগ জানানোর দু’মাসের মধ্যে ধর্ষণ মামলার তদন্ত এবং মামলার শুনানিও দু’মাসের মধ্যে শেষ করার ধারা এনেছে কেন্দ্র। অভিযুক্তদের পক্ষে করা পুনরাবেদনের শুনানিও ছয় মাসের শেষ করতে বলা হয়েছে সংশোধিত বিলে।


লোকসভা ও রাজ্যসভায় সংশোধনী বিলটি পাশ হলেই আইন সংশোধন করা হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com