‘একজন সাহসী উত্তরসূরির জন্য শুভাশিস’
প্রকাশ : ০৭ জুন ২০১৮, ২৩:১১
‘একজন সাহসী উত্তরসূরির জন্য শুভাশিস’
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

এই তরুণকে আমি দেখেছি বেশ কয়েকবার, কিন্তু কথা হয়নি কখনো। এদিক-ওদিক থেকে কেবলই তার স্তুতি আসে কানে। শুনি, ছেলেটা ছাত্র-ছাত্রীদের অধিকার আদায়ে রাজপথে সরব, যা বর্তমান সময়ের ছাত্র নেতাদের ক্ষেত্রে বিরল, ব্যতিক্রম।


কানে আসে, দুর্দান্ত সাহসী এই তরুণ ছাত্রনেতা, যে সকল রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে বীরের মত অবহেলিত মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করেছে। চট্টলবীর মহিউদ্দিন চৌধুরীর মতোই সে সকল অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার।


কার ভুল, কার অন্যায় - সরকারের না বিরোধীদলের সেটা তার বিবেচ্য বিষয় নয়। চট্টগ্রামের নানান শ্রেণী-পেশার মানুষের কাছে ছাত্রবন্ধু হিসেবে বেশ পরিচিত হয়ে উঠেছে সে। যখন জানলাম এই তরুণ আমার প্রিয় ক্যাম্পাস ওমরগণি এম ই এস কলেজের ছাত্র, তখন আনন্দটা আরো বেড়ে গেল।


বিশেষ গর্ব অনুভব করলাম এই ভেবে যে, এই কলেজেরই ছাত্র ছিলাম আমি, আমার ছাত্র রাজনীতির স্বর্ণোজ্জল দিনগুলো আমি কাটিয়েছি এই ক্যাম্পাসেই। আমি যেমন মুজিব আদর্শ আর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের রাজনীতিকে আমার ধ্যান-জ্ঞান করেছিলাম, এই তরুণ ছাত্রনেতাও সেই আদর্শ বাস্তবানের লড়াইয়ে মগ্ন।


এ সমস্ত কিছু আমাকে বিশেষভাবে আকৃষ্ট করেছে এই তরুণের কর্মকাণ্ডের প্রতি, যার নাম - নুরুল আজিম রনি। সে চট্টগ্রামের ছেলে হলেও দেশজুড়ে সাম্প্রতিককালের সবচেয়ে আলোচিত ছাত্র নেতা। হয়তো আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসাটাই তার জন্য কাল হয়েছে।


প্রকৃত ছাত্রনেতা হিসেবে এই তরুণ যখন সকল আপোষকামীতাকে পায়ে পিষে স্বচ্ছ একটা ভাবমূর্তি গড়ে তোলার চেষ্টায় ব্রত, তখনই তার পেছনে লেগে গেলো অসুস্থ রাজনীতির ধারক-বাহকরা। বন্ধুর কাছে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে সে হলো চাঁদাবাজ। ছাত্র ভর্তির সময় অবৈধভাবে নেয়া বাড়তি টাকা প্রতিষ্ঠানের কাছে ফেরত চাওয়ার জন্য সে হয়ে গেলো শিক্ষক নির্যাতনকারী।


এই দুই ঘটনায় মাথা গরম করা আচরণকে পুঁজি করলো তার প্রতিপক্ষরা। সেই অসৌজন্যমূলক আচরণের নিচে তার সাফল্য, কীর্তি, জনপ্রিয়তা আর সম্ভাবনাকে কবর দিতে উঠে পড়ে লেগে গেলো ঈর্ষান্বিত প্রতিপক্ষরা। কিছু কিছু টেলিভিশন, পত্রিকা, অনলাইন রাতারাতি তার গায়ে কলংকের দাগ সেঁটে দেয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করলো।


এসব কিছুই রনির জন্য আপাত দৃষ্টিতে ক্ষতির কারণ হলেও, আমার এই উত্তরসূরি সাহসী তরুণকে বলবো - ভয় পেয়ো না রনি। নিন্দুকেরা যা-ই বলুক, অব্যাহত ভাল কাজ তোমাকে করে রাখবে ছাত্র-ছাত্রী আর অভিভাবকদের নয়নের মণি। অধিকার আদায়ের সংগ্রামের পথ বরাবরই নিষ্ঠুর রকমের কঠিন। সেটাকে মনে রেখেই তোমাকে এগিয়ে যেতে হবে।


জেল জুলুম নির্যাতনকে জেনে-মেনেই আমাদের পূর্বসূরীরা রাজনীতিতে বড় হয়েছেন, বরেণ্য হয়েছেন। মিথ্যা কালিমা কখনো স্থায়ী ক্ষত তৈরি করতে পারেনা বরং শক্তিশালী করে খাটি সাধককে। তুমি এই প্রজন্মের রাজনীতির একজন সাধক। তোমার হেরে গেলে চলবে না, হার মানা তোমাকে মানাবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার মতো বুকে সাহস রাখো। তোমাকে যারা বিচ্যুত করতে চায়, ধ্বংস করতে চায় তাদের বিচারের ভার ছেড়ে দাও অসীম শক্তির প্রকৃতির হাতে। আর আমি, আমার মতো আরো অনেকে আছি তোমার সাথে। নিজের সুন্দর লক্ষ্যে অবিচল থাকো। তোমাকে সংগ্রামী অভিবাদন।


বৈশাখী টেলিভিশনের হেড অব নিউজ অশোক চৌধুরীর ফেসবুক থেকে

বিবার্তা/সোহান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com