নজর কেড়েছে সবুজ পাহাড়ে সাদা মেঘের ভেলা
প্রকাশ : ১৯ জুলাই ২০২১, ০৮:৩৪
নজর কেড়েছে সবুজ পাহাড়ে সাদা মেঘের ভেলা
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সবুজ পাহাড়ে সাদা মেঘের ভেলা। শরতের রূপ যেন ফিরে এসেছে ভরা বর্ষায়। খাগড়াছড়ির পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে কখনো রোদ কখনো বৃষ্টি। করোনার কারণে মানুষের চলাচল সীমিত হওয়ায় প্রকৃতি ফিরেছে আপন সৌন্দর্যে।


লকডাউনে বদলে গেছে পাহাড়ে প্রকৃতি। সবুজ পাহাড়ে উড়ে যাচ্ছে সাদা মেঘ। পাহাড়ে এখন রোদ-বৃষ্টির খেলা। পাহাড়ের রূপ দেখে মুগ্ধ হবেন যে কেউ। লকডাউনের কারণে ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে পাহাড়ে প্রকৃতিতে।


লকডাউনের কারণে প্রকৃতির সজীবতা অন্য যে কোনো বছরের চেয়ে বেশি। সড়কে যান চলাচল কম থাকায় কমেছে দূষণ। মানুষের চলাচল কম থাকায় প্রকৃতিতে ফিরেছে সজীবতা।


পাহাড়ের অর্কিড সংরক্ষক সাথোয়াই মারমা জানান, অন্য যে কোনো বছরের তুলনায় এ বছর প্রকৃতি আরো বেশি সজীব। লকডাউনের কারণে প্রকৃতিতে ফিরেছে স্বকীয়তা। প্রকৃতির এ পরিবর্তন আমাদের জন্য আশীর্বাদ। আমরা ছোটবেলায় গল্প শুনতাম বর্ষায় প্রকৃতি খুব সুন্দর হয়। এবার চলমান লকডাউনে সেটি দেখছি।বর্ষা মানে মেঘ আর মেঘ মানে বৃষ্টি! অনেক দিন পর প্রকৃতি যেন তার রূপে প্রত্যাবর্তন করেছে।


তিনি বলেন, যখন লকডাউন ছিলো না, যানচলাচল বেশি ছিলো, মানুষের যাতায়াত বেশি ছিলো। তখন প্রকৃতিতে একটা রুক্ষতা ছিলো। এখন সেটি নেই। আমাদের উচিত প্রকৃতির প্রতি আমাদের শোষণবন্ধ করা।


বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী প্রেরণা রোয়াজা বলেন, করোনাকালীন আমাদের জীবনে অনেক সমস্যা দেখা দিয়েছে। কিন্তু প্রকৃতি তার নিজস্ব সজীবতা আবার নতুন করে ফিরে পেয়েছে। প্রকৃতি আবার নতুন সাজে পুনরুজ্জীবিত হচ্ছে।পরিবেশের যে দূষণ ছিলো তা লকডাউনের কারণে কিছুটা হলেও কমে এসেছে। এটি প্রকৃতির জন্য আশীবাদ।


প্রকৃতির এই পরিবর্তন জীববৈচিত্র্যে ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে। মানুষের চলাচল সীমিত হওয়ায় ও পর্যটকদের আনাগোনা থাকায় পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে সুনসান নীরবতা বিরাজ করছে।


বন্য প্রাণিবিষয়ক আলোকচিত্রী সবুজ চাকমা বলেন, লকডাউনের কারণে প্রকৃতি অনেকটাই বদলে গেছে। প্রকৃতি তার আপন মহিমায় ফিরেছে। প্রাণীরা নিরাপদ হয়েছে। অচেনা অনেক পাখি লোকালয়ে কাছাকাছি চলে এসেছে। তারা অবাধে বিচরণ করছে । প্রকৃতিকে রক্ষায় বন বাঁচাতে হবে, কাঠ পাচার বন্ধ করতে হবে এবং বৃক্ষরোপণ করতে হবে।


খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী ও সংগীত শিল্পী জীবন রোয়াজা বলেন, লকডাউনে জনজীবনের বিঘ্নতা ঘটলেও আমার মনে হয় খাগড়াছড়ির পরিবেশ আগের মতই প্রাণ ফিরে পেতে চলেছে। আমি লক্ষ্য করেছি অনেক আজানা পাখি পার্কের গাছে গাছে নিশ্চিন্তে ঘোরাফেরা করছে। আগে কোনো পাখি দেখা যেতো না। এখন দেখা যায় পাখিগুলো আমাদের কাছেই চলে আসছে। প্রকৃতিকে আগের যে প্রাণ তা ফিরিয়ে দিচ্ছে!


লকডাউনের কারণে প্রকৃতি আপন সৌন্দর্যে প্রত্যাবর্তন করেছে। এমন সৌন্দর্য ধরে রাখতে প্রকৃতি ও পরিবেশ সংরক্ষণের দাবি জানিয়েছে বিভাগীয় বনকর্মকর্তা সরোয়ার আলম।


তিনি জানান, বর্ষা মৌসুমে পার্বত্য চট্টগ্রামের সবুজ প্রকৃতি আরো সতেজ হয়ে উঠেছে। লকডাউনে পর্যটকদের আনাগোনা নেই। প্রকৃতির সৌন্দর্য ধরে রাখতে পরিবেশ সংরক্ষণ করতে হবে। প্রাকৃতিক বনগুলো রক্ষা করতে হবে।লকডাউন শেষেও প্রকৃতি রক্ষায় মানুষ আরো সচেতন হবে।


বিবার্তা/বিদ্যুৎ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com