গরমে আমারদায়ক রঙ্গিন বিছানার চাদর
প্রকাশ : ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৪৫
গরমে আমারদায়ক রঙ্গিন বিছানার চাদর
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সারাদিনের ক্লান্তি শেষে একটুখানি বিশ্রামের জন্য চাই আরামদায়ক বিছানা। বিছানা আপনার রুচিশীলতারও পরিচায়ক। একটি ঘরের সৌন্দর্যের অনেকখানি নির্ভর করে শোবার ঘরের সৌন্দর্যের ওপর। আর শোবার ঘরের সৌন্দর্য বাড়াতে চাই রুচিশীল বিছানার চাদর। তাই ঘরের সৌন্দর্য ও নিজের আরামের কথা মাথায় রেখে বিছানার চাদর নির্বাচন করা উচিত।


বিছানার চাদর এখন শুধু মাত্র প্রয়োজন নয়, আপনার রুচির পরিচায়ক ও গৃহসজ্জার উপকরণ। সারা দিনের ক্লান্তির পর সবাই বিছানায় আয়েশ করে ঘুমাতে চায়। তাই বিছানার চাদরটি হওয়া চাই আমারদায়ক, সুন্দর ও সময় উপযোগী।


মূলত দুই ধরনের বিছানার চাদর রয়েছে। একটি হলো বেড কাভার ও অন্যটি বেডশিট। বেড কাভার সেটসহ হয় অর্থাৎ বালিশের কাভারসহ ও বেডশিট হলো বালিশের কাভার ছাড়া শুধু মাত্র বিছানার চাদর।


বাজারে হালকা ও ভারী দুই ধরনের চাদরই পাওয়া যায়। এছাড়াও বাজারের সাধারণ চাদরের পাশাপাশি দেশিয় শোরুম দেশি দশের নিজস্ব ডিজাইনাদের তৈরি চাদর বেশ জনপ্রিয়। দেশি দশের প্রায় প্রতিটি শোরুমেই ব্লক, বাটিক, টাইডাই, সিল্ক, খাদি, এপ্লিক, নকশি কাঁথার চাদর পাওয়া যায়।


তবে যারা একটু ভারী কাজ করা চাদর পছন্দ করেন তাদের জন্য হাতে এপ্লিক, মেশিন এপ্লিক, এম্বোডারী করা সুতি, খাদি ও নকশি কাঁথার বিছানার চাদর রয়েছে। তবে আমাদের বেডশিটের সংখ্যাই তুলনামূলক বেশি।



এছাড়া ফ্যাশন হাউজ নিপুনে হাতে করা ব্লক, কাঁথা ফোঁড়ের বেডশিট রয়েছে। আবার পছন্দ অনুসারে বিছানার চাদরের সাথে মিলিয়ে সিঙ্গেল বালিশের কাভারও কেনা যাবে।


এছাড়া ফ্যাশন হাউজ যাত্রাতে সম্পূর্ণ ভিন্নধারার হাতের সেলাই করা, ব্লক, বাটিকের বিছানার চাদর রয়েছে।


অন্যদিকে দেশি প্রতিষ্ঠান আড়ং এ অনেক আগে থেকেই নিজস্ব ডিজাইনারদের তৈরি বিছানার চাদর পাওয়া যায়। এখানে কিং, কুইন, সেমি ডাবল ও সিঙ্গেল সব ধরনের চাদরই পাওয়া যায়।


সব ধরন ও আকারের চাদর থাকলেও উপহারের জন্য ক্রেতারা ভারী চাদর যেমন কাঁথা ফোঁড়, চুমকি বা ডলার বসানো, সিল্কের উপর একটু রঙ্গিন চাদর পছন্দ করেন। অন্যদিকে নিজেদের ঘরের জন্য কিনলে গরমের কথা ভেবে হালকা রঙই বেশি পছন্দ করেন।


মূল শোবার ঘর, বাচ্চাদের ঘর, অতিথিদের ঘরের চাদর ভিন্ন ভিন্ন কিনতে হবে। অনেকে আবার বসার ঘরেও ছোট বিছানা পছন্দ করেন। হালকা রঙের চাদর চোখে শান্তি দেয়। তবে গাঢ় রঙ পছন্দ করলে হালকা রঙের উপর রঙ্গিন ফুলের বেডশিট ব্যবহার করা যেতে পারে। বাচ্চাদের ঘরে বেডকাভার না দিয়ে বেডশিট ও মূল শোবার ঘরে বেডকাভার ভাল লাগবে।


কিন্তু বাচ্চাদের ঘরে একেবারেই হালকা রঙের চাদর না দেয়াই ভালো। আবার শিশুদের ঘরে বেড কাভার না বিছিয়ে বেডশিট ও ভিন্ন রঙ্গের বালিশের কাভার ব্যবহার করলে সুন্দর লাগবে।


অতিথিদের ঘরে চেক বা স্টাইপ বেডকাভার দিতে পারেন। কিন্তু বসার ঘরে নকশি কাঁথা বা ব্লক করা ভারী বেডশিট দিলে একটি উৎসব আমেজ থাকবে।


এছাড়া নিউমার্কেটে বেডকাভার ও বেডশিট পাবেন। দেশি ব্যান্ড হোমটেক্সের সুতি চাদরগুলো গরমে বেশি বিক্রি হয়। তবে হোমটেক্সের চাদর রয়েছে দুই রকম একটি সাধারণ কটন অন্যটি টুইল কটন। টুইল কটন একটু ভারী ও বেশি আরামদায়ক হয়।


গরমে বাজারে ফুলেল প্রিন্টের চাদরগুলোর চাহিদা বেশি। এই প্রিন্টের বা ব্লক করা বেডশিট বেশি জনপ্রিয়। অন্যদিকে চাইনিজ ও ভারতীয় সুতি বেডকাভারও বড় বিছানার জন্য বা উপহারে দেয়ার জন্য অনেকে কিনছেন। আর বর্তমানে চাইনিজ বিছানার চাদর তুলনামূলক কম দামে পাওয়া যায় বলে ভারতীয় চাদরের চেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে।


আসলে অতিরিক্ত শীত বা অতিরিক্ত গরম কোনোটিই আমাদের শরীরের জন্য আরামদায়ক নয়। এই গরমে দিনটা তো যেমন তেমন কেটে যায়, কিন্তু রাতগুলো ভীষণ দীর্ঘ। মানুষের শরীর মাত্রই রাতে একটু বিশ্রাম চায়। কিন্তু এই বিশ্রাম নেবার সময়েই যদি অস্বস্তি হয় আর গরম লাগে? তাহলে তো ঠিক মতন ঘুমানো দূরে থাক, ঘুমটাই আসতে চায় না দু চোখের পাতায়। আর তাই বিছানার চাদর এখন শুধু মাত্র প্রয়োজন নয়, আপনার রুচির পরিচায়ক ও গৃহসজ্জার উপকরণ এবং গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com