বড়দিনের সাজ-পোশাক
প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:২৮
বড়দিনের সাজ-পোশাক
মডেল: জাকিয়া ইমি
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

চলে এলো বড়দিন। খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। তাই তাদের আয়োজন আর উদযাপন অবশ্যই স্পেশালই হবে বলা যায়। অন্য সকল দিবসের মতো বড়দিনের কোনো ড্রেস কোড নেই। তাই আপনি বড়দিনে আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো পোশাক পরতে পারেন। শুধু সময়, স্থান, বুঝে আপনি আপনাকে সাজিয়ে নিতে পারেন।


আপনি বড়দিনের প্রোগ্রামগুলোকে আলাদা আলাদা করে নিন। দিনের প্রোগ্রামে এবং রাতের প্রোগ্রামে কি কি পোশাক পরবেন সেগুলো আগে থেকে গুছিয়ে রাখলে আপনার সময় বেঁচে যাবে এবং কোনো ধরনের টেনশন ছড়াই ঝটপট তৈরি হয়ে যেতে পারবেন। এই একটি দিনে নিজেরা কীভাবে সাজগোজ করবে, কখন কোন পোশাক আর অনুসঙ্গগুলো ফ্যাশনে নতুন মাত্রা দেবে- তা নিয়ে নারীরা এরই মধ্যে প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে।


নিজেকে সুন্দর আর সাবলীলভাবে উপস্থাপন করতে আপনার কেনাকাটা আর সাজপোশাক নিয়ে থাকছে আজকের আয়োজন-


বড়দিনের পোশাক বেছে নিতে এখন পছন্দের শীর্ষে দেশি পোশাকই থাকে। এজন্য এখন ফ্যাশন হাউজগুলোতে চলছে শেষ মুহূর্তের তোড়জোড়। পোশাকের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের শাল, চাদরও চলছে এখন। সব বয়সী নারীরা তাদের পছন্দের তালিকায় শাড়িকেই প্রাধান্য দেয়। দেশীয় তাঁতের শাড়ি, জামদানি, সিল্ক, কাতান বড়দিনে বেশি উপযোগী আপনার জন্য।


পোশাকের তুলনায় ফ্যাশনের দিক দিয়ে এখন ব্যাগ আর জুতা ব্যবহারের চিন্তাভাবনাও থেমে নেই। ব্যাগ আর জুতা নির্বাচনে আপনি এখন কিছুটা ভিন্ন পন্থা বেছে নিতেই পারেন। পোশাকের চেয়ে একেবারে ভিন্ন রঙের ব্যাগ আর জুতা বেছে নিতে পারেন। আপনি জুতা কিনতে গেলে পায়ের ধরণ আর ফ্যাশন- দুদিকেই মন দিন। এখন মেয়েদের জন্য দুই ফিতার জুতা বা স্যান্ডেল বেশি ভালো দেখায়। দুইফিতার হালকা কাজের স্যান্ডেল আপনি সব পোশাকের সঙ্গেই পরতে পারবেন।


এবারে সাজগোজ


১. যেকোনো ধরণের মেকআপ করার আগে ভালো করে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে নিন। সঙ্গে গোলাপি রঙের ব্লাশার ব্যবহার করতে পারেন। আর শীতের দিন মেকআপ বার বার ঠিক না করলেও চলে বলে প্রথমেই ভালো ফাউন্ডেশন বা প্যানকেক দিয়ে ভালো করে বসিয়ে নিন মেকআপ।


২. যে পোশাকই পরুন না কেন, সাজটা হবে আপনার মনের মতো এবং ব্যক্তিত্বপূর্ণ। আপনার চোখদুটোকে সাজাতে বেশ জমকালো কাজল পরে নিন। দিন বা রাতের সাজে ডার্ক আই শ্যাডো ব্যবহার করুন। চোখের পাতায় হালকা মাশকারাও লাগিয়ে নিন।


৩. ঠোঁটে উজ্জ্বল রঙের লিপ লাইনার ব্যবহার করবেন। তার সঙ্গে একই রঙের লিপস্টিক ব্যবহার করুন। চাইলে লিপগ্লসও ব্যবহার করতে পারেন। রাতের পার্টি থাকলে একটু গাড় আর দীর্ঘস্থায়ী লিপিস্টিক লাগিয়ে নেবেন। এতে করে অনেকক্ষণ নিশ্চিন্তে থাকা যাবে।


৪. পার্টির সময়ে চুল খুলে রাখাই ভালো। এখন শীতকাল, চুল ছেড়ে রাখলে গরম লাগার খুব ভয় নেই। তবে পার্টিতে গেলে সুন্দর করে চুলটা বেধেও নিতে পারেন। খোপা, পনিটেইল, বিভিন্ন ধরণের বেণি আপনার সাজকে আরও নতুন মাত্রা দেবে।


বড়দিনের সাজের ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই ওয়েদারের কথা মাথায় রাখতে হবে। অনেক দেশের ডিসম্বরে তুষারপাত হলেও আমাদের দেশে ঠাণ্ডা গরমের কোনো ঠিক ঠিকানা নেই। তাই স্লিভলেস বা হালকা পোশাক পরলেও সাথে একটি পাতলা চাদর বা কোট, সোয়েটার টাইপ কিছু রাখুন।
এমন কোনো পোশক বা এমন কোনো সাজ সজ্জা বড়দিনে দেয়া ঠিক হবে না যেটা আপনার বড়দিনের পরিকল্পিত আনন্দকে মাটি করে দিবে।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com