ফল ও সবজির খোসা কাজে লাগানো যায়, জানেন?
প্রকাশ : ৩১ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:০২
ফল ও সবজির খোসা কাজে লাগানো যায়, জানেন?
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ফল বা সবজি কাটার পর সাধারণত খোসা ফেলে দিই আমরা। কিন্তু জানেন কি, এই ফেলে দেয়া খোসাও অনেক কাজে লাগতে পারে। বেশকিছু ফল ও সবজির খোসায় থাকে ফ্লেভার ও পুষ্টি। রান্না, স্কিন স্ক্রাব, কীটনাশক ও অরগ্যানিক হিসেবে দারুণ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।


পুষ্টিতে ভরপুর সবজির স্টক
সবজির খোসা দিয়ে বানাতে পারেন সুস্বাদু, পুষ্টিকর স্টক। পিঁয়াজ, গাজর, বাঁধাকপি, সিলেরি, আলু, রসুন, বিনস্, স্কোয়াশ, বেল পেপারস্, বেগুনের খোসা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস্ ও নিউট্রিয়েন্টসে ভরপুর। এদের খোসা দিয়ে তৈরি করতে পারেন স্টক/জুস।


স্টক বানানোর পদ্ধতি :


খোসা পরিষ্কার করে ফ্রিজে রাখুন। অপেক্ষা করুন।


এবার একটি বাটিতে জল নিন। ফ্রিজ থেকে খোসা বের করে সেই জলে দিন।


অল্প আঁচে ১০-১৫ মিনিট ফোটান।


ঠাণ্ডাহলে খোসাগুলি ছেঁকে তুলে নিন।


একটি কাচের বোতলে ভরে ফ্রিজে চারদিন রেখে দিন।


সুপ বানানোর সময় তাতে এই স্টক দিন অল্প করে।


সাইট্রাস ফল, যেমন কমলালেবু বা পাতিলেবুর খোসা দিয়ে স্টক বানিয়ে চায়ে মিশিয়ে খেতে পারেন। স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো। অন্যরকম স্বাদ পাবেন।


খোসা দিয়ে সাজাতে পারেন বাড়ি


আধুনিক গৃহসজ্জায় ইন্টিরিয়ার ডিজ়াইনাররা ইকোলজিকে গুরুত্ব দেন ইদানিং। ফেলে দেওয়া জিনিসে তৈরি নানারকম সজ্জাসামগ্রীকে বেছে নিয়েছেন তাঁরা। তার মধ্যে রয়েছে ফ্রুগাল পটপৌরি (Frugal Potpourri)। ফেলে দেওয়া বিভিন্ন ফল ও সবজির খোসা দিয়ে তৈরি পটপৌরি বসা বা শোয়ার ঘরের তাকে রেখে ঘরে সাজাতে পারেন।


বাজারে অনেক ধরনের ফ্রুগাল পটপৌরি কিনতে পাওয়া যায়। কিন্তু সেগুলির দাম অনেক। সঠিক পদ্ধতি মেনে চললে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলা যায় পটপৌরি।


সবজি ও ফলের খোসা নিন, যেমন - কমলালেবু, আপেল, বেদানা, মুসম্বি... ইত্যাদি।


কিছুদিন রোদে শুকিয়ে নিন।


সুগন্ধের জন্য তাতে মেশান গোটা দারুচিনি, জায়ফল, লবঙ্গ। শুকনো পাতা ও ফুলের পাঁপড়িও যোগ করতে পারেন।


একটি কাচের কৌটোয় সবক’টি ঢেলে মুখ বন্ধ করে রাখুন টানা ৩দিন।


সুন্দর দেখতে কোনও কৌটো নিন। কাচের কৌটো থেকে খোসার মিশ্রণটি সুন্দর কৌটোটিতে ঢালুন। উপর দিয়ে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েলে দিন। আপনরা পটপৌরি তৈরি!


স্কিন স্ক্রাব ও ময়েশ্চারাইজার


কিছু ফল ও সবজির খোসা খুব ভালো ত্বক পরিষ্কার করে। ত্বককে ময়েশ্চারাইজ় করে। কিছু খোসার অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস্ ও নিউট্রিয়েন্টস্ ত্বক উজ্জ্বল ও এক্সফোলিয়েট করে। আবার কিছু খোসা ময়েশ্চারাইজ়ার হিসেবেও কাজ করে। যেমন ধরুন, পাতি লেবু, আপেল, পেঁপে, বেদানা ও কলার খোসা দিয়ে ফেশিয়াল


মাস্ক ও বডি


স্ক্রাব ব্যবহার করা যায়। ত্বকের জৌলুস বাড়ে।


কমলা লেবুর কয়েকটি খোসা ২-৩দিন রোদে শুকিয়ে নিন। তারপর গ্রাইন্ডারে গুঁড়ো করে নিন। টক দইয়ের সঙ্গে ২ চা চামচ কমলালেবুর খোসাগুঁড়ো ও ১ চা চামচ কাঁচা মধু মেশান। মুখে ও গলায় লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। স্ক্রাব করুন ও ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে মুছে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩বার করলে তারুণ্যে ভরা উজ্জ্বল ত্বক পাবেন।


টকজাতীয় ফল দারুণ অ্যাস্ট্রিনজেন্ট হিসেবে কাজ করে। সেই ফলের খোসা মুখে লাগালে কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই পেয়ে যেতে পারেন নরম, উজ্জ্বল ত্বক। ত্বকের বলিরেখা ও কালোছোপ দূর হয় সহজেই। ত্বক টানটান করে তোলে।


অ্যাভোকাডোর রসালো অংশ, পেঁপে ও কলার খোসা দিয়ে ত্বক ময়েশ্চারাইজ় করতে পারেন।


দাঁতের যত্নে


অনেক কারণে দাঁত কালো হয়ে যায়। হলদেভাব দেখা দেয়। চকচকে সাদা দাঁত ফিরে পেতে পারেন কলা ও সাইট্রাস ফলের খোসার সাহায্যে। দাঁতের দাগ ও হলদেটেভাব দারুণভাবে দূর করে খোসা। এর জন্য কোনও প্রস্তুতি নিতে হয় না। কলার খোসার নরম দিক, পাতিলেবু কিংবা কমলালেবুর খোসা ঘষে নিন দাঁতে। তারপর টুথপেস্ট দিয়ে পরিষ্কার করুন। প্রতিদিন খোসা ঘষুন দাঁতে। কিছুদিনের মধ্যেই পেয়ে যাবেন সাদা দাঁত।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com