বাদল ফরাজির মুক্তি চেয়ে করা রিট খারিজ
প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০১৮, ১২:৩৯
বাদল ফরাজির মুক্তি চেয়ে করা রিট খারিজ
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ভুল বিচারে ভারতে কারাভোগকারী বাদল ফরাজির মুক্তি চেয়ে করা রিট উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।


বুধবার বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বাদল ফরাজির বিষয়ে সরকারের সব কার্যক্রম ইতিবাচক বলে আদেশে উল্লেখ করেছেন আদালত।


আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার হুমায়ুন কবির পল্লব ও ব্যারিস্টার কাওছার। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মাসুদ হাসান চৌধুরী পরাগ।


এর আগে গত ৮ জুলাই হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ সংক্রান্ত একটি রিট আবেদন দাখিল করেন ব্যারিস্টার হুমায়ুন কবির পল্লব ও ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওছার।


ওই রিটে বাদল ফরাজিকে জেলে আটক রাখা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আবেদন জানানো হয়।



স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব ও পররাষ্ট্র সচিব এবং আইজি প্রিজনকে রিটে বিবাদী করা হয়।


বিনা অপরাধে ভারতের কারাগারে প্রায় ১০ বছর বন্দী থাকার পর গত শুক্রবার দেশে ফিরিয়ে আনা হয় বাদল ফরাজিকে। তিনি বর্তমানে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী রয়েছেন।


বাগেরহাটের মোংলা বন্দরের কাছে ১৭ নম্বর ফারুকি রোডের বাসিন্দা আবদুল খালেক ফরাজি ও সারাফালি বেগমের ছেলে বাদল টিএ ফারুক স্কুলের অষ্টম শ্রেণি পাস।


প্রসঙ্গত, বাদলের ইচ্ছা ছিল তাজমহল দেখবে। এমন ইচ্ছায় ২০০৮ সালের ১৩ জুলাই দুপুরে বেনাপোল অভিবাসন কার্যালয়ে সব প্রক্রিয়া শেষ করে ভারতের হরিদাসপুর সীমান্তে প্রবেশের পরই নয়া দিল্লির একজন নারীকে হত্যার অভিযোগে বাদলকে আটক করে বিএসএফ। হিন্দি বা ইংরেজি ভাষায় কথা বলতে না পারার কারণে বিএসএফের কর্মকর্তাদের বোঝাতেই পারেননি যে খুনের অভিযোগ যে বাদলকে খোঁজা হচ্ছে তিনি সেই ব্যক্তি নন।


বিবার্তা/তৌহিদ/সোহান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com