আমরণ অনশনে অসুস্থ অনেকে, ৮টায় সংবাদ সম্মেলন
প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:৪৫
আমরণ অনশনে অসুস্থ অনেকে, ৮টায় সংবাদ সম্মেলন
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

সরস্বতী পূজার দিন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন ভোটের তারিখ হওয়ায় নির্বাচন পেছানোর দাবিতে আমরণ অনশনে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের অনশন অব্যাহত রয়েছে।


বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ কর্মসূচি পালন শুরু করে শিক্ষার্থীরা। এরপর প্রায় ২৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এ আমরণ অনশন চলমান রয়েছে। এদিকে এ অনশনে ৯ জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এদের মধ্যে ৭ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। বাকি দুজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে।


শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সরেজমিনে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়। রাত ৮ টায় শিক্ষার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করে তাদের দাবিসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন।


অসুস্থরা হলেন, জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের জিএস কাজল দাশ, থিয়েটার এ্যান্ড পারপরম্যান্স স্টাডিজের শিক্ষার্থী অপূর্ব চক্রবর্তী, মৃত্তিকা, পানি এবং পরিবেশ বিভাগের শিক্ষার্থী অর্ক সাহা,জয়ন্ত বণিক, ভবতোষ চন্দ্র রায়, ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজম্যান্টের শিক্ষার্থী সবুজ কুমার, পালি অ্যান্ড বুদ্ধিস্টের শিক্ষার্থী সুকেশ দেবনাথ, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী রবিউল আউয়াল রবি প্রমুখ।



এদিকে এদিন বিকেলে অনশনস্থলে এসে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। এ সময় তিনি আন্দোলনকারীদের দাবি মেনে নিয়ে নির্বাচন পিছিয়ে দেয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান।


এসময় অনশনস্থলে নেতৃত্বে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস বিবার্তাকে বলেন, নির্বাচন কমিশনের সাম্প্রদায়িক আচরণের প্রতিবাদ জানানোসহ ভোট পেছানোর দাবিতে আমরা গত কয়েকদিন আন্দোলন করছি। আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা গতকাল আমরণ অনশনে বসেছি।


তিনি বলেন, প্রায় ২৮ ঘণ্টা না খেয়ে অনশন করায় আমাদের অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।অনেককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অনশনস্থলেও জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের জিএস কাজল দাসসহ অনেকে অসুস্থ হয়ে আছেন। তারা হাসপাতালে যেতে রাজি হচ্ছেন না। তাদের অনশনস্থলে স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে।


তিনি আরো বলেন, আমাদের অনশনে ভিসি স্যার, ডাকসু নেতৃবৃন্দসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষক সংহতি জানিয়েছেন।বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও দলে দলে এসে আমাদের সাথে সংহতি জানাচ্ছেন। ছাত্রী বোনেরাও আমাদের অনশনে রয়েছে। তবে দুঃখের বিষয়, নির্বাচন কমিশন থেকে এখনো পর্যন্ত আমাদের কোনো খবর নেয়া হয়নি।


ঢাবির এ শিক্ষার্থী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশন চলবে। প্রয়োজনে লাশ হয়ে যাবো। তারপরেও দাবি আদায়ে পিছু হটবো না।


এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে শিক্ষার্থীদের এ অনশনে সংহতি জানিয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মিহির লাল সাহা, সংস্কৃত বিভাগের চেয়ারপারসন অধ্যাপক নৈমিতা মন্ডল, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দিন, জগন্নাথ হলের আবাসিক শিক্ষক কালিদাস দত্তসহ বিভিন্ন বিভাগের বেশকিছু শিক্ষক।


অনশনে একাত্মতা জানানো শিক্ষকরা বলেন, অসাম্প্রদায়িক এ বাংলাদেশে পূজার দিন ভোট দেয়া হয়েছে।আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। একইসাথে এ নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবি জানাই।


এরআগে মঙ্গলবার, বুধবারও একই দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছিলো ঢাবি শিক্ষার্থীরা।


বিবার্তা/রাসেল/আবদাল

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com