ওয়াশিংটনে সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন পালন
প্রকাশ : ২৯ জুলাই ২০১৯, ১০:৪১
ওয়াশিংটনে সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন পালন
ওয়াশিংটন প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ওয়াশিংটনে শনিবার (২৭ জুলাই) পালিত হলো জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৪৯তম জন্মদিন।


এ উপলক্ষে কেক কেটে ওয়াশিংটনে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৪৯তম জন্মদিন পালন করেন।


মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১ সালে ২৭ জুলাই ঢাকায় পরমাণু বিজ্ঞানী এমএ ওয়াজেদ মিয়া ও শেখ হাসিনা দম্পতির ঘরে জন্ম নেন সজীব ওয়াজেদ জয়। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর জয় নাম রাখেন নানা শেখ মুজিবুর রহমান।


ওয়াশিংটনে জন্মদিন পালন অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেরিল্যান্ড স্টেট আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ এম সেলিম, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শিব্বীর আহমেদ, সহ-সভাপতি জি আই রাসেল, সহ-সভাপতি জুয়েল বড়ুয়া, সহ-সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ প্রমুখ।


জন্মদিনের কেক কেটে বক্তারা সজীব ওয়াজেদ জয়কে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা’ উল্লেখ করে বলেন, ‘শুভ জন্মদিন সজীব ওয়াজেদ জয়। তুমিই ডিজিটাল বাংলার রূপকার এবং আগামীর সমৃদ্ধ বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি।


১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু সপরিবারে নিহত হওয়ার সময় মা ও বাবার সঙ্গে জার্মানিতে ছিলেন জয়। পরে মায়ের সঙ্গে রাজনৈতিক আশ্রয়ে ভারতে চলে যান তিনি। তার শৈশব ও কৈশোর কাটে ভারতে। সেখানকার নৈনিতালের সেন্ট জোসেফ কলেজে লেখাপড়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস অ্যাট আর্লিংটন থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে স্নাতক করেন তিনি। পরে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লোক প্রশাসনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।


২০০২ সালের ২৬ অক্টোবর ক্রিস্টিন ওভারমায়ারকে বিয়ে করেন সজীব ওয়াজেদ জয়। তাদের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। ২০০৭ সালে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম কর্তৃক গ্লোবাল লিডার অব দ্য ওয়ার্ল্ড হিসেবে নির্বাচিত হন সজীব ওয়াজেদ জয়।
২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ইশতেহারে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্লোগানটি যুক্ত হয় তার নেপথ্যে ছিলেন জয়। পরবর্তী সময়ে পর্দার অন্তরালে থেকে গোটা দেশে তথ্য-প্রযুক্তির বিপ্লব ঘটান এই তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ।


২০১৪ সালের ১৭ নভেম্বর সজীব ওয়াজেদ জয়কে অবৈতনিকভাবে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা পদে নিয়োগ দেয়া হয়।


লেখাপড়া করা অবস্থায় রাজনীতির প্রতি অনুরক্ত থাকলেও জয় সক্রিয় রাজনীতিতে নাম লেখান ২০১০ সালে। ওই বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি পিতৃভূমি রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য পদ দেয়া হয় তাকে, যার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজনীতিতে আসেন তিনি।


বিবার্তা/শিব্বির/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com