বাংলাদেশের সামনে অস্ট্রেলিয়ার রানের পাহাড়
প্রকাশ : ২০ জুন ২০১৯, ২০:০৬
বাংলাদেশের সামনে অস্ট্রেলিয়ার রানের পাহাড়
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ইনিংসের ৪৯তম ওভার শেষে বৃষ্টি বাগড়া দেয়ার আগে বাংলাদেশের বোলারদের নাস্তানাবুদ করলেন অজি ব্যাটসম্যানরা। বৃষ্টি বাধায় ১০ মিনিট বিরতির পর মোস্তাফিজের করা ইনিংসের শেষ ওভারে এলো ১৩ রান। যদিও শেষদিকে সৌম্য সরকার ৩ উইকেট আর মোস্তাফিজুর রহমান ১ উইকেট তুলে নেয়ায় অজিদের রানের পাহাড় ৪০০ রানের হিমালয় ছুঁতে পারেনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সামনে ৩৮২ রানের টার্গেট ছুড়ে দিয়েছে অজিরা।


বাংলাদেশের বিপক্ষে ব্যাট হাতে রীতিমত ঝড় তুলেছেন ওয়ার্নার। ১১২ বলে চলতি বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় ও ১৬তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়ার পর আরও আগ্রাসী হয়ে উঠেন এই বাঁহাতি। চার-ছক্কার বন্যা বইয়ে দিয়ে ছাড়িয়ে যান চলতি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ইনিংস খেলে জেসন রয়ের গড়া কীর্তি।


ইংলিশ ওপেনারের ১৫৩ ছিল এতদিন সর্বোচ্চ, যা ছাড়িয়ে ডাবল সেঞ্চুরির দিকে ধাবিত হচ্ছিলেন ওয়ার্নার। তবে তার ১৪৪ বলে ১৬৬ রানের ঝড় থামান সৌম্য। ১৪ চার ও ৫ ছক্কায় সাজানো এই ইনিংসটি অবশ্য সাকিব আল হাসানের কীর্তিও ম্লান করে দিয়েছে। চলতি বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক (৪৪৭ রান) এখন অজি ওপেনার।


দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পরও ব্যাট হাতে বাংলাদেশের বোলারদের কচুকাটা করছিলেন অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। তবে ব্যক্তিগত ১৬৬ রানের মাথায় সৌম্য সরকারের বলে রুবেল হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নিয়েছেন। কাকতালীয় ব্যাপার হলো, এর আগে অজিদের প্রথম উইকেটও (ফিঞ্চও) তুলে নিয়েছিলেন সৌম্য, আর ক্যাচ নিয়েছিলেন রুবেল।


এর আগে ৪ বাউন্ডারিতে সাজানো নিজের ১১তম ফিফটি তুলে নিয়েছেন উসমান খাজা। ঠিক ৫০ বলে এসেছে তার এই ফিফটি। ফিফটির দেখা পেয়েছিলেন অজি অধিনায়ক ও ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চও। অর্থাৎ, অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডারের প্রথম তিন ব্যাটসম্যান ৫০ ছাড়ানো ইনিংস খেলেছেন।


৫১ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৫৩ রান করে সৌম্য সরকারের বলে রুবেল হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন ফিঞ্চ। আউট হওয়ার আগে ওয়ার্নারের সঙ্গে তার জুটিতে এসেছে ১২১ রান। এরপর উসমান খাজা আর ওয়ার্নারের জুটিতে আসে ১৯২ রান। ওয়ার্নারের বিদায়ের পর ক্রিজে এসে মাত্র ১০ বলে ৩২ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন গ্ল্যান ম্যাক্সওয়েল। ২ চার আর ৩ ছক্কায় সাজানোর এই ইনিংসটি শেষ হয় রুবেল হোসেনের রান আউটের শিকার হয়ে। তবে আউট হওয়ার আগে তিন আর খাজা মিলে রুবেলের এক ওভারে নেন ২৫ রান।


ম্যাক্সওয়েল বিদায় নিলেও ক্রিজে বিপদ হয়ে ছিলেন খাজা। সৌম্য সরকারের করা ইনিংসের ৪৭তম ওভারের পঞ্চম বলে অর্থাৎ কিন্তু ম্যাক্সওয়েল বিদায় নেওয়ার ঠিক ২ বল পরেই মুশফিকুর রহিমের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ৭২ বলে ৮৯ রান করা খাজা। এরপর স্টিভ স্মিথকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে দ্রুত বিদায় করেন মোস্তাফিজুর রহমান।


এক সময় ৩১৩ রানে ২ উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়া ৩৫৪ রান তুলতেই হারায় আরও ৩ উইকেট। বিশেষ করে ৩৫২ রানে ম্যাক্সওয়েলের বিদায়ের পর মাত্র ২ রান যোগ করতেই আরও ২ উইকেট হারায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তবে শেষ পর্যন্ত মোস্তাফিজের করা শেষ ওভারে ১৩ রান নিয়ে বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছে অজিরা। ২০১৫ বিশ্বকাপে আফগানদের বিপক্ষে ৪১৭ রান বিশ্বকাপে তাদের সেরা স্কোর, যা আবার বিশ্বকাপ ইতিহাসেরও সর্বোচ্চ।


বল হাতে টাইগার বোলারদের মধ্যে সেরা বোলিং করেছেন সৌম্য সরকার। ৮ ওভারে ৫৮ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন এই পার্ট-টাইম বোলার। ১ উইকেট ঝুলিতে পুরলেও ৯ ওভারে ৬৯ রান খরচ করেছেন মোস্তাফিজুর রহমান। ৮ ওভারে ৫৬ রান খরচ করে উইকেটশুন্য মাশরাফি। মেহেদি হাসান মিরাজ ১০ ওভারে ৫৯ রান খরচ করেছেন।


যাকে দলে নিতে এতদিন ব্যাপক আলোচনা হচ্ছিল সেই রুবেল হোসেন ৯ ওভারে দিয়েছেন ৮৩ রান। রান খরচ করেছেন ওভার পিছু ৯.২২ করে। সাকিব ৬ ওভারে দিয়েছেন ৫০ রান। অর্থাৎ, বল হাতে সব বোলারই ব্যর্থ।


বিশ্বকাপের ২৬তম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টস হেরে ফিল্ডিং পেয়েছে বাংলাদেশ। সেমিফাইনালের পথ সহজ করতে হলে এই ম্যাচে জয় ছাড়া কিছুই ভাবার নেই মাশরাফির দলের।


বিবার্তা/জহির


>>বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচেও বৃষ্টির হানা

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

বি-৮, ইউরেকা হোমস, ২/এফ/১, 

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com