বাংলাদেশের আইটিখাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান
প্রকাশ : ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৮:২১
বাংলাদেশের আইটিখাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তিখাতে জাপান ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ এবং এ দেশের কম্পিউটার প্রকৌশলীদের সে দেশে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।


জাপান এক্সট্রার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (জেট্রো) এর আবাসিক প্রতিনিধির নেতৃত্বে সে দেশের ১০টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের ১৫ সদস্যের এক ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল ডাক, টেলিয়োগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সাথে সাক্ষাতকালে এই আগ্রহ ব্যক্ত করেন। জেট্রো জাপানের ট্রেড এন্ড ইন্ডাস্ট্রি মিনিস্ট্রির অধীন একটি প্রতিষ্ঠান।


প্রতিনিধি দল মন্ত্রীকে জানান, জাপানে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে প্রচুর আইটি ইঞ্জিনিয়ারের চাহিদা রয়েছে। তারা বাংলাদেশী কম্পিউটার প্রকৌশলীদের ভূয়শী প্রসংশা করে বলেন, এদেশের আইটি ইঞ্জিনিয়াররা অত্যন্ত দক্ষ ও পরিশ্রমী। তাই তাদের বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের জন্য বাংলাদেশ থেকে প্রাথমিকভাবে চারশ’ আইটি ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগ করতে চায়। প্রতিনিধি দল গমনেচ্ছু প্রকৌশলীদের জাপানি ভাষা শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।


গত কয়েক মাসে জাপানে বাংলাদেশের প্রায় তিনশতাধিক আইটি ইঞ্জিনিয়ারের কর্মসংস্থান হয়েছে। চলতি বছরের মে মাসে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ‘জাপান আইটি উই’ এ অংশগ্রহণ করেন। এসময় তিনি জাইকা, রিক্রুয়িটসহ সে দেশের নয়টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর সাথে বাংলাদেশের আইটি খাতের উজ্জ্বল সম্ভাবনা নিয়ে মতবিনিময় করেন। ওই মতবিনিময়ের ফলোআপ হিসিবে এ খ্যাতনামা জাপানী কোম্পানির প্রতিনিধিগণ বাংলাদেশ সফর করছেন। তিনি জাপানে কর্মরত বাংলাদেশি কম্পিউটার প্রকৌশলীদের সাথেও মতবিনিময় করেন।


তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী বলেন, জাপান বাংলাদেশের দীর্ঘ প্রতিক্ষীত বন্ধু ও উন্নয়ন সহযোগী। জাপান বাংলাদেশের ভালো ব্যবসা ক্ষেত্র। অনুরূপভাবে বাংলাদেশও জাপানের উত্তম ব্যবসায়ীক স্থান।


তিনি প্রতিনিধি দলকে জানান, বাংলাদেশে আইসিটি বিভাগের অধীনে বিভিন্ন ভাষা শেখানোর জন্য “সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন” প্রকল্প চালু রয়েছে। এ প্রকল্পের অধীনে ৬৫টি ল্যাবে জাপানী ভাষাসহ বিভিন্ন ভাষা শেখানো হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের জন্য অত্যন্ত চমৎকার পরিবেশ বিরাজ করছে। বর্তমান সরকার দেশে উচ্চ প্রযুক্তি নির্ভর শিল্প গড়ে তুলতে বিভিন্ন স্থানে হাই-টেক পার্ক গড়ে তুলছে। আইটি খাতে বিনিয়োগের জন্য সরকার হাট-টেক পার্কে জমি বরাদ্দ প্রদান, শতকরা ১০ ভাগ ক্যাশ ইনসেন্টিভ, ১০ বছর ধরে ট্যাক্স হলিডে প্রদান, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ, যোগাযোগসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে।


ইতোমধ্যে এসব পার্কে আগ্রহী হয়ে উঠেছে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা।স্যামসাং ও হুয়াইসহ বিভিন্ন কোম্পানি মোবাইল ফোন, ট্যাব, ল্যাপটপ ও এসব এর যন্ত্রাংশ উৎপাদন শুরু করেছে। কালিয়াকৈর হাই-টেক পার্কে শ্রীলঙ্কা, কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন এবং সৌদি আরবের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান শিল্প কারখানা স্থাপন করার জন্য কার্যক্রম শুরু করেছে। তিনি জাপানি বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে আইটি খাতসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের মাধ্যমে সরকার প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা গ্রহণের আহ্বান জানান।


মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আল্ট্রা এক্স এশিয়া প্যাসিফিক ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তাতসিয়াও হাতুরি, ভাইস প্রেসিডেন্ট চাইহারু নাকাবাইয়াসাহি মাসামি ইসিহবাসহির পরিচালক ও ড্রিম অন লাইন ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিরোওসি হোরি, পাসটেম সায়সন ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তাকাহিরো মুরাকামি ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইয়াসানোরি ইয়ামাজাকি, ইনফরমেশন স্ট্র্যাটেজি এন্ড টেকনোলজি কো. লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ঝান তাকাই, রিকোটা ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিকা ওহাসিহি, কলোওয়াইড কো. রিমিটেডের এসোসিয়েট মেম্বার, ইয়ামা ওউয়ামাডা বিটস্ট্রা ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আইহিরো মায়েদা, ইউনিভারেল সিস্টেম ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেইতারো ফুজি, বিজেআইটি ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের চেয়ারম্যান জে এম আকবর প্রমুখ।


বিবার্তা/রোকন/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com