অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত একটি পরীক্ষার পক্ষে মন্ত্রণালয়: গণশিক্ষামন্ত্রী
প্রকাশ : ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৪৭
অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত একটি পরীক্ষার পক্ষে মন্ত্রণালয়: গণশিক্ষামন্ত্রী
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিলে শিক্ষা নীতির আলোকে প্রাথমিক পর্যায়ে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত দু’টি পরীক্ষার বদলে একটি পরীক্ষা নেয়া হবে। আর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় একটি পাবলিক পরীক্ষার পক্ষে রয়েছে।


তিনি বলেন, যেহেতু বর্তমানে সরকার চেয়েছে পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হোক, সেটাই হচ্ছে।


তিনি আরো বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন শুরু হবে ৩০ ডিসেম্বর। তবে ১ জানুয়ারিতেই নতুন বই পাবে প্রাথমিক শিক্ষার্থীরা। নির্বাচনের জন্য বই পাওয়াতে কোনো অসুবিধা হবে না।


রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে রবিবার পরীক্ষা কেন্দ্র পরির্দশন করে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।


রবিবার সকাল সাড়ে ১০টা সারাদেশে একযোগে শুরু হয়েছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা। দুপুর ১টা পর্যন্ত পরীক্ষা চলবে। পরীক্ষা চলবে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত। এবার ৭ হাজার ৪১০টি কেন্দ্রে ৩০ লাখ ৯৫ হাজার ১২৩ শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে।


প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী বলেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিলে শিক্ষা নীতির আলোকে প্রাথমিক পর্যায়ে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত দু’টি পরীক্ষার বদলে একটি পরীক্ষা নেয়া হবে। যাদের পরামর্শ নিয়ে সমাপনী-ইবতেদায়ি পরীক্ষা শুরু করা হয়েছিল তারা বর্তমানে এ পরীক্ষা আয়োজন নিয়ে ভিন্ন মত প্রকাশ করছে। পঞ্চশ শ্রেণিতে পাবলিক পরীক্ষা আয়োজন করা সরকারের সিদ্ধান্ত, তাই এ পরীক্ষা আয়োজন করা হচ্ছে। তবে আমরাও একটি পরীক্ষা আয়োজনের পক্ষে।


তিনি বলেন, বলেন, প্রাথমিক ও অষ্টম শ্রেণি পর্যায়ে শুধুমাত্র একবার সমাপনী পরীক্ষা নেয়ার জন্য অভিভাবকরা বলে আসছেন। সেটা আমরা বিবেচনায় নিয়েছি। তবে এ বিষয়ে মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত নিতে হবে।


মন্ত্রী বলেন, মানসম্মত শিক্ষা বাস্তবায়ন করতে এবার প্রশ্ন পদ্ধতিতে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। বহুনির্বাচনি প্রশ্ন তুলে দিয়ে রচনামূলক ও এক কথায় উত্তর যুক্ত করা হয়েছে।


তিনি বলেন, পাঠ্যপুস্তক পড়ে শিক্ষার্থী বুঝতে পারছে কিনা তা মূল্যায়ন করতে নুতন পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে। সারাদেশে সুষ্ঠুভাবে সমাপনী ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। প্রশ্নফাঁস বা কোথাও কোনো বিশৃঙ্খলার ঘটনা শোনা যায়নি।


এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেন।


চলতি বছর প্রাথমিক সমাপনীতে ২৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৭০ জন এবং ইবতেদায়িতে ৩ লাখ ১৭ হাজার ৮৫৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

বি-৮, ইউরেকা হোমস, ২/এফ/১, 

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com