এ মাস থেকেই মিলবে ১২টি ভার্চুয়াল সেবা
প্রকাশ : ০৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:০২
এ মাস থেকেই মিলবে ১২টি ভার্চুয়াল সেবা
মৌসুমী ইসলাম
প্রিন্ট অ-অ+

কথা ছিল এ বছরের জুলাই মাসে বেশ কয়েকটি ভার্চুয়াল সেবা পাবে উদ্যোক্তারা। কিন্তু নানা কারণে তা হয়নি। তবে একটু বিলম্বে তা হতে যাচ্ছে। এ মাসের শেষে ১২টি অনলাইনভিত্তিক সেবা কার্যক্রম শুরু করবে বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)। এর ফলে একজন বিনিয়োগকারী ঘরে বসেই ব্যবসা শুরুর সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন।


সদ্যপ্রকাশিত বিশ্বব্যাংকের ডুয়িং বিজনেস ইনডেক্স-২০১৯-এ এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ। আগে ১৭৭তম অবস্থানে থাকলেও এবার এক ধাপ উন্নতি করে অবস্থান ১৭৬। সংস্থাটি জানিয়েছে, নতুন ব্যবসা শুরু করতেই বাংলাদেশী উদ্যোক্তাদের মূলধনের ২১ ভাগ অর্থ খরচ হয়ে যায়, আর বিদ্যুৎ সংযোগ পেতে গড়ে লাগে ১৫০ দিন।


ভবিষ্যত উন্নয়নলক্ষ্য পূরণে প্রতিবছর দরকার নয় বিলিয়ন ডলারের বিদেশি বিনিয়োগ। কিন্তু গত অর্থবছরে বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল মাত্র আড়াই বিলিয়ন ডলার।


শুধু বিদেশি বিনিয়োগই নয়, পরিবর্তন হচ্ছে না ব্যক্তিখাতের সার্বিক বিনিয়োগচিত্রও। আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতার মধ্যে অনেক ফারাক। কারণ, ব্যবসা শুরু করতেই পাড়ি দিতে হয় দীর্ঘ পথ। পদে পদে বাধার মুখে পড়েন উদ্যোক্তারা। ইজি অব ডুয়িং বিজেনস-এ নানান প্রতিবন্ধকতা সঙ্গে যুক্ত হয়েছে অবকাঠামোগত নানান ঘাটতিও।


বিষয়টি উপলব্ধি করে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসার প্রক্রিয়া সহজ করতে নানামুখী উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় গত ফেব্রুয়ারিতে পাস হয় ওয়ান স্টপ সার্ভিস অ্যাক্ট (ওএসএস)। এর অধীনে পর্যায়ক্রমে মোট ১৫০টি কার্যক্রম নিশ্চিত করবে বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। এরই ধারাহিকতায় এ মাসের শেষে অনলাইনে ১২টি সেবা নিশ্চিত করবে এই প্রতিষ্ঠান। যদিও গত জুলাই মাস থেকে এই সেবাগুলো দেবার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিডা, কিন্তু তা করা সম্ভব হয়নি। বিডা-র পরিচালক তৌহিদুর রহমান খান জানান, ঘরে বসেই ১২টি সেবা পাবেন উদ্যোক্তারা। সেবাগুলো হচ্ছে : ট্রেড লাইসেন্স প্রদান, টিআইএন সনদ, ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন, আরজেএসসি নাম সনদ, সিটি কর্পোরেশন ছাড়পত্র, বিডা-র ওয়ার্ক পারমিট, ভিসা প্রক্রিয়া সহজীকরণ, বিদেশি ঋণ অনুমোদন, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা, শিল্প রেজিস্ট্রেশন, মূলধনী যন্ত্রপাতি আমদানি সনদ এবং ডাইরেক্ট লিস্ট অ্যামিনমেন্ট।


তৌহিদুর রহমান খান জানান, শীঘ্রই সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর হবে। তারপর সেবাগুলো পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে একজন উদ্যোক্তা ঘরে বা অফিসে বসেই একটি ফরম পূরণ করেই ব্যবসা শুরুর সেবাগুলো পাবেন। পাইলট ভিত্তিতে এই কার্যক্রম শুরু হবে, পর্যায়ক্রমে আওতা বাড়বে। পরের ধাপে পরিবেশ ছাড়পত্র, ফায়ার সার্ভিস সেবা যুক্ত করা হবে।


তিনি বলেন, এতোদিন এক দরজায় সেবা (ওএসএস) ছিল না। ফলে ব্যবসা শুরুর সনাতনী পদ্ধতি গ্রহণ করায় সমস্যা তৈরী হতো। পর্যায়ক্রমে কল সেন্টার স্থাপন করবে বিডা, যেখানে ফোন করেই সব ধরনের পরামর্শ ও সেবা গ্রহণ করতে পারবেন উদ্যোক্তা।


ইতিমধ্যেই বিদ্যুৎ সংযোগে অগ্রগতি এসেছে বলে জানান তৌহিদুর রহমান। বলেন, আগে একজন উদ্যোক্তার বিদ্যুৎ সংযোগ পেতে সময় লাগতো ২৪৭ দিন, এখন তা কমে লাগে ২৮ দিন।


ঢাকা চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রিজ-এর সাবেক সভাপতি আসিফ ইব্রাহিম মনে করেন, বারবার প্রতিশ্রুতি দেয়ার পরও সহজ হচ্ছে না ব্যবসা শুরুর প্রক্রিয়া। অনেক শক্তিশালী কমিটি কাজ করছে, নীতিকাঠামোও প্রস্তুত হচ্ছে, কিন্তু বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কোথায় যেন আটকে যাচ্ছে।


তিনি বলেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা কাটিয়ে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। ব্যক্তিখাতের বিনিয়োগের পথ সুগম না করলে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয়। অবকাঠামোগত নানান সংকট মোকাবেলা করতে হয়। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ব্যবসা শুরুর জটিল প্রক্রিয়া।


ওদিকে, ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা সক্ষমতা সূচকে এক ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ। ১৪০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১০৩। ১৭ অক্টোবর বাংলোদেশে এই রিপোর্ট প্রকাশ করে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)। ব্যবসায়ীদের মতামতের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। ব্যবসায়ীরা মনে করেন, বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বড় বাধা দুর্নীতি। এর পরেই রয়েছে অবকাঠামোগত সমস্যা। বলা হয়, পণ্য বাজার ব্যবস্থা, বাজারের গতিশীলতায় অবনতি হলেও বাজারের আকার এবং উদ্ভাবনী ক্ষমতার উন্নতি হয়েছে।


বিবার্তা/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com