‘সরকার শিক্ষা খাতে বরাদ্দ নয়, বিনিয়োগ করে’
প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:৪১
‘সরকার শিক্ষা খাতে বরাদ্দ নয়, বিনিয়োগ করে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ শিক্ষাখাতকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়। এই খাতে সরকার বরাদ্দ নয়, বিনিয়োগ করে। পৃথিবীতে সবচেয়ে কম খরচে উচ্চ শিক্ষা বাংলাদেশেই প্রদান করা হয়।


তাই এর মর্যাদা ধরে রাখতে শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান তিনি।


আজ শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রোকেয়া হলে ৭ মার্চ ভবন উদ্বোধনের পর দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।


তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে স্মরণীয় করে রাখতে রোকেয়া হলের ছাত্রীদের জন্য নবনির্মিত ৭ মার্চ ভবন উদ্বোধন করেন।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ যতটুকু অর্জন সবটুকু বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের। আজ জাতির পিতা আমাদের মাঝে নেই। আমার তার রেখে যাওয়া স্বপ্ন ও আদর্শকে সামনে নিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করছি।


তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আন্দোলন-সংগ্রামের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হয়েছে। কিন্তু স্বাধীনতার বিরোধী অপশক্তি বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব মেনে নিতে পারেনি। তাই তারা জাতির পিতাকে হত্যা করেছে।


শেখ হাসিনা বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়ন ও বাংলাদেশকে বেকার মুক্ত এবং শিক্ষাকে বহুমুখী করতে বর্তমান সরকার কাজ করছে। উচ্চশিক্ষা বাজারমুখীকরণে কাজ করছি।


শিক্ষার উন্নয়নে তার সরকারের নেয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এদেশের শিক্ষায় গবেষণা খুব একটা গুরুত্ব পায়নি। কিন্তু ’৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে আমরাই প্রথম গবেষণায় বরাদ্দ দিই। সে সময় ১২ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। আজকে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা গুরুত্ব পাচ্ছে। আজকে সমুদ্র গবেষণা হচ্ছে, শিক্ষা নিয়ে গবেষণা হচ্ছে।


বাংলাদেশের সমৃদ্ধি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে বাংলাদেশের সমৃদ্ধি দেখে বিশ্ববাসী অবাক। তারা জিজ্ঞেস করে কোন ম্যাজিকে আমরা উন্নয়ন করেছি।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার সুযোগ হওয়ায় গর্বিত হওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আমার বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সের ছাত্রী ছিলাম আমি। কিন্তু ৭৫ সালে জার্মানিতে চলে যাওয়ার কারণে মাস্টার্স শেষ করা হয়নি। এই দুঃখটা এখনো রয়ে গেছে।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা মানুষের ভ্যাগ পরিবর্তন করতে কাজ করছি। দরিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছি। জনগণকে উন্নত জীবন দেব, খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবো। রাজনৈতিক নেতা হিসেবে এটা আমাদের অঙ্গীকার। আর এই অঙ্গীকার আমাদের পূরণ করতে হবে।


তিনি বলেন, ভোগের জন্য ক্ষমতায় আসিনি। ক্ষমতায় এসেছি মানুষের সেবা দিতে। সেই লক্ষ্যেই কাজ করছি।


এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান, উপউপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, ঢাবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


রোকেয়া হলের ‘৭ মার্চ ভবন’ ১১ তলাবিশিষ্ট। এ ভবনে প্রায় এক হাজার ছাত্রী আবাসন সুবিধা পাবেন।


নতুন এ হল উদ্বোধনের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী তরুণ শিক্ষকদের আবাসনের জন্য নির্মিত শহীদ আবুল খায়ের ভবন, এমবিএ ভবন (ইস্টার্ন উইং), চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের জন্য বঙ্গবন্ধু টাওয়ার ও জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের জন্য নির্মিত আবাসিক ভবনের ফলক উন্মোচন করেন।


বিবার্তা/জাকিয়া


>>ঢাবির ৭ মার্চ ভবন উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com