বন্যার্ত ৬০০০ পরিবারের পাশে ডা. ফেরদৌস খন্দকারের স্বেচ্ছাসেবী টীম
প্রকাশ : ২২ জুন ২০২২, ২১:২৩
বন্যার্ত ৬০০০ পরিবারের পাশে ডা. ফেরদৌস খন্দকারের স্বেচ্ছাসেবী টীম
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় আক্রান্ত সুনামগঞ্জ ও সিলেট। হাজার হাজার বসতবাড়ি পানির নিচে চলে গেছে, পানিবন্দী হয়ে দিন কাটাচ্ছে লক্ষাধিক মানুষ।


অনেক সেচ্ছাসেবী সংগঠন এর মতো সেবা দিতে এগিয়ে এসেছেন আমেরিকার প্রবাসী ডাক্তার ফেরদৌস খন্দকার এর দেবিদ্বারস্ত স্বেচ্ছাসেবী টীম ৷


প্রথমে গত সোমবার তিনি ৩ জন স্বেচ্ছাসেবী সিলেট ও সুনামগঞ্জ পাঠিয়েছেন ঐখানকার স্থানীয় মেয়র এবং ডিসির সাথে কথা বলে জায়গা নির্ধারণ করার জন্য অর্থাৎ কোন জায়গায় খাবার গুলো দিলে ভালো হবে।


সেই সঙ্গে একটি ট্রলার ভাড়া করা হয় আগামী ১৫ দিনের জন্য যার মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা ও খাবার বিতরণ করা হবে। ইতোমধ্যে গত মঙ্গলবার দেবিদ্বার থেকে ট্রাক বুঝাই করে মালামাল নিয়ে ২০ জনের একটি স্বেচ্ছাসেবী টিম সিলেট এবং সুনামগঞ্জে পৌঁছায়। ৬ হাজার পরিববারের জন্য শুকনো খাবার নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়া হয়। প্রথমে প্রায় ২০০০ প্যাকেট পাঠানো হয়। পর্যায়ক্রমে বাকিগুলো প্রতিদিন ১ ট্রাক বুঝাই করে পাঠানো হবে। প্রতি ট্রাকের সাথেই স্বেচ্ছাসেবীরা ধাপে ধাপে ১০০ জনের মতো সুনামগঞ্জ ও সিলেট যাবে। গত ৩ দিন ধরে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত শেখ রাসেল ফাউন্ডেশন দেবিদ্বার উপজেলা শাখার অফিসে ৩০ সেচ্ছাসেবী প্যাকেটিং করার কাজে নিয়োজিত আছেন।


ত্রাণ সামগ্রী ও প্যাকেটের মধ্যে আছে মুড়ি, চিড়া, গুড়, পাউরুটি, বিস্কুট খাবার স্যালাইন, মোমবাতি, গ্যাসলাইট, নিরাপদ পানি ইত্যাদি। হাওরে চিকিৎসা সেবা দেয়ার জন্য ২ জন চিকিৎসক সিলেট থেকে নেয়া হয়েছে, ১৪ দিন তারা সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ট্রলার দিয়ে ঘুরে ঘুরে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ঔষধ এবং সেবা দিবেন।


ডাক্তার ফেরদৌস খন্দকার করোনাকালীন নিজের জীবন বাজি রেখে দেশের মানুষের জন্য ছুটে এসেছেন। বিদেশে বসে প্রতিটা মুহূর্ত তিনি খোঁজ খবর নিচ্ছেন। তিনি আরও জানান, প্রয়োজন হলে খাদ্যের ট্রাক আরও বাড়ানো হবে। আমি আছি দেশের মানুষের পাশে। সুনামগঞ্জের ৯০ শতাংশ বাড়িঘর নাকি পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে। মূল্যবান জিনিসপত্র বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছে মানুষ। মানবেতর জীবনযাপন করছে বানভাসি সাধারণ মানুষ। তাদের নিরাপদ আশ্রয় দরকার, খাবার দরকার, দরকার আরও নানা ধরনের সাহায্য। আশা করব, সুনামগঞ্জের দুর্গত মানুষের সাহায্যার্থে সরকারের পাশাপাশি দেশের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো এগিয়ে আসবে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপই গ্রহণ করবে। আসুন বিপদাপন্ন মানুষগুলোর পাশে আমরা আমাদের সবটুকু সামর্থ্য দিয়ে পাশে দাড়াই।


বিবার্তা/জেএইচ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com