রাজশাহীতে জামাতের নেতাসহ আটক ৪৫, মামলা
প্রকাশ : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:৩৭
রাজশাহীতে জামাতের নেতাসহ আটক ৪৫, মামলা
জামায়াতের নেতা ওবাইদুর রহমান
রাজশাহী ব্যুরো
প্রিন্ট অ-অ+

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অভিযানে শিবিরের দুই কর্মীসহ ৪৫ জনকে আটক করা হয়েছে। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।


রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ইফতে খায়ের আলমের পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।


বিবৃতিতে বলা হয়, রাজশাহী মহানগরীর থানা ও ডিবি পুলিশ মহানগরীর বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে ২ জন জামায়াত শিবির কর্মীসহ বোয়ালিয়া মডেল থানা ৮ জন, রাজপাড়া থানা ৪ জন, চন্দ্রিমা থানা ১ জন, মতিহার থানা ৯ জন, কাটাখালি থানা ৩ জন, বেলপুকুর থানা ১ জন, শাহমখদুম থানা ১ জন, এয়ারপোর্ট থানা ৪ জন, পবা থানা ৬ জন, কাশিয়াডাঙ্গা থানা ৩ জন, কর্ণহার থানা ১ জন, দামকুড়া থানা ১ জন ও ডিবি পুলিশ ৩ জনকে আটক করে। যার মধ্যে ১২ জন ওয়ারেন্টভূক্ত আসামি, ১৫ জনকে মাদকদ্রব্যসহ ও অন্যান্য অপরাধে ১৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


এতে জানানো হয়, মহানগরীর বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে মতিহার থানা পুলিশ সাকিব হোসেন (২২) নামক শিবিরের সেক্রেটারী ও রাশেদা বেগম (৫০) নামক মহিলা জামায়াত কর্মীকে আটক করেছে।


তাদের সবার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।


এদিকে, রাজশাহীতে তানোর উপজেলায় ৮টি বোমাসহ জামায়াতের নেতা ওবাইদুর রহমানকে (৪৮) আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত ওবাইদুর রহমান কামারগাঁ বারোঘরিয়া গ্রামের গিয়াস উদ্দীনের পুত্র এবং জামায়াতের তানোর উপজেলা কমিটির সদস্য ও রোকন।


সোমবার মধ্যরাতে কামারগাঁ ইউনিয়নের বারোঘরিয়া মোড়ের নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান (ঔষধের দোকান) থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। এ সময় তার দোকানে তল্লাশি চালিয়ে ৪টি পেট্রোল বোমা ও ৪টি ককটেল বোমা উদ্ধার করা হয়।


এ বিষয়ে তানোর থানা এসআই আনোয়ার বাদী হয়ে ওবাইদুরসহ নামধারী বিএনপি-জামায়াতের ৩০জন নেতাকর্মী ও অজ্ঞাতনামা আরো ৩৫ জন নেতাকর্মীদের অভিযুক্ত করে গতরাতেই থানায় মামালা করেছেন। সেই মামলায় ওবাইদুর রহমানকে গ্রেফতার দেখিয়ে মঙ্গলবার সকালে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।


পুলিশ জানায়, সোমবার রাতে জামায়াত নেতা ওবাইদুর রহমানের দোকানে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা গোপন বৈঠক করছিল। এ সময় পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে যাওয়া মাত্র নেতাকর্মীরা পালিয়ে যায়।



মামালার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুর রাজ্জাক জানান, জামায়াত-বিএনপির নেতাকর্মীরা এলাকায় নাশকতা চেষ্টা করার পরিকল্পনা করার জন্য গোপন বৈঠক করছিল। অনেক নেতাকর্মীর নাম রয়েছে তবে তদন্তের স্বার্থে গোপন রাখা হয়েছে। এই মামলায় তানোর উপজেলার বিএনপি-জামায়াতের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নাম রয়েছে।


তানোর থানার ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, উপজেলা জামায়াতের রোকন ওবাইদুর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় মামালা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


বিবার্তা/অসীম/তারেক/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com