রৌমারীতে এলাচ চাষে সফল রেজাউল
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১৯:২১
রৌমারীতে এলাচ চাষে সফল রেজাউল
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে মসলা জাতীয় ফসল এলাচ চাষ করে সফল হয়েছেন রেজাউল ইসলাম। তার দাবি, দেশের মাটিতে তিনিই প্রথম ছোট এলাচ ও বড় এলাচ চাষ করে সফল হয়েছেন।


এখন নিজে এই এলাচের চাষের বিস্তৃত ঘটানোর চেষ্টা করছেন রেজাউল। এলাচের প্রতিটি চারা বিক্রি করছেন এক হাজার থেকে ১২শ টাকা পর্যন্ত। বিদেশ থেকে আমদানি করা এই এলাচ চাষে আগ্রহ বাড়ছে রৌমারী উপজেলাবাসীসহ পার্শ্ববর্তী উপজেলার মানুষের। তবে রেজাউলের ইচ্ছা এই এলাচ চাষ দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে পারলে বিদেশ থেকে আর আমদানী করতে হবে না।


কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুর চর ইউনিয়নের চুলিয়ার চর গ্রামের 'স্বপ্ন জয়' নার্সারির মালিক রেজাউল ইসলাম। ৮ বছর আগে ঢাকায় বিশ্ব ইজতেমায় পরিচয় এলাচ চাষ করে স্বাবলম্বী হওয়া শ্রীলংকার এক বিদেশী নাগরিকের সাথে। রেজাউলের আগ্রহে পরের বছর ইজতেমায় আসার সময় এলাচের দুটি চারা ও কয়েকটি বীজ নিয়ে আসেন সেই বিদেশী নাগরীক। এরপর থেকে শুরু হয় রেজাউলের স্বপ্ন জয় এলাচ চাষ প্রকল্পের কার্যক্রম।


রেজাউল ইসলামের বাড়িতেই প্রতিষ্ঠিত 'স্বপ্ন জয়' এলাচ চাষ প্রকল্প ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিটি গাছের গোড়া থেকে মাটি ফেটে ছড়া উপরে উঠে এসেছে। প্রত্যেকটি ছড়ায় পর্যন্ত কাঁচা এলাচ রয়েছে।


রেজাউল জানান, প্রতিটি ছড়া শুকানোর পর সেখান থেকে ৩৫ থেকে ৫০টি পর্যন্ত এলাচ পাওয়া যায়। এক শতক জমিতে ১০ থেকে ১৫টি চারা রোপন করে সেখান থেকে এক হাজারেরও বেশি চারা তৈরি হয়েছে। বর্তমানে তার নার্সারি ও বাড়িতে মিলে প্রায় ১ হাজার গাছে ফল এসেছে।


রেজাউলের স্ত্রী মর্জিনা আক্তার জানান, গত বছর থেকে তাদের আর অন্যান্য মসলার সাথে ছোট এলাচ বা বড় এলাচ কিনতে হচ্ছে না। তাদের নিজের গাছে উৎপাদিত এলাচই তারা অন্যান্য মসলার সাথে তরকারিতে ব্যবহার করছেন। আর নিজেদের প্রয়োজন মেটানোর পর বাকী এলাচ বাজারে বিক্রি করছেন।


রৌমারী প্রেসক্লাবের সভাপতি সুজাউল ইসলাম সুজা জানান, কুড়িগ্রামের রৌমারীতে রেজাউল ইসলামের এলাচ চাষ এখন এ এলাকার একটি আলোচিত বিষয়। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষজন তার 'স্বপ্ন জয়' নার্সারিতে এলাচের আবাদ দেখতে আসছেন চারা কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। আমরা আশাবাদী, দেশব্যাপী তার এলাচ চাষ ছড়িয়ে দেয়ার উদ্যোগ সফলতা পাবে।



কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান প্রধান জানান, আমি রৌমারী উপজেলার রেজাউল ইসলামের স্বপ্ন জয় এলাচ চাষ প্রকল্প সরেজমিনে ঘুরে দেখেছি। সে এলাচ চাষে সফলতা দেখিয়েছে। কৃষি বিভাগ তার এলাচ চাষ সর্বত্র ছড়িয়ে দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করবে।
'স্বপ্ন জয়' নার্সারির উদ্যোক্তা রেজাউল করিম এলাচ চাষ করে যে সফলতা দেখিয়েছে তা সকলের জন্য অনুকরণীয় হতে পারে। কৃষি বিভাগের প্রয়োজনীয় সহায়তায় এ এলাচ চাষ সর্বত্র ছড়িয়ে দেয়া গেলে তা মসলা চাষে বিপ্লব ঘটবে বলে মনে করছেন এখানকার মানুষজন।


বিবার্তা/সৌরভ/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com