জামিনে বের হয়ে নিহত ও বাদীর পরিবারকে হত্যার হুমকি
প্রকাশ : ১৯ মে ২০১৮, ১১:২৭
জামিনে বের হয়ে নিহত ও বাদীর পরিবারকে হত্যার হুমকি
সাভার প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

সাভারে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এক জাপান প্রবাসী রেজাউল করিম রাজাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার মামলায় গ্রেফতার হওয়া আসামি জামিনে বের হয়ে মামলার বাদী ও নিহতের পরিবারকে হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।


এ ঘটনায় পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে শনিবার সকালে সাভার মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করা হয়েছে। জিডি নং (৫৩)।


এ ঘটনায় ওই দুই পরিবারের সদস্যরা চরম আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। সন্ত্রাসীদের ভয়ে বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না। ওই দুই পরিবারের শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসা যাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।


এলাকাবাসী জানায়, সাভারের জালেশ্বর মৌজার রেডিওকলোনী এলাকায় সোরহাব নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে ৯ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো একই এলাকার হাবিবুল্লাহ গংয়ের।


২০১৬ সালের ১২ এপ্রিল সাভার থানা রোডের সেলেটম্যান্ট অফিসে এ বিরোধীয় সম্পত্তি নিয়ে ৩০ ধারা মোকদ্দমার শুনানি চলছিল। শুনানির এক পর্যায়ে রেডিওকলোনী এলাকার সন্ত্রাসী ও ভুমিদস্যু এরশাদ উপ-সহকারি সেটেলম্যান্ট কর্মকর্তার সেরেস্তায় সময় প্রার্থনা করেন। এ সময় দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ২ ঘন্টা সময় মঞ্জুর করেন। তখন রাজা সেটেলম্যান্ট অফিস থেকে বের হলে এরশাদ ও তার ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা রাজাকে কুপিয়ে হত্যা করে।


এ সময় রাজাকে বাচাঁতে গেলে সন্ত্রাসীরা আরো সাতজনকে পিটিয়ে আহত করে। পরে হত্যার ঘটনায় এরশাদকে প্রধান আসামি ও ২৩ জনের নাম উল্লেখ করে সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন রাজার বোন জামাই জসিম উদ্দিন।


এতদিন এরশাদ এ হত্যা মামলায় পলাতক থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি। গত কয়েকদিন আগে এরশাদ আদালত থেকে অন্তবর্তীকালিন জামিন নিয়ে মামলার বাদীকে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দেয়। আগামী ১০ দিনের মধ্যে মামলা তুলে না নিলে জসিম উদ্দিন ও রাজার বাবা হাজি নাজিম উদ্দিনসহ তাদের পরিবারের সবাইকে হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি দেন তারা।


স্থানীয়রা অবিলম্বে এরশাদসহ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য দাবি জানান সরকারের কাছে।


মামলার বাদী জসিম উদ্দিন বলেন, এরশাদ বাহিনীর হুমকির কারণে আমরা বাড়ির বাইরে বের হতে পারছি না।


এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্য ওসি মোহসিনুল কাদির বলেন, এ ঘটনায় রাজার বোন জামাই জসিম উদ্দিন সাভার মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়রি জিডি করেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।


এ বিষয়ে মামলার প্রধান আসামি এরশাদ সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হয়নি।


বিবার্তা/শরিফুল/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com