ভাগ্য উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে সোনামুখী সেতু
প্রকাশ : ১৯ মার্চ ২০১৮, ০৫:১৭
ভাগ্য উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে সোনামুখী সেতু
জয়পুরহাট প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার সোনামুখী এলাকায় তুলসীগঙ্গা নদীর উপর স্থাপিত সেতুর নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যে সমাপ্ত হয়েছে। এ সেতু নির্মাণের ফলে অর্থনৈতিকভাবে এলাকার মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন। সেতুটি ব্যবহার করে স্থানীয় ব্যবসা বাণিজ্য প্রসারের পাশাপাশি রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের সাথে এলাকার সাধারণ মানুষদের যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল হলো। এর ফলে এলাকার কৃষি ভিত্তিক অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব পরবে বলে বিশ্বাস করেন স্থানীয়রা।


এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তুলসীগঙ্গা নদীটি দীর্ঘদিন থেকে বাঁশের সাকো ও নৌকা দিয়ে মানুষ পারাপার হতো। সোনামুখীর খেয়াঘাট সেতু নির্মিত হওয়ায় পূর্ব রাজকান্দা, আওয়ালগাড়ি, সোনামুখী, গোপীনাথপুরসহ দু‘অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের আকাঙ্ক্ষা পূরণ হলো। বিশেষ করে পূর্ব রাজকান্দা, আওয়ালগাড়ি, রোয়াইড়, আমিড়াসহ কয়েক গ্রামের শিক্ষার্থীরা ওই নদী পার হয়ে সোনামুখী স্কুলে যেত। সেতুটি নির্মাণ হওয়ায় এলাকার মানুষ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে বইছে খুশির আনন্দ। এই সেতু দিয়ে বগুড়া থেকে জয়পুরহাটের পথ অনেকটা সহজ হবে। সেতুটি নির্মিত হওয়ার ফলে দুই এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে নতুন করে সংযোগ স্থাপিত হবে।


উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা সদর থেকে তুলসীগঙ্গা নদীর পূর্ব পারে সোনামুখী খেয়া ঘাট এবং পশ্চিম পাশ দিয়ে পূর্ব রাজকান্দা গ্রাম পর্যন্ত সড়ক পাকাকরণ থাকলেও দুই এলাকার মধ্যে একটি সেতুর অভাবে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল না। বাধা ছিল তুলসীগঙ্গা নদীটি। এখান থেকে খেয়া নৌকা দিয়ে নদী পার হতে হতো শিক্ষার্থীসহ দুই এলাকার গ্রামের মানুষদের। কোনো যান বাহন এলাকা দিয়ে পার হতে পারত না। বিশেষ করে সোনামুখী স্কুলের অধিকাংশ শিক্ষার্থীদের ঝুঁকি নিয়ে সোনামুখীর খেয়া ঘাটে নদী পারাপার হতে হতো। আর যানবাহন নিয়ে ৩ কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে একই নদীর উপর নবাবগঞ্জ সেতু পার হয়ে উপজেলা কুড়ানু বাজার, বটতলী বাজারসহ কয়েকটি এলাকায় যেতে হতো।


এ দুর্ভোগ লাগবের জন্য আক্কেলপুর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর ২,৫৮,২৪,৯৮৬ টাকা ব্যয়ে এ সেতুটি নির্মাণ করেছে। সেতুটির দৈর্ঘ্য ৬৭ মিটার এবং দুপাশে ফুটপাতসহ ২৪ ফিট চওড়া। তাছাড়া সেতুর পশ্চিম পাড়ে প্রায় ৩০০ মিটার ও পূর্ব পাড়ে ১০০ মিটার সংযোগ সড়ক নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। ২০১৭ সালের শুরুতে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। সেতু নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান মণ্ডল ট্রেডার্স চলতি বছর জানুয়ারিতে মূল সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ করে। সংযোগ সড়ক নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এ শুধু বাকি উদ্বোধনের আনুষ্ঠানিকতা।


স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর আক্কেলপুর উপজেলা প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম জানান, তুলসীগঙ্গা নদীর উপর সোনামুখী খেয়াঘাট সেতুটি প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধনের প্রত্যাশা নিয়ে সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। সিদ্ধান্ত পাওয়া গেলে যে কোনো সময় সেতুটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।


বিবার্তা/শামীম/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com