প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুৎসাকারী শেরপুর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক!
প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি ২০১৮, ১৯:২৩
প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুৎসাকারী শেরপুর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক!
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতিনের বিরুদ্ধে বিএনপি-জামাত সংশ্লিষ্টতা এবং নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠেছে। শনিবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ওই কমিটি ঘোষণা করা হয়।


বিতর্কিত ব্যক্তিকে জেলা ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদ দান করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সতীর্থরা। নতুন কমিটি ঘোষণার পরপরই মতিউরের বিতর্কিত কিছু ফেইসবুক স্ট্যাটাস এবং একজন নারীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে দেখা যায়, মতিন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরুদ্ধে কটুক্তিমুলক স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তবে বর্তমানে মতিনের সেই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ রাখা হয়েছে।


২০১৩ সালের ২৩ নভেম্বর দুপর ১-২৫ মিনিটে মতিউর রহমান মতিন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছিলেন, “শেখ হাসিনা উদ্ভট সরকারের উদ্ভট প্রশাসন যে চালাচ্ছে কিছু বিকৃত মস্তিষ্কের জনবিচ্ছিন্ন দলীয় লোক, তা্র বহিঃপ্রকাশ হচ্ছে ঢাকার অবিবাহিত বাসিন্দাদের বাড়ি ছাড়ার পুলিশী নির্দেশ। এর আদেশদাতা ও পরামর্শদাতারা যে আসলে কতটা অপদার্থ ও নির্বুদ্ধি, তা সকল বিশ্লেষণ ও পর্যালোচনার ঊর্ধ্বে। শুধু এটুকুই বলার আছে এসব নির্বুদ্ধিতা ও অপদার্থতা হচ্ছে নির্মম পতনের লক্ষণ, যেমন অনেক লক্ষন শেখ হাসিনা আর তার খুনিয়া অনুসারীরা দীর্ঘদিন যাবৎ দেখিয়ে আসছে।”



তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন মতিন। তিনি বলেন, “কিছু মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তারা যেসব অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে উত্থাপন করেছে সেগুলো বানোয়াট ও ভিত্তিহীন।”


একই অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হয় শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জুনায়েদ নুরানী মনির সাথে। তবে অভিযোগের বিষয়ে সরাসরি কিছু না বলে তিনি বলেন, “যে অভিযোগের কথা আপনি বলছেন সেটি আমিও শুনেছি। আপনি যাচাই করে দেখুন। তবে যারা তার (মতিন) বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দিয়েছে সেই আইডিগুলো তো সচল রয়েছে। সচল আইডি দিয়ে কেউ মিথ্যা স্ট্যাটাস দিবে না।”


এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রনি বিবার্তাকে বলেন, “এমন অভিযোগ আমি শুনেছি। তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে দেখতে হবে। আর যদি অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাহলে আমরা অপরাধীর বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানাবো। একই সাথে আগামী কমিটিগুলোর ক্ষেত্রে এমন যাতে না হয় সেটিও আমরা আমাদের সাংগঠনিক ফোরামে আলোচনা করবো।”


এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইনের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।পরে তাকে মুঠোফোনে ক্ষুদেবার্তা (এসএমএস) পাঠানো হলেও তিনি এর কোনো জবাব দেননি।


এদিকে বিতর্কিত নতুন কমিটি বাতিলের দাবিতে শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা রবিবার রাস্তায় নেমে আসে। তারা দিনভর বিক্ষোভ করে। পরে তাদের এক সমাবেশ থেকে বিতর্কিত কমিটি বাতিলের দাবিতে সোমবার শেরপুরে হরতালের কর্মসূচি দেয়া হয়।


বিবার্তা/ওরিন/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com