‌‘হুয়াওয়েকে বাংলাদেশে গবেষণা ও উন্নয়ন সেন্টার স্থাপনের আহ্বান’
প্রকাশ : ২২ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৫৭
‌‘হুয়াওয়েকে বাংলাদেশে গবেষণা ও উন্নয়ন সেন্টার স্থাপনের আহ্বান’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

একটি মেইল পাঠাতে সময় লাগতো ১০ মিনিট। এখন আছে ব্রডব্যান্ড সংযোগ। সেই সংযোগ পেয়ে গত সাত মাসে ৪৫০০ মার্কিন ডলার আয় করেছে থরমা কৃষ্ণা দেও। তার মতোই ফুলবাড়ি ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা সাড়ে ৫ লাখ টাকা। এভাইবেই ইনফো সরকার প্রকল্পের ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগে হচ্ছে আয়। চলছে সংসার।


মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আইসিটি বিভাগের ইনফো-সরকার ৩য় পর্যায় প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠানে সেই গল্পগুলো তুলে ধরলেন তারা। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অংশীজনদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. মো. মুশফিকুর রহমান।


অনুষ্ঠানে উপস্থিত চীনের রাষ্ট্রদূতকে গ্রামকে শহরে রূপান্তরে নেয়া প্রকল্প বাস্তবায়নে ৫০০ মিলিয়ন ডলার ছাড় দেয়ার অনুরোধ জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী। একইসঙ্গে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের সিইও প্যান জুনফেং-কে এ দেশেই হুয়াওয়ের গবেষণা ও উন্নয়ন সেন্টার স্থাপনের আহ্বান জানান তিনি।


পলক বলেন, ২০১৭ সালে ইনফো সরকার ৩ প্রকল্প স্থাপন ছিলো চ্যালেঞ্জের। তবে সামিট কমিউনিকেশন ও ফাইবার অ্যাট হোম এই চ্যালেঞ্জ বাস্তবায়ন করেছে। এই প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়ন করায় আজ একনেক বৈঠকের আগে তিনি আমাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।


অনুষ্ঠানে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের শক্তিতে ইউডিসিগুলো প্রান্তিক মানুষের জীবন বদলে দিচ্ছে মন্তব্য করে এজন্য প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ও প্রতিমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন বরিশাল বিভাগের জেলাপ্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়দার।


এর আগে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইনফো-সরকার প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিসিসি নির্বাহী পরিচালক রণজিৎ কুমার।


এছাড়া, অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিআরআইজি এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক গুওয়া ওয়ে এবং হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের সিইও প্যান জুনফেং।


অনুষ্ঠানে ইউডিসি উদ্যোক্তাদের মধ্যে ঢাকায় পারুল শিকদার, রাজশাহী মাহমুদুল হাসান, বরিশালে মোছা. রোজিনা আক্তার, রংপুর বিভাগে মুনমুন নাহারকে সেরার সম্মাননা দেয়া হয়।


ময়মনসিংহ বিভাগে সেরা ফ্রিল্যান্সার সিলেট বিভাগে ফয়জুন আহমেদ, চট্টগ্রাম থেকে তারেক মাহমুদ, বরিশাল থেকে এস এম জাকির হোসেনকে পুরস্কৃত করা হয়।


এডিএন গ্রুপ চেয়ারম্যান আসিফ মাহমুদ, ফাইবার অ্যাট হোম চেয়ারম্যান মইনুল হক সিদ্দিকী ও সামিট কমিউনিকেশন চেয়ারম্যান ফরিদ খানকে ক্রেস্ট দেয়া হয়।


বিবার্তা/গমেজ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com