কর্মমুখী শিক্ষাই পারে অর্থনীতিকে ছন্দে ফেরাতে
প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০২২, ২২:৫৬
কর্মমুখী শিক্ষাই পারে অর্থনীতিকে ছন্দে ফেরাতে
নুরউদ্দিন জাবেদ
প্রিন্ট অ-অ+

শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষা কুসংস্কার ও বিভেদ দূর করে মানুষে মানুষে সম্প্রীতি বাড়ায় এবং সংস্কৃতি-সভ্যতাকে করে সমৃদ্ধ। তাই শিক্ষা জীবনের সঙ্গে সম্পৃক্ত। আর জীবনের সঙ্গে সম্পৃক্ত শিক্ষাই কর্মমুখী শিক্ষা। শুধু জ্ঞানার্জন নয়, অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্যও প্রয়োজন কর্মমুখী শিক্ষা।


যে শিক্ষাব্যবস্থায় মানুষ কোনো একটা বিষয়ে হাতে-কলমে শিক্ষালাভ করে জীবিকা অর্জনের যোগ্যতা অর্জন করে, তা-ই কর্মমুখী শিক্ষা। সারা বিশ্বে সাধারণ শিক্ষার অনিশ্চয়তার পরিপ্রেক্ষিতে কর্মমুখী তথা বৃত্তিমূলক শিক্ষার গুরুত্ব বেড়েছে। আধুনিক বিশ্বে বেঁচে থাকার জন্য নানা কলাকৌশল আবিষ্কৃত হয়েছে। অথচ ব্যবসা-বাণিজ্য, জীবনযাত্রায় আমরা ক্রমেই পিছিয়ে পড়ছি।


আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা এখনও অনেকটা পরাধীন যুগের। এখননো ব্রিটিশদের কেরানি বানানোর শিক্ষাব্যবস্থা আমাদের দেশে প্রচলিত। গতানুগতিক গ্রন্থনির্ভর শিক্ষাব্যবস্থা ডিগ্রিধারী শিক্ষিত ব্যক্তি তৈরি করছে বটে, কিন্তু তা কর্মভিত্তিক না হওয়ায় ফলপ্রসূ হয়ে উঠছে না। ফলে দেশ আজ ধীরে ধীরে অন্ধকারে নিমজ্জিত হচ্ছে। বাড়ছে বেকারের সংখ্যা। এ অবস্থার পরিবর্তনে প্রয়োজন কর্মমুখী শিক্ষা।


আমাদের দেশে বর্তমানে প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা প্রচলিত। এর সঙ্গে কারিগরি, প্রকৌশলী, চিকিৎসা, ভোকেশনাল ইত্যাদি কর্মমুখী শিক্ষার ব্যবস্থাও রয়েছে। তবে দেশে কর্মমুখী শিক্ষার ব্যাপক প্রসার ঘটেনি। ফলে প্রচলিত পন্থায় কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি নিয়ে লাখ লাখ যুবক বেকারত্বের গ্লানি বহন করছে। দেশে কর্মমুখী শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধার ঘাটতি রয়েছে। প্রয়োজনীয় শিক্ষা, লোকবল, শিক্ষা উপকরণ সরবরাহ, আর্থিক ব্যয় সংকুলানের ব্যবস্থা ইত্যাদি ক্ষেত্রেও প্রকট সমস্যা বিদ্যমান। এসব সমস্যা সমাধানে সরকারের বলিষ্ঠ পদক্ষেপ প্রয়োজন।


দেশের প্রচলিত পন্থায় কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি নিয়েও লাখ লাখ যুবক বেকারত্বের অভিশাপে দুশ্চিন্তা ও হতাশাগ্রস্ত। অথচ, উন্নত দেশগুলোর শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর বেশিরভাগই কারিগরি, বৃত্তিমূলক ও পেশাভিত্তিক শিক্ষায় শিক্ষিত। এমনকি এশিয়ার দেশ দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, হংকং, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা ইত্যাদি দ্রুত উন্নয়নশীল দেশে কর্মমুখী শিক্ষা যথেষ্ট গুরুত্ব পেয়েছে।


গ্লোবালাইজেশনের এই যুগে কারিগরি শিক্ষার কোনো বিকল্প নাই। উন্নয়নশীল দেশ থেকে উন্নত বিশ্বে পা রাখতে হলে অবশ্যই কর্মমুখী শিক্ষার ক্ষেত্র ও প্রয়োগ বাড়াতে হবে। এতে অর্থনৈতিক ছন্দে ফিরবে বাংলাদেশ।


লেখক: শিক্ষার্থী ও সংবাদকর্মী


বিবার্তা/জামাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com