বিএনপি এখন বিদেশি প্রভুদের কাছে ধরনা দেয়া শুরু করেছে: হানিফ
প্রকাশ : ১৮ আগস্ট ২০২২, ১৯:৩২
বিএনপি এখন বিদেশি প্রভুদের কাছে ধরনা দেয়া শুরু করেছে: হানিফ
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বিএনপি সকাল-বিকাল বিদেশিদের কাছে কান্না করছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, বিএনপির দুর্নীতিবাজ নেতা খালেদা-তারেক রহমানের ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড মানুষ দেখেছে। দেশের মানুষ তাদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। তারা বুঝতে পেরেছে আন্দোলন করে সরকার পতন করা যাবে না। তাই এখন বিএনপি বিদেশি প্রভুদের কাছে ধরনা দেয়া শুরু করেছে।


বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে কুষ্টিয়া পাবলিক লাইব্রেরির মাঠে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হানিফ এসব কথা বলেন।


মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, পাকিস্তানের প্রেতাত্মা বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র এখনো থামেনি। যুদ্ধাপরাধী জামায়াতকে নিয়ে বিএনপি বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র বানাতে চায়। স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াতের এ দেশে রাজনীতি করার অধিকার থাকতে পারে না। তাদেরকে শক্তভাবে প্রতিরোধ করতে হবে।



আওয়ামী লীগের এই সিনিয়র নেতা বলেন, বিএনপি শাসনামলে ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট দেশের ৬৩ জেলায় সিরিজ বোমা হামলা হয়েছিলো। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকন্যাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা হয়েছে। পুলিশ প্রহরায় জেএমবি মিছিলে করেছিলো। আর এখন বিএনপি বলে জেএমবি নির্মূল করেছি। এসব নির্লজ্জ মিথ্যাচার।


তারেক রহমান ১২৫ সন্ত্রাসী, জঙ্গীগোষ্ঠী তৈরি করেছিলো উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপির দণ্ডপ্রাপ্ত সন্ত্রাসী নেতা তারেক রহমান লন্ডনে পলাতক আছে। সেখান থেকে শ্লোগান দিচ্ছে টেকব্যাক বাংলাদেশ। আমি জানতে চাই বাংলাদেশকে আপনারা আর কোথায় নিয়ে যেতে চান? ক্ষমতায় থাকতে হাওয়া ভবন বানিয়ে সন্ত্রাসী, লুটপাট করেছেন। আওয়ামী লীগের ২৬ হাজার নেতাকর্মীকে হত্যা করেছেন। পাকিস্তানের স্টাইলে তালিবানি আফগানিস্তান আবার বানাতে চান? আবার বাংলাদেশকে জঙ্গী রাষ্ট্র বানাতে চান?


জিয়াউর রহমান চতুর্থ স্বাধীনতার ঘোষক ছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু এবং এক অভিন্ন। কোনো মেজরের হুইসেলে স্বাধীনতা আসেনি। জাতির পিতার নেতৃত্বে দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা এসেছে। তিনি বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। বঙ্গবন্ধু জানতেন তাকে যেকোনো মূহুর্তে গ্রেফতার করা হবে। তাই তিনি আগে থেকেই স্বাধীনতা ঘোষণা প্রস্তুত করে রেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর পক্ষে প্রথম স্বাধীনতা ঘোষণা পাঠ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা এম এ হান্নান। অথচ বিএনপি দাবি করে জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষক।


হানিফ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পর বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের দায়িত্ব নিয়ে মাত্র সাড়ে তিন বছরে রাজনৈতিক প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করে দেশ পুনর্গঠন করেছেন। প্রশাসনকে ঢেলে সাজিয়েছেন। আমাদের নতুন যাত্রা শুরু হয়েছিল। সেই অগ্রযাত্রা থামাতে স্বাধীনতা বিরোধীরা জাতির পিতাকে সপরিবার হত্যা করে। হত্যাকারীদের বিচারের রায় কার্যকর হয়েছে। বিশ্বের যে সমস্ত দেশ মানবাধিকার, গণতন্ত্রের সবক দেয় দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েকজন তাদের দেশে পালিয়ে আছে। বঙ্গবন্ধু পরিবারের খুনিদেরকে দেশে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করেছি। খুনিদের রায় কার্যকরের মধ্য দিয়ে আমরা জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করতে চাই।


তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে জড়িত আত্মস্বীকৃত খুনিদের বিচার হয়েছে কিন্তু চক্রান্তকারীদের বিচার হয়নি। বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যা করার কারণ ছিল স্বাধীনতা যুদ্ধে পরাজয়ের প্রতিশোধ। পাকিস্তান এবং তাদের পশ্চিমা মিত্র আমেরিকার চক্রান্তে এ হত্যাকাণ্ড হয়েছিল। আর এতে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান।



দেশের লোডশেডিং সংকট সাময়িক জানিয়ে তিনি বলেন, করোনার দুই বছর পুরো বিশ্ব বিপর্যস্ত ছিলো। পৃথিবীর অনেক দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শেখ হাসিনা জীবন-জীবিকার সমন্বয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তেলের দাম দফায় দফায় বৃদ্ধি পেয়েছে। ভবিষ্যতের সংকটের কথা চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী লোডশেডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শুরু হয়ে গেছে বিএনপির মিথ্যাচার। এই সংকট সাময়িক, আমরা সংকট কাটিয়ে উঠতে শুরু করেছি। আগামী মাসে বিদ্যুতের সমস্যা থাকবে না।


২০০৯ সালে রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার পর শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অন্ধকার থেকে আলোরর পথে নিয়ে এসেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশের উন্নয়ন, অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।


কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সদর উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী।


বিবার্তা/সোহেল/এসএফ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com