গরমে স্বস্তি টি-শার্টে
প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৯, ১৫:৩৪
গরমে স্বস্তি টি-শার্টে
মডেল: আমির পারভেজ
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

গ্রীষ্মের হাত ধরে প্রকৃতি উত্তপ্ত হচ্ছে পাল্লা দিয়ে। আবহাওয়ার পূর্বভাস বলছে গরমের তীব্রতা বাড়বে আরও বেশি। শহরজুড়ে একফোঁটা বৃষ্টির আহ্বান আবার বৃষ্টি হলেও যেনো ভ্যাপসা গরমটা রয়েই যায়। আর তাই এ গরমে স্বস্তি পেতে পরিবর্তন আনতে হবে পোশাকে। এই আবহাওয়ায় নিজেকে সুস্থ রাখতে ব্যবস্থা নেয়া চাই এখনই।


তীব্র গরমে পুরু পোশাক পরে থাকলে দ্রুত ঘেমে ভিজে যায়। সেই ঘাম শরীরে বসে সর্দি-কাশি, ঘামাচি, চুলকানি বা অন্যান্য রোগের আর্বিভাব ঘটে। তাই পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অবশ্যই পাতলা ও আরামের বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।


গরমের দিনে আরামের পোশাক কী? ঝটপট মিলবে উত্তর, টি-শার্ট। এটি তরুণ-তরুণী —সবার কাছেই জনপ্রিয়। নকশার বৈচিত্র্য আর কাপড়ের কোমলতা —দুয়ে মিলে টি-শার্টের বাজার এখন তুঙ্গে। শুধু আমাদের দেশেই নয়, সারা বিশ্বেই ফ্যাশনেবল তরুণ-তরুণীর কাছে তুমুল জনপ্রিয় টি-শাট। এ গরমে স্বস্তিদায়ক পোশাকগুলোই বেশি কাম্য।



ফ্যাশন সচেতন অনেকেই নিজেকে ট্রেন্ডি ভাবতে অভ্যস্ত। তারা স্বস্তির পাশাপাশি সৌন্দর্যকেও সমান প্রাধান্য দেন। গরমে ছেলেদের জন্য সবচেয়ে স্বস্তিদায়ক পোশাক হচ্ছে টি শার্ট। বিশেষ করে কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ছেলেদের কাছে এই পোশাকের বিকল্প নেই। জিন্স, গ্যাবাডিন কিংবা অন্যান্য প্যান্টের সঙ্গে টি-শার্ট বেশ মানিয়ে যায়। সব বয়েসের পুরুষ তাদের স্বাচ্ছন্দময় পোশাকের তালিকায় টি-শার্ট রাখতে পারেন।


গোল গলা, ভি গলা ও কলারসহ নানা রকম টি-শার্ট বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। টি-শার্ট কেনার আগে কাপড় সম্পূর্ণ সুতি কিনা তা যাচাই করে নেয়া জরুরি। টি-শার্টের হাফ হাতার নিচের দিকে ও কলারে ভিন্ন রঙের ব্যবহার চলছে। এসব ছাড়াও ফতুয়া কাটের গলাও বেশ চলছে। কাঁধে বা হাতায় একাধিক মোটা সেলাই দেখা যাচ্ছে। নিচের দিকে সম্পূর্ণ গোল বা হালকা কাটা। কিছু টি-শার্টের সামনের পার্ট পেছনের পার্টের চেয়ে সামান্য খাটো থাকে। এছাড়াও টি-শার্টের বুকে নানা ডিজাইনের সংমিশ্রণ ঘটেছে।



গরমের কথা মাথায় রেখে বর্তমানে ফ্যাশন হাউসগুলো নতুন নতুন ডিজাইনের টি-শার্ট এনেছে। গরমের দিনে আরামদায়ক এ পোশাকে হাওয়া-বাতাস চলাচলের ব্যবস্থাও দারুণ। এবার অনেক ডিজাইনার টি-শার্টের হাতাটা একটু লম্বা রাখছেন। তবে ফুলস্লিভ নয়, থ্রি-কোয়ার্টার হাতা গুটিয়ে পরার ট্রেন্ড দেখা যাচ্ছে।


টি-শার্টে সুতি ও নিট ফেব্রিক্সের কাপড় ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়া কটন, পলিয়েস্টারসহ বিভিন্ন কাপড়ের টি-শার্টও মিলে যাবে ফ্যাশন হাউসগুলোতে। টি-শার্টের কাপড় সম্পূর্ণ সুতি হলে তা বেশ আরামদায়ক হবে। ফ্যাশনে এখন গোল গলা ও কলারসহ দুই ধরনের টি-শার্টই বেশ চলছে। টি-শার্টেও এসেছে নতুন ডিজাইন হাফ হাতার নিচের দিকে ও কলারে ভিন্ন কাপড়ের ব্যবহার চলছে। কালো রঙ অতিরিক্ত তাপ শোষণ করে। তাই গরমে বেছে নিতে পারেন সাদা, নীল, ছাই, ঘন নীল, সবুজ, মেরুন, চাপা সাদা, হলুদ, হালকা ফিরোজা, গোলাপি, লালচে ইত্যাদি রঙের টি-শার্ট।


টি-শার্ট, জিন্স বা গ্যাবাডিন কিংবা অন্য প্যান্টের সঙ্গে বেশ মানিয়ে যায়। আর সব বয়েসের মানুষ স্বাচ্ছন্দ্যে তাদের পোশাকের তালিকায় রাখতে পারেন এই পোশাক।


বাজারে এখন বাহারি রং, ব্লক, বাটিক স্ক্রিনপ্রিন্টের টি-শার্টের সমারোহ। কালো রং অতিরিক্ত তাপ শোষণ করে। তাই কালোর বাইরে এসে বেছে নিতে পারেন উজ্জ্বল রংগুলো। সাদা, নীল, ছাই, ঘন নীল, সবুজ, মেরুন, চাপা সাদা, হলুদ, হালকা ফিরোজা, গোলাপি, লালচে ইত্যাদি রঙের টি-শার্ট পরতে পারেন।



টি-শার্টের মোটিফেও ব্যবহার করা হয় দারুণ সব ডিজাইন। কার্টুন ও ইলাস্ট্রেশনের প্রাধান্যও থাকে। টি-শার্টে সাধারণত কোনো বোতাম বা কলার থাকে না। সচরাচর এটি হয় গোল গলা। তবে ভি আকৃতি গলা ও খাটো হাতা হতে পারে। যদিও অনেকে খাটো হাতাযুক্ত যে কোনো শার্টকেই টি-শার্ট ভেবে ভুল করেন। পোলো শার্ট বা অন্যান্য কলারযুক্ত শার্ট আসলে টি-শার্ট নয়। এ ধরনের শার্টের হাতা কাঁধের পাশ দিয়ে সামান্য একটু বাড়তি থাকে, খাটো হাতার ক্ষেত্রে কনুই পর্যন্ত হতে পারে।


যেখানে পাবেন


দেশজুড়ে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসগুলোতে আধুনিক স্টাইলের টি-শার্ট পাওয়া যাচ্ছে। ফ্যাশন হাউস ছাড়াও নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা কলেজের সামনে, নিউমার্কেট এলাকায়, বায়তুল মোকাররম মার্কেটের সামনে, গুলিস্তান মোড়ে, মতিঝিল, গুলিস্তান, ইসলামপুর, মৌচাক, আজিজ সুপার মার্কেট, ফার্মগেটসহ বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ী অনেক দোকান থেকেও নানা রঙ ও নকশার টি-শার্ট কেনা যাবে।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

বি-৮, ইউরেকা হোমস, ২/এফ/১, 

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com