রান্নাঘরে যেসব রাখবেন না, এখনই ফেলে দিন!
প্রকাশ : ১৩ অক্টোবর ২০১৯, ১০:০১
রান্নাঘরে যেসব রাখবেন না, এখনই ফেলে দিন!
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

রান্নাঘর, যে কোনো বাড়ির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি স্থান। কারণ রান্নাঘর যেমন আমাদের খাবারের যোগান দেয় তেমনই এ রান্নাঘর কিন্তু যাবতীয় রোগের উৎস। রান্নাঘর অপরিষ্কার থাকলেই সেখানে বাসা বাঁধে জীবাণুরা। আর তাই দেখে নিন আপনার সাধের লক্ষ্মীঘরকে সুরক্ষিত রাখতে ঠিক ঠিক জিনিস এখনই ছুঁড়ে ফেলবেন।


১. খোলা খাবার বা পানীয়ঃ কোনো রকম খোলা খাবার, পানীয় রান্নাঘরে রাখবেন না। অপনার অজান্তেই তাতে মুখ দিতে পারে পোকামাকড়। পড়তে পারে টিকটিকি। যা স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক।


২. প্লাস্টিকের তেলের বোতলঃ প্লাস্টিকের বোতলে তেল অনেকেই ব্যবহার করেন। কিন্তু তা মোটেই বেশিদিন ব্যবহার করবেন না। খুব বেশি ২ মাস। আপনার অজান্তেই ওতে বাসা বাঁধে জীবাণুরা।


৩. জলের বোতল কখনই খোলা বা আলগা অবস্থায় রান্নাঘরে রেখে দেবেন না।


৪. ওয়াইনের বোতল খোলা অবস্থায় রাকবেন না। দুদিন পর থেকেই ওই বোতলে ফাংগাস জন্মায়। বোতল খুললেই কটূ গন্ধ বা ব্রাউন রঙের কিছু ভাসতে আপনি দেখতে পাবেন।


৫. মশলা বা হার্বস খোলা অবস্থায় বেশিদিন বাইরে ফেলে রাখবেন না। এতে মশলার গন্ধ নষ্ট হয়ে যায়।


৬. খাবার বেশি হলে আমরা ফ্রিজে রাখি। কিন্তু কখনই তা তিন দিনের বেশি রাখবেন না। তিন দিনের পুরনো খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক।


৭. যে স্পঞ্জ দিয়ে বাসন ধোয়া হয় তা এক সপ্তাহ অন্তর পরিবর্তন করে ফেলুন। জল আর সাবান লেগে থাকায় ওর মধ্যে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া জন্মায়। যা আপনি বুঝতে পারবেন না।


৮. বিয়ারের ক্যান ফ্রিজে রাখলেও তা একমাসের বেশি রাখবেন না। একমাসের পর থেকেই ওর মধ্যে ফারমেন্টেশন শুরু হয়।


৯. বেকিং পাউডার, খাবার সোডা ছ মাসের বেশি ব্যবহার করেবেন না। আপনি হয়তো ডেট, মাস মিলিয়েই কিনেছেন। বোতলের গায়ে লেখা থাকে একবছর পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু তা করবেন না।


১০. জ্যাম, সসের বোতল সবসময় ভালো করে মুখ বন্ধ করে রাখুন। ফ্রিজে রেখেছেন, হয়তো ভালো করে মুখ বন্ধ করেননি কিন্তু তা খেলে শরীরে বিষক্রিয়ার সম্ভাবনা থাকে।


বিবার্তা/এরশাদ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com