টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের মহতি ঘোষণা
প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০২০, ১৯:১৪
টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের মহতি ঘোষণা
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সরকার ঘোষিত প্রণোদনা না নেয়ার পক্ষে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনে কর্মরত করোনা আক্রান্ত আমার অগ্রজ সহকর্মী দেবাশীষ কুমার সরকারের সাথে আমি সম্পূর্ণ একমত।


শ্রদ্ধেয় স্যার ও সহকর্মীবৃন্দ,


সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে যারা হাসপাতালে এবং মাঠে ময়দানে করোনার এই আপদকালে সম্মুখে থেকে দায়িত্ব পালন করছেন তাদের মধ্যে আক্রান্ত এবং মৃতদের জন্য সরকার আর্থিক প্রণোদনা ঘোষণা করেছেন। বিষয়টি সাধুবাদ পাবার দাবি রাখে। টাংগাইল জেলা প্রশাসনে কর্মরত আমি বর্তমানে কোভিড আক্রান্ত বিধায় পদাধিকার অনুযায়ী আমি সুস্থ হলে দশ লক্ষ টাকা পাব এবং মারা গেলে আমার পরিবার ৫০ লক্ষ টাকা প্রাপ্ত হবে।


সরকারি কর্মচারীগণ এখন খুব ভাল বেতন-ভাতাদি প্রাপ্ত হন। আর দেশের যেকোনো ক্রান্তিকালে তারা দায়িত্ব পালন করবে এটাই স্বাভাবিক। এই মহামারি মোকাবেলা করতে গিয়ে সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশের অর্থনীতিও ঝুঁকির মাঝে রয়েছে। একটা বড় জনগোষ্ঠী উপার্জনহীন হয়ে পড়েছে। তাসত্ত্বেও সরকারের সময়োপযোগী নানা উদ্যোগ সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। অনেকেই ধারনাপোষণ করেন, এ দুর্যোগ থেকে এত সহজে আমরা পরিত্রাণ পাবনা এবং ধাপে ধাপে কম-বেশি সকলেরই আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে আক্রান্ত সকলকে আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করা সরকার তথা দেশের অর্থনীতির জন্য আর একটি বাড়তি বোঝা বলে আমি অনুভব করি। কেউ মারা গেলে, তার পরিবারকে ঘোষিত প্রণোদনা অবশ্যই প্রদান করা উচিত। কিন্তু, আক্রান্ত কর্মচারির ক্ষেত্রে আর্থিক প্রণোদনা প্রত্যাহারপূর্বক তার সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিত করা অধিকতর যৌক্তিক।


আমি মনে করি আমি সুস্থ হয়ে গেলে আমাকে দশ লক্ষ টাকা প্রদানের চেয়ে রাষ্ট্রের কোষাগারের জন্য এই অর্থ এখন বেশি প্রয়োজন।


সকলে আমার জন্য আশীর্বাদ করবেন আমি যাতে দ্রুত সুস্থ হয়ে এ দুর্যোগকালে পুনরায় মাঠ প্রশাসনের দায়িত্ব পালন করতে পারি।


আতিকুল ইসলামের ফেসবুক থেকে পাওয়া


বিবার্তা/জাই

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com