সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিল দাবি
ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা ঢাবি শিক্ষার্থীদের
প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ১৬:০০
ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা ঢাবি শিক্ষার্থীদের
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) অধিভুক্তি থেকে সরকারি সাত কলেজকে বাতিলের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। দাবি আদায়ে তারা অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।


রবিবার (২১ জুলাই) বেলা ২টার দিকে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে এ ঘোষণা দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আহ্বায়ক ও ঢাবির ব্যবস্থাপনা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আকাশ হোসেন আবির। এ সময় তিনি দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।


আকাশ বলেন, যতক্ষণ না আমাদের দাবি আদায় হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত রাখব। সোমবার (২২ জুলাই) সকাল ৭টায় রাজু ভাস্কর্যে সব শিক্ষার্থীকে একত্রিত হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। এরপর সেখান থেকে বিক্ষোভ করার ঘোষণা দেন।


এর আগে সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলসহ চার দফা দাবিতে সকাল থেকে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করেন শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেন তারা। শিক্ষার্থীদের তীব্র আন্দোলনে অচল হয়ে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কার্যক্রম।


উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে বিকেল সাড়ে ৪টায় নিজ কার্যালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ।



এর আগে সকালে সরেজমিন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন, কলাভবন, বাণিজ্য শিক্ষা অনুষদ ও সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে তালা ঝোলানো দেখা যায়। সকাল ৮টার আগে এসব ভবনের তালা খুলতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কর্মচারীদের বাগবিতণ্ডা হয়।


সকাল ৯টার দিকে প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মু. সামাদ তার কার্যালয়ে ঢোকার চেষ্টা করলেও শিক্ষার্থীদের বাধায় ঢুকতে পারেননি।


এ সময় প্রো-ভিসি তাদের বলেন, ‘এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের একক কোনো সিদ্ধান্ত নয়, জাতীয় সিদ্ধান্ত। তাই কোনো কিছু করতে হলে একটা প্রসেসের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। সেই সময় পর্যন্ত তোমরা আন্দোলন স্থগিত করো।’


আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, চার দফা দাবিতে তারা আন্দোলন করছেন। তাদের দাবিগুলো হলো- চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকেই অধিভুক্ত সাত কলেজ বাতিল করা, দুই মাসের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষার ফলাফল দেয়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম ডিজিটালাইজড করা এবং ক্যাম্পাসে যানবাহন নিয়ন্ত্রণ ও রিকশা ভাড়া নির্ধারণ করা।


এ দাবি আদায়ে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবনে তালা ঝুলিয়েছেন। প্রশাসন দাবি মেনে না নিলে তারা তালা খুলবেন না বলে জানান।


আকাশ হোসেন আবির বলেন, আমরা সাত কলেজের বিরোধী নই। আমরা চাই সাত কলেজে সঠিকভাবে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হোক। কিন্তু সেটি অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের আওতায় থেকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়।


তিনি বলেন, কারণ সাত কলেজ পরিচালনার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের যথেষ্ট জনবল ও অন্যান্য সামর্থ্য নেই। দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে বলে জানান তিনি।



বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com