নয়াপল্টনে পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় ৩ মামলা
প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:২০
নয়াপল্টনে পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় ৩ মামলা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়িতে আগুন ও হামলার ঘটনায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। রাজধানীর পল্টন থানায় মামলাটি তিনটি দায়ের করা হয়। এছাড়াও এ ঘটনায় বুধবার রাত পর্যন্ত ৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, গাড়ি ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, রাস্তা অবরোধ, পুলিশকে মারধর, সরকারি কাজে বাধার অভিযোগে এসব মামলা হয়েছে।


এছাড়াও বুধবার রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের লাইভ প্রোগ্রামে তিনি মামলা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।


এর আগে বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় ২৩ জন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য আহত হন। যার মধ্যে মতিঝিল বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শিবলী নোমান, মতিঝিলের এসি (পেট্রোল ) মোহাম্মদ ইলিয়াস, মতিঝিলের জোনের এসি মিশু বিশ্বাসসহ উর্ধ্বতন পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছে। এছাড়াও পুলিশের দুটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগও করা হয়।



পরে বুধবার সন্ধ্যায় রাজারবাগ পুলিশ লাইনস হাসপাতালে আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে যান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। এ সময় পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, ডিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ আছাদুজ্জামান মিয়া, কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের পরিচালক ডিআইজি ড. হাসানুল হায়দার, ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মীর রেজাউল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপস) কৃষ্ণ পদ রায়সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


পরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।


এ সময় তিনি বলেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করার উদ্দেশ্যে বিএনপি নয়া পল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ এবং পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে বিএনপি।


পুলিশের ওপর হামলার ঘটনাকে পরিকল্পিত হামলা বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন যখন নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেছেন, দেশের মানুষ নির্বাচনমুখী হয়েছে। এ সময় নির্বাচনকে বানচাল করার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে পুলিশের ওপর হামলা করা হয়েছে। এ হামলায় জড়িতদের ভিডিও ফুটেজ দেখে শনাক্ত করা হবে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


তবে বুধবার রাতে ৯টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ হামলার ঘটনা ছাত্রলীগ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।



তিনি বলেন, ছাত্রলীগের হেলমেট বাহিনী এসে পুলিশের গাড়ি ভাংচুর করেছে ও আগুন দিয়েছে। আমাদের দলের কোনো নেতাকর্মীর হেলমেট পরে আসার কথা নয়। আমাদের নেতাকর্মীরা দুদিন ধরে উৎসাহ-উদ্দীপনার ভেতর দিয়ে ফরম নিতে এসেছেন। যেটা ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ।


তিনি বলেন, পরিকল্পিতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়ে আবার আগের মতো আমাদের সারাদেশের কার্যালয়ের সামনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


বিবার্তা/খলিল/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com