আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ দীপনের পরিবার
প্রকাশ : ২০ নভেম্বর ২০২২, ১৫:২৮
আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ দীপনের পরিবার
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকার নিম্ন আদালত থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি আবু সিদ্দিক ও মইনুলকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে জঙ্গিরা। ফলে এই ঘটনায় বিস্মিত হয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন দীপনের পরিবার।


২০ নভেম্বর, রবিবার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন আদালত প্রাঙ্গণে এই ঘটনা ঘটে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের প্রধান হারুন আর রশীদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


তিনি বলেন, আদালতে নিয়ে যাওয়ার সময় ভবনের গেটের সামনে থেকে দুই পুলিশ সদস্যের চোখে স্প্রে করে আসামিরা পালিয়ে যায়। ঘটনার পরপরই আমাদের গোয়েন্দা সদস্যরা আসামিদের ধরার জন্য কাজ শুরু করেছে। ঢাকার সব পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। আশপাশের অলিগলিতে তল্লাশি করা হচ্ছে। আশা করছি খুব দ্রুতই তাদের গ্রেফতারে সক্ষম হব। এই ধরনের ঘটনা আদালত চত্বরে এই প্রথম ঘটল।


দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় অবগত করে এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে চাইলে দীপনের বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক আবুল কাশেম মো. ফজলুল হক বিবার্তাকে বলেন, আসামিদের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়ে আমি কিছুই শুনিনি। এখন আপনার মাধ্যমে শুনলাম।


তবে দীপনের স্ত্রী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা মেডিকেল সেন্টারের সিনিয়র মেডিকেল অফিসার ডা. রাজিয়া রহমান বিবার্তাকে বলেন, আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় আমরা শকড। বিচার তো হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এতো দীর্ঘসূত্রিতার কারণে পালাতে পারলো। আর এভাবে আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার হিসাব কিছুতেই মিলছে না। এটা হতে পারে না! আইন আদালত কোথায় আছে? পুলিশের চোখকে ধূলো দিয়ে পালিয়ে যাওয়া সম্ভব?


তিনি বলেন, এ বিষয়টি খতিয়ে দেখা উচিত। আসলে কী হয়েছিল? কেন হয়েছিল? কারা এর সাথে জড়িত? এই ঘটনা শুধু আমার পরিবার না, পুরো দেশের জন্য ভয়ংকর পরিস্থিতি। কাজেই এটাকে গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা উচিত।


উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর আজিজ সুপার মার্কেটে নিজের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান জাগৃতির কার্যালয়ে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছিলেন প্রকাশক দীপন। এ মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন- বরখাস্ত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়া, আকরাম হোসেন ওরফে হাসিব ওরফে আবির ওরফে আদনান ওরফে আবদুল্লাহ, মইনুল হাসান শামীম ওরফে সামির ওরফে ইমরান, আবদুর সবুর সামাদ ওরফে সুজন ওরফে রাজু, খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল ওরফে জিসান, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন ওরফে শাহরিয়ার ও শেখ আবদুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ওরফে জায়েদ ওরফে জাবেদ ওরফে আবু ওমায়ের।


গত বছর ১০ ফেব্রুয়ারি মামলার রায়ে আসামিদের সবার মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিলেন আদালত।


আসামিদের মধ্যে জিয়া ও আকরাম পলাতক। বাকিরা গ্রেফতার হয়ে কারাগারে ছিলেন। তারা সবাই নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’ এর সদস্য।


বিবার্তা/রাসেল/জামাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com