চট্টগ্রামের কর্ণফুলী যুবলীগ
নাজিম-সেলিম! ঢাল নেই, তলোয়ার নেই নিধিরাম সর্দার!
প্রকাশ : ১৮ মে ২০২৪, ১৯:৪৩
নাজিম-সেলিম! ঢাল নেই, তলোয়ার নেই নিধিরাম সর্দার!
জে. জাহেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

চট্টগ্রাম কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের একক নিয়ন্ত্রণ এখনো উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোলায়মান তালুকদারের হাতে বন্দি রয়েছে বলে স্বয়ং উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সম্পাদকের অভিযোগ।


কর্ণফুলী উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজিম উদ্দিন হায়দারকে যে কলমের খোঁচায় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করা হয়েছে, সেই একই কলমে মুহাম্মদ সেলিম হককে কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করা হয়। মজার বিষয় হলো নাজিম উদ্দিন হায়দারও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।


এটাকে প্রমোশন বা ডিমোশন যাই বলা হোক না কেন, বর্তমানে নাজিম উদ্দিন হায়দার যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও মুহাম্মদ সেলিম হক সাধারণ সম্পাদক দাবি করলেও যুবলীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা বলছেন ভিন্ন কথা। তারা বলছেন, বর্তমান সভাপতি-সম্পাদক দুজনেই ঢাল নেই, তলোয়ার নেই নিধিরাম সর্দার সেজে বসে রয়েছেন! তাদের হাতে যুবলীগের কোনো সাংগঠনিক ক্ষমতা নেই, তাই কমিটি দিতে পারছেন না। যে দুই কমিটি প্রথমে আংশিক থেকে পূর্ণাঙ্গ হয়েছে তাও দিয়েছেন সোলায়মান তালুকদার।



পাঁচ ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, ২০২২ সালের ৯ ডিসেম্বর বিকেলে উপজেলার ফকিরনীরহাট রাস্তার মাথায় 'কাউন্সিলর ভোটহীন' সম্মেলন শেষে কর্ণফুলী যুবলীগের সাবেক সভাপতি সোলায়মান তালুকদারকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। সেই হিসাবে ১৭ মাস আগে যুবলীগ ছাড়লেও পর্দার আড়ালে থেকে এখনো তিনি কলকাঠি নাড়ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ধীরে ধীরে প্রকাশ্যে আসছে সে অভিযোগ।



এমনকি চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সভাপতিও তার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে রাজনীতির মাঠে কানাঘুঁষা রয়েছে। তার সবচেয়ে বড় প্রমাণ- সোলায়মান তালুকদার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক থাকাবস্থায় '২০২২ সালের ১লা ডিসেম্বর' তারিখে নিজ স্বাক্ষরে ২০২৩ সালের ২০ মার্চ 'চরপাথরঘাটা ইউনিয়ন ও জুলধা ইউনিয়ন' যুবলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করেন। অথচ কমিটি দেবার সময় তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।


ওই দুই বিতর্কিত কমিটি পূর্ণাঙ্গ হলেও কর্ণফুলীর বাকি তিন ইউনিয়নে এখনো আংশিক বা পূর্ণাঙ্গ কোন কমিটি দিতে পারেনি নাজিম-সেলিম। কেননা, কর্ণফুলী যুবলীগ কাগজে-কলমে স্বাধীন হলেও সুতো কিন্তু এখনো সেই আ.লীগ সম্পাদক সোলায়মান তালুকদারের হাতে! তিনি সিগন্যাল না দেওয়া পর্যন্ত কোন বার্তা যাচ্ছে না। আর চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সভাপতির নীরবতায় আটকে রয়েছে শিকলবাহা, বড়উঠান ও চরলক্ষ্যা যুবলীগের কমিটি।


অন্যদিকে, নাজিম-সেলিম উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হলেও এখন তারা দন্তহীন বাঘ হিসেবে হাঁকডাক করছেন। তাদের হুংকার কিছুতেই কানে নিচ্ছে না দুই ইউনিয়ন যুবলীগের নেতাকর্মীরাও। বরং উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়েও যুবলীগ আঁকড়ে রাখার অভিযোগ রয়েছে সেলিম হকের বিরুদ্ধে। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে টুঙ্গিপাড়াও ঘুরে এসেছেন। কিন্তু যুবলীগ ছাড়ছেন না বলে তৃণমূলের অভিযোগ।


ওদিকে, নাজিম উদ্দিন হায়দারও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক থেকে যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হয়েছেন। যার ফলে, তৃণমূল থেকে নতুন আর কেউ যুবলীগের দুই শীর্ষ পদে আসতে পারছে না। পথ রুদ্ধ করে রেখেছেন তারা দুজনেই। তাই তাদের কৌশলের কাছে আটকা পরেছে কর্ণফুলী যুবলীগের শত শত নেতাকর্মীর স্বপ্নও।



যদিও কর্ণফুলী উপজেলা যুবলীগের দায়িত্ব নেবার মতো যোগ্যতাসম্পন্ন অনেক নেতা এখানে রয়েছে। কিন্তু গুটিকয়েক নেতার ব্যক্তিগত স্বার্থ ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে ভেতরে ভেতরে যুবলীগ ভেঙে টুকরো টুকরো হচ্ছে। কিন্তু আওয়াজ হচ্ছে না।



এমন অবস্থায় নাজিম-সেলিম পারছে না কোনো ‘কমিটি’ দিতে। যার বিরূপ প্রভাব পড়েছে গত কয়েকদিন আগে অনুষ্ঠিত হওয়া এইচটি কনভেনশন হলে বর্ধিত সভা আর রিভারভিউ কমিউনিটি সেন্টারে আ.লীগের বর্ধিত সভায়। এতে দলের নেতা-কর্মীরা জানান, ইউনিয়নে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না থাকায় দলীয় কার্যক্রম থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন অনেক যুবলীগ নেতাকর্মী। দলীয় কর্মসূচিতেও তাদের কেউ কেউ থাকছেন না।


তিন ইউনিয়নে (শিকলবাহা চরলক্ষ্যা বড়উঠান) সম্মেলনের ১ বছর পরেও প্রত্যাশিত পদ-পদবি না পেয়ে নিজেদের রাজনীতির মাঠ থেকেও অনেকটাই আড়াল করে রেখেছেন যুবলীগের বহু নেতাকর্মী। আবার পাঁচ ইউনিয়নে কমিটি না হলে কাউন্সিলর তালিকা হবে না। কাউন্সিলর তালিকা না হলে উপজেলা সম্মেলনও হবে না। কেন্দ্রের কাছে বানানো কাউন্সিলর তালিকা পাঠিয়েও পার পাওয়া যাবে না। এমন ঝামেলাও সামনে উপস্থিত হচ্ছে।


একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, কিছুদিন আগেও কর্ণফুলীতে ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি বিষয়ে নগরীর মাঝিরঘাট ব্যাংক এশিয়ার সামনে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়। এতে উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সম্পাদকসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কমিটি দিতে রাজি হলেও পরে বেকে বসেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান তালুকদার। তিনি সাবেক ভূমিমন্ত্রীর এপিএসকে বুঝাতে সক্ষম হয়েছেন- এখন কমিটি হলে নেতাকর্মীরা বিভিন্ন দিকে সরে যেতে পারে।


পরে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকেও এ যুক্তি বোঝাতে সক্ষম হন। এরপর আর উপজেলা যুবলীগের নেতারা শত চেষ্টা করেও কমিটি দিতে পারেনি। একই বিষয়ে গতমাসেও নগরীর গোল্ডেন স্পুন রেস্টুরেন্টে কর্ণফুলীর আট নেতা গোপন বৈঠক করেন। সেখানেও বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান তালুকদার।


নাম প্রকাশ না করা শর্তে কয়েকজন জ্যেষ্ঠ যুবলীগ নেতা বলেন, 'কর্ণফুলীতে যারা আওয়ামী লীগ তারাই যুবলীগ। উপজেলা যুবলীগ বলে কিছু নেই, যা আছে তা ‘সুবিধা লীগ’। এ সুবিধা ঘিরেই তৈরি হয়েছে এক একটি বলয়। অনুসারী নেতাকর্মীদের নিয়ে চাষ করা হচ্ছে ফেসবুকে। নেই দলীয় কর্মসূচি পালন। সংগঠনবিমুখ হয়ে পড়ছেন নেতা-কর্মীরা। ত্যাগী জ্যেষ্ঠ নেতাদের মূল্যায়ন হয় না। ফলে, ফেসবুক জুড়ে আর্তচিৎকারের শব্দ শোনা যায় মাঝে মাঝে।'


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্ণফুলীর শিকলবাহা এলাকার এক সিনিয়র নেতা বলেন, 'আসলে আমি যতটুকু বুঝেছি যুবলীগ নিয়ে একটা জটলা সৃষ্টির পেছনে স্থানীয় এমপির সরলতা ছিল। আর এটার সুযোগ নিয়ে গ্রুপের ভেতরে বাহিরে সবাই রাজনীতি করতেছে। কেন্দ্র থেকে উপজেলা কমিটি ভেঙে দেওয়ার কথা থাকলেও পদধারীরা স্থানীয় এমপিকে কনভিন্স করে ভাঙতে দেয়নি।'


অপরদিকে, ইউনিয়ন কমিটি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের হস্তক্ষেপের কারণে বাধাগ্রস্ত হয়ে আসছে যুবলীগ। আর কমিটি দেওয়া মানে বর্তমান এমপি ঘরণার বেশ কিছু নেতাকর্মী অজুহাত নিয়ে অর্থ-প্রতিমন্ত্রীর গ্রুপে চলে যাবে, যা অন্য গ্রুপের জন্য মঙ্গল হবে না। তবে এর দায়ভার উপজেলা আওয়ামী লীগ এড়াতে পারবে না। কারণ এমপির নির্দেশ ছিল উপজেলা আওয়ামী লীগ এর সাথে কথা বলে দ্রুত কমিটি দেবার।'


এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কর্ণফুলী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ সেলিম হক বিবার্তাকে বলেন, 'এ বিষয়ে আমার কোন মন্তব্য নেই। তবে কমিটি আমরা চাইলেও দিতে পারব না। কারণ সবার সাথে পরামর্শ করে করতে হয়। এ ব্যাপারে আপনারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সাথে কথা বলতে পারেন।'


উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজিম উদ্দিন হায়দার বিবার্তাকে বলেন, 'শিকলবাহা ইউনিয়নের সম্মেলন হয়েছে আজ এক বছর। এখনো আমরা কমিটি দিতে পারছি না। অনেকবার চেষ্টা করলেও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান তালুকদার কমিটি দিতে দিচ্ছেন না। কারণ তিনি জানেন এখন কমিটি দিলে যুবলীগ কর্ণফুলীতে চাঙ্গা হবে। এখন আবার সাধারণ সম্পাদকের সাথে আওয়ামী লীগের সভাপতিও মিলে গেছেন। তবে কর্ণফুলীতে ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি না হওয়ার কলকাঠি নাড়ছেন সোলায়মান তালুকদার। তিনি চান না কমিটি হোক। আর আমরা চাইলেও কমিটি দিতে পারতেছি না।'


এ বিষয়ে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম জহুর বিবার্তাকে বলেন, 'আমরা তো কর্ণফুলী যুবলীগকে বলেছি ইউনিয়ন কমিটিগুলো দিয়ে দিতে। তারা কেন দিচ্ছে না আমি জানি না। তবে খোঁজ নেব বিষয়টির।'


চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সভাপতি দিদারুল ইসলাম চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন, 'তিন ইউনিয়নের কমিটির বিষয়ে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সাথে কথা বলতে পারেন।'


চট্টগ্রাম দক্ষিণ বিভাগে দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সাইফুর রহমান সোহাগ এর মুঠোফোনে একাধিকবার কল ও হোয়াটসঅ্যাপে ক্ষুদে বার্তা পাঠালেও কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।


তবে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবিদ হোসেন বিবার্তাকে বলেন, 'জেলা থেকে সাংগঠনিক সম্পাদকদের উপজেলা ভাগ করে দেওয়া হয়েছে- সাংগঠনিক বিষয়গুলো দেখার জন্য। আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আনোয়ারা উপজেলার। সুতরাং কর্ণফুলী উপজেলা যুবলীগের কমিটি বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করতে পারছি না।'


এ বিষয়ে জানতে কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক চৌধুরী'র মুঠোফোনে কল করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। নির্ভরযোগ্য তথ্যে জানা যায়, তিনি দেশের বাহিরে রয়েছেন।


যুবলীগের এমন অভিযোগের বিষয়ে কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোলায়মান তালুকদার বিবার্তাকে বলেন, 'আমি কেন ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটির বিষয়ে হস্তক্ষেপ করব। আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি দেবে উপজেলা যুবলীগের নেতারা। আমার উপর যুবলীগ নেতারা যে অভিযোগগুলো করতেছে তার কোন ভিত্তি নেই।'


বিবার্তা/রোমেল/এমজে

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

এফ হক টাওয়ার (লেভেল-৮)

১০৭, বীর উত্তম সি আর দত্ত রোড, ঢাকা- ১২০৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com