দ্বিতীয় প্রান্তিকে লোকসানে রবি
প্রকাশ : ২৬ আগস্ট ২০১৬, ১৩:১৪
দ্বিতীয় প্রান্তিকে লোকসানে রবি
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+
মোবাইল ফোন অপারেটর রবি’র ডেটা খাতে আয় বাড়লেও সামগ্রিকভাবে অপারেটরটি বেশ খানিকটা লোকসানে রয়েছে। আড়াই বছর পর আবারও লোকসানে গুনছে রবি। বৃহস্পতিবার চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল- জুন) প্রকাশিত আর্থিক বিবরণীতে এ চিত্র উঠে এসেছে।


২০১৫ সালের একই সময়ের তুলনায় চলতি বছরের এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে অপারেটরটির আয় চার শতাংশ কমে এক হাজার ২৪৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা হয়েছে। আর গত বছর এই সময়ে অপারেটরটি ৯৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা নেট লাভ করলেও এ বছরের একই সময়ে তারা উল্টো তিন কোটি ৪০ লাখ টাকা নেট লোকসান করেছে।


প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বায়োমেট্রিক সিম নিবন্ধনের কারণে নতুন সংযোগের পরিমাণ কমে যাওয়া, সকল মোবাইল টেলিযোগাযোগ সেবার ওপর বাড়তি এক শতাংশ সারচার্জ ও দুই শতাংশ সম্পূরক শুল্ক নির্ধারণ এবং ভয়েস সেবার চেয়ে ইন্টারনেটভিত্তিক সেবার দিকে ঝোঁকার ফলে প্রবৃদ্ধির ওপর এর প্রভাব পড়ায় চ্যালেঞ্জ নিয়েই ২০১৬ সালের শুরু। এই চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও রবি ২ কোটি ৭৪ লাখ গ্রাহককে সফলভাবে টেলিযোগাযোগ সেবা প্রদান করছে, যা মোট মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর ২০ দশমিক ৯ শতাংশ।


রবি জানায়, নেটওয়ার্ক খাতে ক্রমাগত ব্যয়ের কারণে এক্ষেত্রে পরিচালনগত ব্যয় বৃদ্ধি এবং বাজারে সেবা ও পণ্যের দাম নিয়ে তুমুল প্রতিযোগিতার কারণে এমনটি হয়েছে। নেটওয়ার্ক আধুনিকায়ন এবং সম্প্রতি প্রণীত অর্থ আইন অনুসারে করের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে কর পরবর্তী মুনাফার ওপর প্রভাব পড়েছে। নেটওয়ার্ক আধুনিকায়নে বৃদ্ধি পাওয়া অবচয় ও বর্ধিত করের বাড়তি খরচকে বিবেচনায় না আনলে এ বছরের প্রথমার্ধে মুনাফার পরিমাণ দাঁড়াতো ১৭০ কোটি টাকা যা গত বছরের তুলনায় ৮ শতাংশ কম।


এ বিষয়ে রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও সুপুন বীরাসিংহে বলেন, ‘২০১৬ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে আমাদের রাজস্ব স্থিতিশীল রয়েছে। তবে বায়োমেট্রিক সিম পুনঃনিবন্ধনের পদক্ষেপ নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে ব্যবসায়িক অগ্রগতিতে। এরপরও গ্রাহকদের মানসম্মত সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আমরা ২.৫জি/৩.৫জি নেটওয়ার্কের বিস্তৃতি ও আধুনিকায়নে ক্রমাগত বিনিয়োগ করে চলেছি। সবসময়ের মতো এ বছরের প্রথমার্ধেও উদ্ভাবনী ও সাশ্রয়ী সেবা বাজারে এনেছি আমরা। এদেশের জনপ্রিয় শিল্পীদের গান ও আন্তর্জানিক অঙ্গনের নন্দিত গানের সম্ভার নিয়ে আমরা চালু করেছি ইয়ন্ডার মিউজিক যা শ্রোতাদের গানের পিপাসা মেটাতে এক অনন্য আয়োজন’।


দ্বিতীয় প্রান্তিকে অপারেটরটির স্মার্টফোনের প্রবৃদ্ধি ঘটেছে। জুনের শেষে অপারেটরটিতে ২৪ শতাংশ স্মার্টফোনের ব্যবহার হচ্ছে। যা গত বছরের একই সময়ে ছিল মাত্র ১৬ শতাংশ। আলোচিত সময়ে তাদের মাসিক গ্রাহক প্রতি গড় আয় ১৪৪ টাকা থেকে নেমে গেছে ১৩৫ টাকায়।


বিবার্তা/উজ্জ্বল/প্লাবন
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com