বঙ্গবন্ধুর চেয়ে বেশি আত্মত্যাগ কেউ করেনি
প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০:১৩
বঙ্গবন্ধুর চেয়ে বেশি আত্মত্যাগ কেউ করেনি
এইচ এম আল-আমিন
প্রিন্ট অ-অ+

কথাগুলো লেখা উচিৎ হচ্ছে কি-না, জানি না।


যারা মনে করে, ছাত্রলীগ মানে খারাপ তাদের উদ্দেশ্যেই এ লেখা, নিজেকে প্রচার করার জন্য নয়। যাদের সান্নিধ্যে রাজনীতি করেছি তারাও আমাকে এমন শিক্ষা দিয়েছেন।


রাজনীতি করা অবস্থায় সংগঠন বা ঢাকাবিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেজ ক্ষুন্ন হয়, এমন একটি কাজের কথাও কেউ বলতে পারবেন না। আমার কাছে, আমার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, আমার ছাত্রলীগ, দুটোকেই মনে হতো গর্বের। তাই সবার চেয়ে আলাদা হতে হবে আমার প্রতিটি কর্মকাণ্ড। সব সময় চেয়েছি ভাল কাজ, ভাল ব্যবহারের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ছোট ভাইদের ভিতরে গেঁথে দিতে।


রাজনীতিতে প্রাপ্তি শূণ্য হলেও একমাত্র প্রাপ্তি, যখন হলের ছোট ভাই, ছাত্রলীগের ছোট ভাই, চাকরীর প্রথম বেতনটা পেয়ে সেই টাকা থেকে কিছু টাকা জোর করে দিয়ে যায়। আর বলে, ভাই, আমার আপন বড় ভাই, আর বাবা-মায়ের মতোই আপনাকে শ্রদ্ধা করি, তাদেরকেও দিব, আপনাকেও দিলাম।


বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে নিজের হলে, ক্যাম্পাসে অনেক ছোট ভাইকে সব সময় বুকে আগলে রেখেছি, নিজের ক্ষতি করেও অনেক ছোট ভাইয়ের নিরাপত্তা দিয়েছি, সব সময় পড়াশোনা আর বঙ্গবন্ধুকে ভালবেসে দেশকে ভালবাসার পরামর্শ দিয়েছি, কোনো রকম বিপথগামী হতে দেইনি।


ক্যাম্পাসে, হলের দোকানে, ক্যান্টিনে খেতে গেলে একা খেয়েছি, কোনো ছোট ভাই থাকলে খেতে বলিনি - এমন ঘটনা খুব কমই আছে।


আমার হলে যারা থাকতো তারা কবে বাড়ি গিয়েছে, সময়মতো আসছে কি-না, ডিপার্টমেন্টে, বাড়িতে, হলে কোনো সমস্যা হয়েছে কি না? প্রথম সেমিষ্টারে ফলাফল দিলে রেজাল্ট ভাল হলে সিট দিয়ে উৎসাহ দিতাম, রেজাল্ট খারাপ হলে কেন খারাপ হয়েছে - এমন অনেক বিষয়ে সবসময খোঁজ নিয়েছি।


সব খবরই রাখতাম। এমনকী, ভুল হলে ক্ষমা করবেন, নিজের গায়ের জামাও অনেক ছোট ভাইকে দিয়েছি। সব সময় মনে হতো আমার কোনো ক্ষতি হলে আমার মা কষ্ট পাবেন, তেমনি প্রত্যেকটা সন্তানের মা আছে। পরিবারে পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে সবার ছোট হবার সুবাদে নিজের হলের, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের ছোট ভাইদের আপন ছোট ভাইয়ের মতো দেখেছি, বড় ভাইদেরও আপন ভাইয়ের মতোই শ্রদ্ধা করেছি।


কিন্তু অনেকেই এসব মনে না রাখলেও কিছু ছোট-বড় ভাই মনে রেখেছে। আমার এক ছোট ভাই ওলিউল্লাহ ময়ময়নসিংহের ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পাবলিক এডমিনিস্ট্রেশন বিভাগের লেকচারার হয়েছেন। বেতন পেয়ে প্রথম বেতন থেকে যা দিয়েছে, তাতে হয়তো আমার এক সপ্তাহ চলবে, কিন্তু মনে থাকবে সারা জীবন।


স্বপ্নগুলো কোনো প্রাপ্তির ছিল না। স্বপ্ন ছিল, ছোট ভাইরা এভাবেই মানুষ হবে আর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে সর্বত্র বিচরণ করবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের, ছাত্রলীগের বড় ভাই হিসেবে তাদের সাফল্যে গর্ববোধ করাটাই আমার স্বপ্ন।


দোয়া করি, ওলিউল্লাহ কোনো একদিন কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি হয়ে আমাদের মুখ আরও উজ্জ্বল করবে।


ছোট ভাইদের প্রতি সব সময় একটা দাবি ছিল, তোমরা যদি তোমাদের মাকে ভালবাসো, তাহলে দেশটাকে ভালবাসো। কারণ, দেশটাও মা। আর যদি দেশকে ভালবাসো, তাহলে বঙ্গবন্ধুকে ভালবাসো। কারণ, এ দেশের জন্য বঙ্গবন্ধুর চেয়ে বেশি আত্মত্যাগ কেউ করেনি, বঙ্গবন্ধুর চেয়ে বেশি কেউ এই দেশকে ভালবাসেনি।


লেখক : সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ


বিবার্তা/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com