অন্যতম সুন্দর পর্যটন স্পট নীলাচল
প্রকাশ : ২৪ আগস্ট ২০১৬, ১৪:১৩
অন্যতম সুন্দর পর্যটন স্পট নীলাচল
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+
বান্দরবানকে বলা হয় বাংলাদেশের পাহাড়ী কন্যা। আর এই বান্দরবান শহরের অন্যতম সুন্দর পর্যটন স্পট সম্ভবত নীলাচল। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১৬শ’ ফুট উঁচু এই জায়গায় বর্ষা, শরৎ কি হেমন্ত— তিন ঋতুতে ছোঁয়া যায় মেঘ। এছাড়া এখানে দাঁড়িয়ে দূর থেকে দেখা যায় বান্দরবান শহর আর পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া সাঙ্গু নদী।


আঁকা-বাঁকা উঁচু-নিচু পাহাড়ের শরীর বেয়ে প্রায় দুই কিলোমিটার পথ উঠে গেছে নীলাচল পাহাড়ের চূড়ায়। হেঁটে উঠতে দম ধরে রাখা মুশকিল। তাই ভরসা গাড়িই। প্রবেশপথের মূল গেটের ভেতর গাড়ি ঢুকলেও এটা গেটের বাইরে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। কাজ চলছে ডরমেটরি তৈরির। একমাত্র রেস্টুরেন্টটি খুলে যাবে শিগগিরই। নতুন দু’টি ওয়াচিং স্পট নির্মাণ শেষ। সব মিলিয়ে নতুন রূপে সাজছে বান্দরবান শহর থেকে সবচেয়ে কাছের ও অন্যতম সুন্দর পর্যটন স্পট নীলাচল।



প্রায় একশো একর জায়গার উপর অবস্থিত নীলাচল পর্যটন কেন্দ্র। জেলা প্রশাসন এটি দেখভালের দায়িত্বে। জেলার পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে মেঘলা, শৈলপ্রপাত, চিম্বুকসহ যে ক’টি স্পটকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে তাদের মধ্যে অন্যতম মেঘের আঁচলে ভাসা পাহাড় চূড়া নীলাচল।


নীলাচলে সম্প্রতি নতুন কয়েকটি জায়গা তৈরি করা হয়েছে পর্যটকদের জন্য। প্রথমে চূড়ায় একটি সুদৃশ্য গোলঘর নিয়ে শুরু করলেও দৃষ্টিনন্দন টেরাকোটা, বসা ও আড্ডা দেওয়ার জন্য তৈরি বিভিন্ন স্থাপনার পাশাপাশি পাহাড়ের উত্তর কিনারের ঢালে নির্মিত হয়েছে তিনটি রুচিশীল আধুনিক ইন্টেরিয়রের কটেজ।



২০১৫ সাল থেকে তিন বছরের জন্য ১৭ লাখ টাকায় ইজারা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। দূর থেকে দেখলে মনে হয় যেন পাহাড়ে ঝুলছে। এর ঠিক পাশ দিয়ে পুব প্রান্তে তৈরি করা হয়েছে একটি ওয়াচ পয়েন্ট। এনডিসি নিজেই পরিকল্পনা করে করেছেন এটি। সঙ্গে রয়েছে তার নেশার বিভিন্ন গাছ লাগানো।


পশ্চিম প্রান্তের শেষে তৈরি হচ্ছে একটি ডরমেটরি। এখানের ৪১টি রুমে থাকতে পারবেন প্রায় শতাধিক পর্যটক। তবে এক্ষেত্রে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ কম খরচে বেশি মানুষ থাকতে পারারা বিষয়টিতে জোর দেওয়া হচ্ছে বলে জানান মুজাহিদ। এর কিছু আগে পাহাড়ের শরীরে ঝুলছে একটি ভিভিআইপি কটেজ। দু’টি রুম এতে।


এছাড়া জেলা প্রশাসনের গেস্ট হাউজটি পরিত্যক্ত। এটা ছাড়াই ডরমেটরি তৈরি হয়ে গেলে নীলাচলে আবাসনের ব্যবস্থা হবে প্রায় ১২০ জন মানুষের। ডরমেটরিটি জেলা প্রশাসন বানাচ্ছে একেবারেই সাধারণ মানুষের জন্য।


নীলাচল থেকে পাখির চোখে দেখা যায় সবুজের ফাঁকে গলে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানো বান্দরবান শহর। পূর্ণিমা রাতেও এর রূপ অপরূপ। সূর্যাস্তও দেখা যায় এখান থেকে। সুন্দর পরিপাটি গোছানো পরিবেশ। সহজ যাতায়াত ব্যবস্থা আর জেলা প্রশাসনের আন্তরিকতায় নীলাচলই হতে চলেছে বান্দরবানের সবচেয়ে দর্শনীয় ট্যুরিস্ট স্পট।


বিবার্তা/জাকিয়া/যুথি
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com