ভিক্ষুক থেকে কোটি টাকার মালিক!
প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:১৩
ভিক্ষুক থেকে কোটি টাকার মালিক!
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ভারতের বেঙ্গালুরুর আনেকাল তালুক নামক এলাকার গোপাসান্দ্রা গ্রামে এক দরিদ্র পরিবারে রেনুকা আরাধ্যের জন্ম। এক সময় ভিক্ষা করে পেট চলত তার, বর্তমানে বড় ব্যবসায়ী তিনি। সে ব্যবসায় বছরে টার্নওভার ৩৮ কোটি টাকা!


ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, রেনুকা আরাধ্য এক সময় ভিক্ষা করে দিন যাপন করতেন। শুধু ভিক্ষাবৃত্তিই নয়, সংসার চালাতে গৃহপরিচারিকা, কারখানায় মেশিন চালানো ও একটি ছাপাখানার ঝাড়ু দেয়ার কাজও করেছেন তিনি।আর সেই ছাপাখানা থেকেই তার উন্নতি শুরু হয়ে আজ দেশটির হায়দরাবাদ, চেন্নাইয়ের সবচেয়ে বড় ট্যাক্সি পরিষেবা সংস্থাটি তার।


জানা যায়, সংসার চালানোর ক্ষমতা ছিলো না আরাধ্যের বাবার। বাবাকে সাহায্য করতে ছেলেবেলায় গ্রামে ভিক্ষা করতেন তিনি। এরই ফাঁকে স্থানীয় একটি স্কুলে পড়তেনও। তবে বাবার কাজে হাত লাগানোর জন্য বেশির ভাগ দিনই স্কুলে যেতে পারতেন না।


দরিদ্রদের জন্য বিনা খরচে চাল, ডাল সরবরাহ করার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হতো তাকে। সেসব সামগ্রী বাজারে বিক্রি করে খাবার কিনতেন পরিবারের জন্য। তাদের পরিবারে সদস্য সংখ্যা ছিলো পাঁচজন।


১২ বছর বয়সে একটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজনেন আরাধ্য। সেখানে থালাবাসন ধোয়া, বাজার করা থেকে শুরু করে গবাদি পশুর দেখাশোনাও করতে হতো তাকে।


আরাধ্যের বয়স যখন ১৫ বছর তখন তার বাবা মারা যান। এরপর সংসারের পুরো দায়িত্বনেন তিনি। এসবের মধ্যেই পড়াশোনা চালিয়ে যেতে থাকেন আরাধ্য।


এরপর একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ নেন। কিন্তু সেই উপার্জন দিয়ে এতোবড় সংসার চালানো যথেষ্ট ছিল না। তাই একইসঙ্গে রাতে নিরাপত্তারক্ষীর কাজ নেন তিনি।


এরইমধ্যে একটি ছাপাখানায় ঝাড়ুদারের কাজ পান আরাধ্য। সেখানে তার সততা ও কাজে আগ্রহ দেখে ছাপাখানার মালিক তাকে কম্পিউটারে টাইপ, হিসেব করা ও ডিজাইন করা শেখান।


সেই শিক্ষা দিয়ে একটি সংস্থার সেলসম্যান হন তিনি। সেলসম্যান থাকা অবস্থায় সতীশ রেড্ডি নামে এক গাড়ি চালকের সঙ্গে পরিচয় হয় আরাধ্যের।


এরপর বদলে যায় তার ভাগ্য। সতীশ থেকে গাড়ি চালানো শিখে সব কাজ ছেড়ে অ্যাম্বুলেন্স গাড়ির চালক হিসাবে কাজ শুরু করেন। চার বছর এভাবে অধ্যাবসায়ের পর কিছু টাকা জমান তিনি। এরপর ২০০৬ সালে দেড় লাখ টাকার ঋণ নিয়ে একটি গাড়ি কেনেন আরাধ্য।


কঠোর পরিশ্রমের পর আরো ৬টি গাড়ি কেনেন তিনি। দিনে দিনে ব্যবসা বড় হতে থাকে তার। এভাবেই আজ ৮০০ গাড়ির মালিক তিনি।


হায়দরাবাদ এবং চেন্নাইয়ের যাত্রীদের ভরসা এখন রেনুকা আরাধ্যের গাড়ি। রেনুকা আরাধ্যের ট্রান্সপোর্ট সংস্থা বছরে ৩৮ কোটি টাকা লেনদেন করছে।


বিবার্তা/আবদাল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com