সাড়ে ১১ লাখ টাকা পাওনা পরিশোধ করতে সামিয়া রহমানকে চিঠি
প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০২২, ১৬:৩৩
সাড়ে ১১ লাখ টাকা পাওনা পরিশোধ করতে সামিয়া রহমানকে চিঠি
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণায় চৌর্যবৃত্তির অভিযোগে পদাবনতি হওয়া গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সামিয়া রহমানের কাছে সাড়ে ১১ লাখ টাকা পাওনা পরিশোধের জন্য চিঠি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়।


গত ৩ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রবীর কুমার সরকার স্বাক্ষরিত এ চিঠি পাঠানো হয়।


চিঠিতে টাকা পরিশোধ না করলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয়। তবে প্রভিডেন্ট ফান্ড-এ সুদসহ বিশ্ববিদ্যায়ের কাছে তার ১৬ লাখ ৫৮ হাজার ২১৬ জমা আছে বলেও উল্লেখ রয়েছে চিঠিতে।


চিঠিতে বলা হয়েছে, সামিয়া রহমানের পাঠানো ৩১ মার্চ তারিখের পত্রের বরাতে এবং ২৬ এপ্রিল তারিখে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুসারে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসাবে দেনা-পাওনা সমন্বয় সাপেক্ষে গত বছরের ১৫ নভেম্বর থেকে বিধি মোতাবেক আগাম অবসর (আর্লি রিটায়ারমেন্ট) গ্রহণের অনুমতি প্রদান করা হয়েছে।



চিঠিতে আরো উল্লেখ রয়েছে, হিসাব অনুযায়ী-বিশ্ববিদ্যালয়ের তার কাছে ১১ লাখ ৪১ হাজার ৬০১ টাকা পাবে। সিন্ডিকেটের সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে আপনাকে তার কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাওনা টাকা পরিশোধ না করলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানানো হয়েছে চিঠিতে।


বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব পরিচালকের দফতরের রিপোর্ট অনুযায়ী, এই টাকা মধ্যে মূল বেতন বাবদ ৬ লাখ ৭ হাজার ৫৭৪ টাকা, বাড়ি ভাড়া বাবদ ৩ লাখ ৩ হাজার ৭৮৭ টাকা, চিকিৎসা ভাতা বাবদ ১২ হাজার ৮০০ টাকা, গবেষণা ভাতা বাবদ ৪২ হাজার ৬৬৭ টাকা, অফ ক্যাম্পাস ভাতা বাবদ ৮ হাজার ৫৩৩ টাকা, বৈশাখী ভাতা ১৪ হাজার ২৪০ টাকা, উৎসব ভাতা ১ লাখ ৪২ হাজার ৪০০ টাকা, মোবাইল ভাতা ৯ হাজার ৬০ টাকা।


উল্লেখ্য, গবেষণায় চৌর্যবৃত্তির অভিযোগের পর বিশ্ববিদ্যালয় এ নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী গত বছরের ২৮ জানুয়ারী সিন্ডিকেট সভায় সামিয়া রহমানকে সহযোগী অধ্যাপক থেকে পদাবনতি দিয়ে দুই বছর পর্যন্ত সহকারী অধ্যাপক রাখার সিদ্ধান্ত হয়। পরে ৩১ অগাস্ট ওই সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন এই শিক্ষক।


এ বিষয়ে হাইকোর্টে মামলা চলার মধ্যেই সামিয়া রহমান অবসর চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করেন।


তবে গত ৪ আগস্ট গবেষণায় ‘চৌর্যবৃত্তির’ অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সামিয়া রহমানকে পদাবনতি দেয়ার সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তাকে আগের পদ অনুযায়ী চাকরি সংক্রান্ত সকল সুবিধা এবং আর্থিক সুবিধা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।


বিবার্তা/সাইদুল/এসএফ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com